দৌলতদিয়ায় উভয়মুখী যাত্রীর চাপ
jugantor
দৌলতদিয়ায় উভয়মুখী যাত্রীর চাপ

  রাজবাড়ী প্রতিনিধি  

২৫ জুলাই ২০২১, ১৫:০২:০৩  |  অনলাইন সংস্করণ

ঘাটে যাত্রীর চাপ

দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের প্রবেশদ্বার নামে পরিচিত দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে ঢাকাফেরত ও ঢাকামুখী যাত্রীদের ভিড় দেখা গেছে। বেড়েছে ছোট যানবাহনের চাপও।

রোববার সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, নদী পার হয়ে ঢাকা থেকে যাত্রীরা তাদের বাড়ি ফিরছে এবং ঢাকামুখী যাত্রীরা তাদের কর্মস্থলে ফিরছেন। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বিকাল নাগাদ আরও যাত্রীর চাপ বাড়বে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ঢাকাফেরত যাত্রী রাজু মোল্লা বলেন, ঢাকায় ঈদ করে আজকে বাড়ি ফিরছি। বাড়িতে গিয়ে প্রিয়জনদের সঙ্গে লকডাউনের এই কয়েক দিন থাকব।

পাংশা থেকে ঢাকাগামী যাত্রী সোহাগ রহমান বলেন, ভোরেই বাড়ি থেকে বের হয়ে দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে এসে ৩ ঘণ্টা বসে অপেক্ষা করছি। ৩ ঘণ্টা পর একটি ফেরি ফিরেছে। এ ছাড়া ফেরি পুরোপুরি না ভরা পর্যন্ত নদী পাড়ি দিচ্ছে না বলে জানান তিনি।

বিআইডব্লিউটিসির দৌলতদিয়া ঘাট শাখার ব্যবস্থাপক শিহাব উদ্দিন যুগান্তরকে বলেন, এই রুটে ছোট-বড় মিলে ৯টি ফেরি চলাচল করছে।

শুধু জরুরি গাড়ি পারাপারের জন্য ফেরিগুলো চলছে বলে জানান তিনি।

দৌলতদিয়ায় উভয়মুখী যাত্রীর চাপ

 রাজবাড়ী প্রতিনিধি 
২৫ জুলাই ২০২১, ০৩:০২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ঘাটে যাত্রীর চাপ
ছবি: যুগান্তর

দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের প্রবেশদ্বার নামে পরিচিত দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে ঢাকাফেরত ও ঢাকামুখী যাত্রীদের ভিড় দেখা গেছে। বেড়েছে ছোট যানবাহনের চাপও।

রোববার সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, নদী পার হয়ে ঢাকা থেকে যাত্রীরা তাদের বাড়ি ফিরছে এবং ঢাকামুখী যাত্রীরা তাদের কর্মস্থলে ফিরছেন। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বিকাল নাগাদ আরও যাত্রীর চাপ বাড়বে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ঢাকাফেরত যাত্রী রাজু মোল্লা বলেন, ঢাকায় ঈদ করে আজকে বাড়ি ফিরছি। বাড়িতে গিয়ে প্রিয়জনদের সঙ্গে লকডাউনের এই কয়েক দিন থাকব।

পাংশা থেকে ঢাকাগামী যাত্রী সোহাগ রহমান বলেন, ভোরেই বাড়ি থেকে বের হয়ে দৌলতদিয়া ফেরিঘাটে এসে ৩ ঘণ্টা বসে অপেক্ষা করছি। ৩ ঘণ্টা পর একটি ফেরি ফিরেছে। এ ছাড়া ফেরি পুরোপুরি না ভরা পর্যন্ত নদী পাড়ি দিচ্ছে না বলে জানান তিনি।

বিআইডব্লিউটিসির দৌলতদিয়া ঘাট শাখার ব্যবস্থাপক শিহাব উদ্দিন যুগান্তরকে বলেন, এই রুটে ছোট-বড় মিলে ৯টি ফেরি চলাচল করছে।

শুধু জরুরি গাড়ি পারাপারের জন্য ফেরিগুলো চলছে বলে জানান তিনি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন