ভিন্নধর্মী অ্যাসাইনমেন্ট পেল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা
jugantor
ভিন্নধর্মী অ্যাসাইনমেন্ট পেল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা

  বরিশাল ব্যুরো  

২৬ জুলাই ২০২১, ২২:২৩:০৩  |  অনলাইন সংস্করণ

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থীদের অ্যাকাডেমিক অ্যাসাইনমেন্ট হিসেবে অন্তত দুইজন ব্যক্তিকে করোনার টিকা গ্রহণে উদ্বুদ্ধ করতে হবে।

এছাড়া টিকা নিবন্ধন প্রক্রিয়া সম্পর্কে যারা জানেনা এমন ব্যক্তিদের সার্বিক সহযোগিতা প্রদানের মতো নন-ক্রেডিট অ্যাসাইনমেন্ট দিয়েছেন বিভাগটির শিক্ষক শফিকুল ইসলাম সবুজ। সোমবার ক্লাস চলাকালে শিক্ষার্থীদের তিনি এমন অ্যাসাইনমেন্টের কথা জানান তিনি।

শিক্ষক শফিকুল ইসলাম ফেসবুকে এ সংক্রান্ত একটি স্টাটাস দিয়ে জানান, শিক্ষার্থীদের কাজ হলো তাদের আশপাশের যারা টিকা সম্পর্কে জানে না এবং টিকার জন্য যোগ্য কিন্তু নিবন্ধন প্রক্রিয়া সম্পর্কে অবগত নন এমন দুজনকে টিকা গ্রহণে সার্বিক সহযোগিতা করা। শিক্ষার্থীরা তাদের উদ্বুদ্ধকরণের পাশাপাশি নিবন্ধনে সহায়তাসহ টিকা গ্রহণের সার্বিক কাজে তদারকি করবে। যা শিক্ষার্থীদের নন-ক্রেডিট অ্যাসাইনমেন্ট হিসেবে গ্রহণ করা হবে।

বিভাগটির ২০১৬-১৭ সেশনের শিক্ষার্থী হিরক বিশ্বাস বলেন, করোনাকালে নিজ বাড়িতে থেকেই অনলাইনে শিক্ষা কার্যক্রমে যুক্ত হতে হচ্ছে। বাড়ির আশেপাশে অনেকেই আছেন যারা টিকার গুরুত্ব সম্পর্কে সবকিছু জানেন না। আমাদের কাজ হবে এমন মানুষদের টিকা সম্পর্কে সঠিক ধারণা প্রদান করে তাদের টিকার আওতায় নিয়ে আসা।

ইংরেজি বিভাগের শিক্ষক শফিকুল ইসলাম সবুজ জানান, করোনা পরিস্থিতি থেকে উত্তরণে টিকা গ্রহণে আপাতত কোন বিকল্প নেই। তবে টিকার নিবন্ধন প্রক্রিয়া নতুন হওয়ায় যারা প্রযুক্তিগতভাবে একটু পেছানো তারা এ প্রক্রিয়ায় অংশ নিতে গিয়ে জটিলতায় পড়েন। তাই সামাজিক দায়বদ্ধতার জায়গা থেকে আমাদের শিক্ষার্থীরা অন্তত দুইজনকে টিকা কার্যক্রমে সহায়তা করে জনসচেনতনা সৃষ্টিতে কাজ করবে।

ভিন্নধর্মী অ্যাসাইনমেন্ট পেল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা

 বরিশাল ব্যুরো 
২৬ জুলাই ২০২১, ১০:২৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থীদের অ্যাকাডেমিক অ্যাসাইনমেন্ট হিসেবে অন্তত দুইজন ব্যক্তিকে করোনার টিকা গ্রহণে উদ্বুদ্ধ করতে হবে। 

এছাড়া টিকা নিবন্ধন প্রক্রিয়া সম্পর্কে যারা জানেনা এমন ব্যক্তিদের সার্বিক সহযোগিতা প্রদানের মতো নন-ক্রেডিট অ্যাসাইনমেন্ট দিয়েছেন বিভাগটির শিক্ষক শফিকুল ইসলাম সবুজ। সোমবার ক্লাস চলাকালে শিক্ষার্থীদের তিনি এমন অ্যাসাইনমেন্টের কথা জানান তিনি।

শিক্ষক শফিকুল ইসলাম ফেসবুকে এ সংক্রান্ত একটি স্টাটাস দিয়ে জানান, শিক্ষার্থীদের কাজ হলো তাদের আশপাশের যারা টিকা সম্পর্কে জানে না এবং টিকার জন্য যোগ্য কিন্তু নিবন্ধন প্রক্রিয়া সম্পর্কে অবগত নন এমন দুজনকে টিকা গ্রহণে সার্বিক সহযোগিতা করা। শিক্ষার্থীরা তাদের উদ্বুদ্ধকরণের পাশাপাশি নিবন্ধনে সহায়তাসহ টিকা গ্রহণের সার্বিক কাজে তদারকি করবে। যা শিক্ষার্থীদের নন-ক্রেডিট অ্যাসাইনমেন্ট হিসেবে গ্রহণ করা হবে।

বিভাগটির ২০১৬-১৭ সেশনের শিক্ষার্থী হিরক বিশ্বাস বলেন, করোনাকালে নিজ বাড়িতে থেকেই অনলাইনে শিক্ষা কার্যক্রমে যুক্ত হতে হচ্ছে। বাড়ির আশেপাশে অনেকেই আছেন যারা টিকার গুরুত্ব সম্পর্কে সবকিছু জানেন না। আমাদের কাজ হবে এমন মানুষদের টিকা সম্পর্কে সঠিক ধারণা প্রদান করে তাদের টিকার আওতায় নিয়ে আসা।

ইংরেজি বিভাগের শিক্ষক শফিকুল ইসলাম সবুজ জানান, করোনা পরিস্থিতি থেকে উত্তরণে টিকা গ্রহণে আপাতত কোন বিকল্প নেই। তবে টিকার নিবন্ধন প্রক্রিয়া নতুন হওয়ায় যারা প্রযুক্তিগতভাবে একটু পেছানো তারা এ প্রক্রিয়ায় অংশ নিতে গিয়ে জটিলতায় পড়েন। তাই সামাজিক দায়বদ্ধতার জায়গা থেকে আমাদের শিক্ষার্থীরা অন্তত দুইজনকে টিকা কার্যক্রমে সহায়তা করে জনসচেনতনা সৃষ্টিতে কাজ করবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন