ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় করোনা পরীক্ষায় উপচেপড়া ভিড়, সক্রিয় দালালরা
jugantor
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় করোনা পরীক্ষায় উপচেপড়া ভিড়, সক্রিয় দালালরা

  যুগান্তর প্রতিবেদন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া  

২৫ জুলাই ২০২১, ২২:১৬:২৫  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনার প্রকোপ বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় করোনা টেস্টের প্রতিও আগ্রহ বাড়ছে সাধারণ মানুষের। বিভিন্ন কেন্দ্রে উপচেপড়া ভিড়। এতে দালাল চক্র সক্রিয় হয়ে উঠেছে।

করোনা পরীক্ষার জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতাল ছাড়াও সব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সগুলোতে নমুনা সংগ্রহ করা হচ্ছে।

স্যাম্পল সংগ্রহের জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদরের এই হাসপাতালের বিএমএ ভবনের ফ্লু কর্নারের সামনে সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে প্রতিদিন বিপুল সংখ্যক মানুষ ভিড় করছেন।

প্রথম দিক মানুষের তেমন আগ্রহ না থাকলেও এখন প্রতিদিন নমুনা দিতে ২ শতাধিক মানুষ আসছে। স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষা করে গাদাগাদি করে দীর্ঘ সময় দাঁড়িয়ে অপেক্ষা করেও অনেকে নমুনা দিতে না পেরে ফিরে যাচ্ছেন।

এ সুযোগকে কাজে লাগিয়ে তৎপর হয়ে উঠেছে এক শ্রেণীর দালাল চক্র।

নমুনা দিতে আসা লোকজন জানান, স্বাস্থ্যকর্মীদের সহযোগিতায় দালাল চক্রটি সিরিয়াল পাইয়ে দেয়ার নাম করে প্রতিজনের কাছ থেকে অতিরিক্ত অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. মোহাম্মদ ওয়াহিদুজ্জামান বলেন, এখানে প্রতিদিনই এখানে ভিড় বাড়ছে। আকস্মিকভাবে চাপ বেড়ে যাওয়ায় হিমশিম খেতে হচ্ছে। স্যাম্পল সংগ্রহে সরকার নির্ধারিত ফির বাইরে অতিরিক্ত টাকা নেয়া হয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হবে।

প্রসঙ্গত, জেলায় এখন পর্যন্ত ৬ হাজার ২৬৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে এবং মৃত্যু হয়েছে ৮৬ জনের।

উল্লেখ্য, প্রতিদিন জেলায় প্রায় দেড়শ মানুষের নমুনা সংগ্রহ করা হচ্ছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় করোনা পরীক্ষায় উপচেপড়া ভিড়, সক্রিয় দালালরা

 যুগান্তর প্রতিবেদন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া 
২৫ জুলাই ২০২১, ১০:১৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

করোনার প্রকোপ বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় করোনা টেস্টের প্রতিও আগ্রহ বাড়ছে সাধারণ মানুষের। বিভিন্ন কেন্দ্রে উপচেপড়া ভিড়। এতে দালাল চক্র সক্রিয় হয়ে উঠেছে।

করোনা পরীক্ষার জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতাল ছাড়াও সব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সগুলোতে নমুনা সংগ্রহ করা হচ্ছে।

স্যাম্পল সংগ্রহের জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদরের এই হাসপাতালের বিএমএ ভবনের ফ্লু কর্নারের সামনে সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে প্রতিদিন বিপুল সংখ্যক মানুষ ভিড় করছেন। 

প্রথম দিক মানুষের তেমন আগ্রহ না থাকলেও এখন প্রতিদিন নমুনা দিতে ২ শতাধিক মানুষ আসছে। স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষা করে গাদাগাদি করে দীর্ঘ সময় দাঁড়িয়ে অপেক্ষা করেও অনেকে নমুনা দিতে না পেরে ফিরে যাচ্ছেন।

এ সুযোগকে কাজে লাগিয়ে তৎপর হয়ে উঠেছে এক শ্রেণীর দালাল চক্র।

নমুনা দিতে আসা লোকজন জানান, স্বাস্থ্যকর্মীদের সহযোগিতায় দালাল চক্রটি সিরিয়াল পাইয়ে দেয়ার নাম করে প্রতিজনের কাছ থেকে অতিরিক্ত অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. মোহাম্মদ ওয়াহিদুজ্জামান বলেন, এখানে প্রতিদিনই এখানে ভিড় বাড়ছে। আকস্মিকভাবে চাপ বেড়ে যাওয়ায় হিমশিম খেতে হচ্ছে। স্যাম্পল সংগ্রহে সরকার নির্ধারিত ফির বাইরে অতিরিক্ত টাকা নেয়া হয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হবে।
 
প্রসঙ্গত, জেলায় এখন পর্যন্ত ৬ হাজার ২৬৯ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে এবং মৃত্যু হয়েছে ৮৬ জনের।

উল্লেখ্য, প্রতিদিন জেলায় প্রায় দেড়শ মানুষের নমুনা সংগ্রহ করা হচ্ছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন