পিরোজপুরে নালায় মিলল গৃহবধূর ভাসমান লাশ
jugantor
পিরোজপুরে নালায় মিলল গৃহবধূর ভাসমান লাশ

  নাজিরপুর (পিরোজপুর) প্রতিনিধি  

২৭ জুলাই ২০২১, ১১:৫০:৪৭  |  অনলাইন সংস্করণ

লাশ উদ্ধার

পিরোজপুরের নাজিরপুর উপজেলায় নালা থেকে মিনারা বেগম (৫০) নামে এক গৃহবধূর ভাসমান লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

সোমবার রাত ২টার দিকে ওই গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করা হয়।

নিহত গৃহবধূ উপজেলার দেউলবাড়ি দোবড়া ইউনিয়নের দেউলবাড়ি গ্রামের সবজি চাষি মো. নুরুল ইসলাম বেপারির স্ত্রী।

ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাস্টার মো. অলিউল্লাহ জানান, গৃহবধূর মরদেহ সোমবার সন্ধ্যায় বাড়িসংলগ্ন সবজি বাগানের পাশের নালায় ভাসতে দেখে তার স্বজনরা উদ্ধার করে থানা পুলিশে খবর দেন।

ওই গৃহবধূর স্বামী জানান, সোমবার সকালে তিনি বিভিন্ন ধরনের সবজির চারা বিক্রি করতে তার ছেলে মো. এমরানকে (১০) নিয়ে পার্শ্ববর্তী বাগেরহাট জেলার চিতলমারী উপজেলার শৈলদাহবাজারে যান।

সন্ধ্যায় বাড়ি ফিরে স্ত্রীর মৃত্যুর খবর জানতে পারেন।

তিনি আরও জানান, তার স্ত্রীকে বাড়ির লোকজন দুপুর থেকে পাচ্ছিলেন না। তাই তারা অনেক খোঁজাখুঁজির পর বাড়ি থেকে একটু দূরে একটি সবজি ক্ষেতের পাশের নালায় ভাসতে দেখে লাশ উদ্ধার করেন ছোটভাই নুরুল হক বেপারি ও চাচাতো ভাই হায়দার বেপারি।

নাজিরপুর থানার ওসি মো. আশ্রাফুজ্জামান জানান, নিহত ওই গৃহবধূর মাথার পেছনে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। লাশ ময়নাতদন্তের পর মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।

তবে ধারণা করা হচ্ছে— ওই গৃহবধূ দুপুরে ছোট নৌকায় করে শ্যাওলাসংগ্রহ করতে গিয়েছিলেন। নৌকা থেকে পা পিছলে আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে পানিতে পড়ে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে মারা যেতে পারেন।

পিরোজপুরে নালায় মিলল গৃহবধূর ভাসমান লাশ

 নাজিরপুর (পিরোজপুর) প্রতিনিধি 
২৭ জুলাই ২০২১, ১১:৫০ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
লাশ উদ্ধার
ফাইল ছবি

পিরোজপুরের নাজিরপুর উপজেলায় নালা থেকে মিনারা বেগম (৫০) নামে এক গৃহবধূর ভাসমান লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

সোমবার রাত ২টার দিকে ওই গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করা হয়।

নিহত গৃহবধূ উপজেলার দেউলবাড়ি দোবড়া ইউনিয়নের দেউলবাড়ি গ্রামের সবজি চাষি মো. নুরুল ইসলাম বেপারির স্ত্রী।  

ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাস্টার মো. অলিউল্লাহ জানান, গৃহবধূর মরদেহ সোমবার সন্ধ্যায় বাড়িসংলগ্ন সবজি বাগানের পাশের নালায় ভাসতে দেখে তার স্বজনরা উদ্ধার করে থানা পুলিশে খবর দেন।

ওই গৃহবধূর স্বামী জানান, সোমবার সকালে তিনি বিভিন্ন ধরনের সবজির চারা বিক্রি করতে তার ছেলে মো. এমরানকে (১০) নিয়ে পার্শ্ববর্তী বাগেরহাট জেলার চিতলমারী উপজেলার শৈলদাহবাজারে যান।

সন্ধ্যায় বাড়ি ফিরে স্ত্রীর মৃত্যুর খবর জানতে পারেন।

তিনি আরও জানান, তার স্ত্রীকে বাড়ির লোকজন দুপুর থেকে পাচ্ছিলেন না। তাই তারা অনেক খোঁজাখুঁজির পর বাড়ি থেকে একটু দূরে একটি সবজি ক্ষেতের পাশের নালায় ভাসতে দেখে লাশ উদ্ধার করেন ছোটভাই নুরুল হক বেপারি ও চাচাতো ভাই হায়দার বেপারি।

নাজিরপুর থানার ওসি মো. আশ্রাফুজ্জামান জানান, নিহত ওই গৃহবধূর মাথার পেছনে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। লাশ ময়নাতদন্তের পর মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।

তবে ধারণা করা হচ্ছে— ওই গৃহবধূ দুপুরে ছোট নৌকায় করে শ্যাওলাসংগ্রহ করতে গিয়েছিলেন। নৌকা থেকে পা পিছলে আঘাতপ্রাপ্ত হয়ে পানিতে পড়ে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে মারা যেতে পারেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন