বিয়েবাড়িতে খাবার রেখেই পালালেন বর
jugantor
বিয়েবাড়িতে খাবার রেখেই পালালেন বর

  নেত্রকোনা প্রতিনিধি  

২৭ জুলাই ২০২১, ১০:১৭:৪১  |  অনলাইন সংস্করণ

বিয়েবাড়িতে খাবার রেখেই পালালেন বর

নেত্রকোনার দুর্গাপুরে বিধিনিষেধ অমান্য করে বিয়ের আয়োজন করায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চালিয়ে জরিমানা করা হয়েছে।

উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে সোমবার দুপুর থেকে বিকাল পর্যন্ত করোনা বিষয়ে জনসচেতনতামূলক প্রচারণা ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে অভিযান চালালে এ ঘটনা ঘটে।

এর আগে উপজেলা শহরের কয়েকটি দোকান খোলা রাখার দায়ে জরিমানা আদায় করা হয়েছে।

জানা যায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পেয়ে পৌর শহরের চরমোক্তারপাড়া এলাকায় শহিদুল ইসলামের বাড়িতে বিয়ের আয়োজনের সংবাদ পেয়ে অভিযান চালান প্রশাসনের কর্মকর্তারা। সেখানে শহিদুল ইসলামের মেয়ের বিয়ের অনুষ্ঠান চলছিল। এ সময় প্রশাসনের উপস্থিতি টের পেয়ে টেবিলে খাবার রেখেই পালিয়ে যান বরযাত্রী ও অতিথিরা।

করোনার মধ্যে সরকারের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে বিয়ের অনুষ্ঠান করায় পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ ছাড়া শহরে কয়েকটি দোকান খোলা রাখায় জরিমানা করা হয়।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ রাজিব-উল-আহসান। এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা একাডেমিক সুপারভাইজার মুহাম্মদ নাসির উদ্দিন প্রমুখ।

সরকার ঘোষিত লকডাউনে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাজিব-উল আহসান।

বিয়েবাড়িতে খাবার রেখেই পালালেন বর

 নেত্রকোনা প্রতিনিধি 
২৭ জুলাই ২০২১, ১০:১৭ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
বিয়েবাড়িতে খাবার রেখেই পালালেন বর
ছবি: যুগান্তর

নেত্রকোনার দুর্গাপুরে বিধিনিষেধ অমান্য করে বিয়ের আয়োজন করায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চালিয়ে জরিমানা করা হয়েছে।

উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে সোমবার দুপুর থেকে বিকাল পর্যন্ত করোনা বিষয়ে জনসচেতনতামূলক প্রচারণা ও ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে অভিযান চালালে এ ঘটনা ঘটে।

এর আগে উপজেলা শহরের কয়েকটি দোকান খোলা রাখার দায়ে জরিমানা আদায় করা হয়েছে।

জানা যায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পেয়ে পৌর শহরের চরমোক্তারপাড়া এলাকায় শহিদুল ইসলামের বাড়িতে বিয়ের আয়োজনের সংবাদ পেয়ে অভিযান চালান প্রশাসনের কর্মকর্তারা। সেখানে শহিদুল ইসলামের মেয়ের বিয়ের অনুষ্ঠান চলছিল। এ সময় প্রশাসনের উপস্থিতি টের পেয়ে টেবিলে খাবার রেখেই পালিয়ে যান বরযাত্রী ও অতিথিরা।

করোনার মধ্যে সরকারের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে বিয়ের অনুষ্ঠান করায় পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ ছাড়া শহরে কয়েকটি দোকান খোলা রাখায় জরিমানা করা হয়।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ রাজিব-উল-আহসান। এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা একাডেমিক সুপারভাইজার মুহাম্মদ নাসির উদ্দিন প্রমুখ।

সরকার ঘোষিত লকডাউনে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাজিব-উল আহসান।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন