সেই বৃদ্ধা মা-বোনের বাড়িতে চাটমোহর থানার ওসি 
jugantor
সেই বৃদ্ধা মা-বোনের বাড়িতে চাটমোহর থানার ওসি 

  চাটমোহর (পাবনা) প্রতিনিধি  

২৭ জুলাই ২০২১, ২২:২১:০৯  |  অনলাইন সংস্করণ

বৃদ্ধা খইরন খাতুনের বাড়িতে হাজির হয়েছেন চাটমোহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহম্মদ আনোয়ার হোসেন।

যুগান্তরে সংবাদ প্রকাশের পর চাটমোহর উপজেলার বোঁথর উত্তরপাড়া গ্রামের মানবেতর জীবনযাপনকারী সেই বৃদ্ধা খইরন খাতুনের বাড়িতে হাজির হয়েছেন চাটমোহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহম্মদ আনোয়ার হোসেন।

ভবিষ্যতে বৃদ্ধ মা ও মানসিক প্রতিবন্ধী বোনের প্রতি অবহেলা করলে সরকারি চাকরিজীবী একমাত্র ছেলেকে সতর্ক করে দেন তিনি। এ সময় ওই বাড়িতে আবেগঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়। উপস্থিত অনেকেই কেঁদে ফেলেন।

নিজের ভুল বুঝতে পেরে খইরন খাতুন এবং ওসি মুহম্মদ আনোয়ার হোসেনের কাছে ক্ষমা চান একমাত্র ছেলে এবং পাবনা জেলা সেটেলমেন্ট অফিসের হিসাব সহকারী খলিলুর রহমান। তিনি বলেন, এখন থেকে পাকা ভবনেই বৃদ্ধ মা এবং মানসিক প্রতিবন্ধী বোন বসবাস করবেন। এছাড়া নিজে মা-বোনের দেখশোনা করবেন বলে ওসিকে প্রতিশ্রুতি দেন তিনি।

এর আগে সোমবার যুগান্তর অনলাইনে বৃদ্ধা খইরন খাতুন এবং তার মেয়ে মানসিক প্রতিবন্ধী লিলি খাতুনকে নিয়ে ‘সরকারি চাকুরে ছেলের পাকা ঘরে ঠাঁই হয়নি বৃদ্ধা মা-প্রতিবন্ধী বোনের’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হয়।

চাটমোহর থানার ওসি মুহম্মদ আনোয়ার হোসেনের বিষয়টি দৃষ্টিগোচর হলে নিজ উদ্যোগে তিনি খইরন খাতুনের বাড়িতে যান।

ওসি মুহম্মদ আনোয়ার হোসেন যুগান্তরকে বলেন, বিষয়টি অত্যন্ত অমানবিক। আমার মা কিছুদিন আগে মারা গেছেন। আমি বুঝি মা হারানোর কষ্ট। প্রতিটি সন্তানের জন্যই তার মা-বাবা সম্পদ। অথচ একমাত্র ছেলে তার মা ও মানসিক প্রতিবন্ধী বোনের সঙ্গে এমন অমানবিক আচরণ করতে পারে!

তিনি আরও বলেন, সংবাদটি দেখে খুব কষ্ট লেগেছে। মৌখিকভাবে খলিলুর রহমানকে সতর্ক করা হয়েছে।

সেই বৃদ্ধা মা-বোনের বাড়িতে চাটমোহর থানার ওসি 

 চাটমোহর (পাবনা) প্রতিনিধি 
২৭ জুলাই ২০২১, ১০:২১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
বৃদ্ধা খইরন খাতুনের বাড়িতে হাজির হয়েছেন চাটমোহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহম্মদ আনোয়ার হোসেন।
বৃদ্ধা খইরন খাতুনের বাড়িতে হাজির হন চাটমোহর থানার ওসি মুহম্মদ আনোয়ার হোসেন। ছবি: যুগান্তর

যুগান্তরে সংবাদ প্রকাশের পর চাটমোহর উপজেলার বোঁথর উত্তরপাড়া গ্রামের মানবেতর জীবনযাপনকারী সেই বৃদ্ধা খইরন খাতুনের বাড়িতে হাজির হয়েছেন চাটমোহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহম্মদ আনোয়ার হোসেন। 

ভবিষ্যতে বৃদ্ধ মা ও মানসিক প্রতিবন্ধী বোনের প্রতি অবহেলা করলে সরকারি চাকরিজীবী একমাত্র ছেলেকে সতর্ক করে দেন তিনি। এ সময় ওই বাড়িতে আবেগঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়। উপস্থিত অনেকেই কেঁদে ফেলেন।

নিজের ভুল বুঝতে পেরে খইরন খাতুন এবং ওসি মুহম্মদ আনোয়ার হোসেনের কাছে ক্ষমা চান একমাত্র ছেলে এবং পাবনা জেলা সেটেলমেন্ট অফিসের হিসাব সহকারী খলিলুর রহমান। তিনি বলেন, এখন থেকে পাকা ভবনেই বৃদ্ধ মা এবং মানসিক প্রতিবন্ধী বোন বসবাস করবেন। এছাড়া নিজে মা-বোনের দেখশোনা করবেন বলে ওসিকে প্রতিশ্রুতি দেন তিনি। 

এর আগে সোমবার যুগান্তর অনলাইনে বৃদ্ধা খইরন খাতুন এবং তার মেয়ে মানসিক প্রতিবন্ধী লিলি খাতুনকে নিয়ে ‘সরকারি চাকুরে ছেলের পাকা ঘরে ঠাঁই হয়নি বৃদ্ধা মা-প্রতিবন্ধী বোনের’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হয়। 

চাটমোহর থানার ওসি মুহম্মদ আনোয়ার হোসেনের বিষয়টি দৃষ্টিগোচর হলে নিজ উদ্যোগে তিনি খইরন খাতুনের বাড়িতে যান।

ওসি মুহম্মদ আনোয়ার হোসেন যুগান্তরকে বলেন, বিষয়টি অত্যন্ত অমানবিক। আমার মা কিছুদিন আগে মারা গেছেন। আমি বুঝি মা হারানোর কষ্ট। প্রতিটি সন্তানের জন্যই তার মা-বাবা সম্পদ। অথচ একমাত্র ছেলে তার মা ও মানসিক প্রতিবন্ধী বোনের সঙ্গে এমন অমানবিক আচরণ করতে পারে! 

তিনি আরও বলেন, সংবাদটি দেখে খুব কষ্ট লেগেছে। মৌখিকভাবে খলিলুর রহমানকে সতর্ক করা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন