সৎমায়ের অত্যাচার সইতে না পেরে প্রাণ দিল কিশোর
jugantor
সৎমায়ের অত্যাচার সইতে না পেরে প্রাণ দিল কিশোর

  ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি  

২৫ জুলাই ২০২১, ১৫:০৭:১৫  |  অনলাইন সংস্করণ

আত্মহত্যা

ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলায় সৎমায়ের অত্যাচার সইতে না পেরে মহিবুল্লাহ (১৬) নামে এক কিশোর আত্মহত্যা করেছে।

শনিবার সন্ধ্যায় উপজেলার হবিরবাড়ি ইউনিয়নের সিডস্টোর বাজার এলাকার একটি মাদ্রাসা থেকে ওই কিশোরের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত কিশোর মহিবুল্লাহ ওই ইউনিয়নের ঝালপাজা গ্রামের মনু মিয়ার ছেলে।

এ ঘটনায় রোববার মহিবুল্লাহর মামা মজিবুর রহমান বাদী হয়ে আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগ এনে থানায় একটি মামলা করেছেন। এ ঘটনায় মহিবুল্লাহর সৎমাকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। ঘটনাটি নিশ্চিত করেছেন ভালুকা মডেল থানার ওসি মাহমুদুল ইসলাম।

মহিবুল্লাহর বাবা মনু মিয়া বলেন, মায়ের দেওয়া বাড়ির ভিটার জমি বিক্রির টাকা না পেয়ে কয়েক দিন ধরে হতাশায় ভুগছিল। এ ছাড়া আমি বেশিরভাগ সময় বাড়ির বাইরে থাকি।

মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক মাওলানা নিসার উদ্দিন জামিল জানান, মাদ্রাসা বন্ধ থাকায় আমরা সবাই ছুটিতে বাড়িতে চলে যাই। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসলাম।

ভালুকা মডেল থানার ওসি (তদন্ত) শফিকুল ইসলাম জানান, ছেলেটির মা মারা যাওয়ার পর তার বাবা দ্বিতীয় বিয়ে করেন। সৎমা প্রায় সময় তাকে নানাভাবে অত্যাচার করত এবং খাবারেও কষ্ট দিত। সৎমায়ের অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে সে ডিশের তার দিয়ে ফাঁসিতে আত্মহত্যা করে।

মডেল থানার ওসি মাহমুদুল ইসলাম জানান, লাশ মর্গে পাঠানো হয়েছে। আত্মহত্যা প্ররোচনায় একটি মামলা হয়েছে, যার মামলা নং৩৪, তাং ২৫.০৭.২০২১ইং। নিহতের সৎমাকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

সৎমায়ের অত্যাচার সইতে না পেরে প্রাণ দিল কিশোর

 ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি 
২৫ জুলাই ২০২১, ০৩:০৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আত্মহত্যা
ফাইল ছবি

ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলায় সৎমায়ের অত্যাচার সইতে না পেরে মহিবুল্লাহ (১৬) নামে এক কিশোর আত্মহত্যা করেছে।

শনিবার সন্ধ্যায় উপজেলার হবিরবাড়ি ইউনিয়নের সিডস্টোর বাজার এলাকার একটি মাদ্রাসা থেকে ওই কিশোরের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত কিশোর মহিবুল্লাহ ওই ইউনিয়নের ঝালপাজা গ্রামের মনু মিয়ার ছেলে।

এ ঘটনায় রোববার মহিবুল্লাহর মামা মজিবুর রহমান বাদী হয়ে আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগ এনে থানায় একটি মামলা করেছেন। এ ঘটনায় মহিবুল্লাহর সৎমাকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। ঘটনাটি নিশ্চিত করেছেন ভালুকা মডেল থানার ওসি মাহমুদুল ইসলাম।

মহিবুল্লাহর বাবা মনু মিয়া বলেন, মায়ের দেওয়া বাড়ির ভিটার জমি বিক্রির টাকা না পেয়ে কয়েক দিন ধরে হতাশায় ভুগছিল। এ ছাড়া আমি বেশিরভাগ সময় বাড়ির বাইরে থাকি।

মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক মাওলানা নিসার উদ্দিন জামিল জানান, মাদ্রাসা বন্ধ থাকায় আমরা সবাই ছুটিতে বাড়িতে চলে যাই। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসলাম।

ভালুকা মডেল থানার ওসি (তদন্ত) শফিকুল ইসলাম জানান, ছেলেটির মা মারা যাওয়ার পর তার বাবা দ্বিতীয় বিয়ে করেন। সৎমা প্রায় সময় তাকে নানাভাবে অত্যাচার করত এবং খাবারেও কষ্ট দিত। সৎমায়ের অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে সে ডিশের তার দিয়ে ফাঁসিতে আত্মহত্যা করে।

মডেল থানার ওসি মাহমুদুল ইসলাম জানান, লাশ মর্গে পাঠানো হয়েছে। আত্মহত্যা প্ররোচনায় একটি মামলা হয়েছে, যার  মামলা নং৩৪, তাং ২৫.০৭.২০২১ইং। নিহতের সৎমাকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন