পদ্মার এক পাঙ্গাশেই ৩৭৭০০ টাকা
jugantor
পদ্মার এক পাঙ্গাশেই ৩৭৭০০ টাকা

  গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি  

২৮ জুলাই ২০২১, ২২:৫৬:০৬  |  অনলাইন সংস্করণ

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে পদ্মা-যমুনা নদীর মোহনায় ২৬ কেজি ওজনের এক বিশাল পাঙ্গাশ মাছ ধরা পড়ে। মঙ্গলবার মধ্যরাতে জেলে পরান হালদারের জালে মাছটি ধরা পড়ে। তার বাড়ি মানিকগঞ্জের জাফরগঞ্জ এলাকায়।

সকাল সাড়ে ৭টার দিকে মাছটি বিক্রির উদ্দেশ্যে দৌলতদিয়া বাইপাস সড়কের পাশে অবস্থিত দুলাল চালাকের আড়তে আনা হয়। সেখানে উন্মুক্ত নিলামের মাধ্যমে দৌলতদিয়া ফেরিঘাটের মৎস্য ব্যবসায়ী মো. লালচাঁদ খান, মো. মাসুদ মোল্লা ও মো. মজিবর খান যৌথভাবে ১ হাজার ৪৫০ টাকা কেজি দরে ৩৭ হাজার ৭০০ টাকা দিয়ে কিনে নেন।

এ প্রসঙ্গে ব্যবসায়ী লালচাঁদ খান বলেন, পদ্মা নদীর পাঙ্গাশ মাছের প্রচুর চাহিদা থাকায় এর দামও বেশ চড়া। মাছটি তারা ঢাকার এক ব্যবসায়ীর কাছে দেড় হাজার টাকা কেজি দরে ৩৯ হাজার টাকায় বিক্রি করেছেন।

এ প্রসঙ্গে গোয়ালন্দ উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. রেজাউল শরীফ জানান, এখন বর্ষা মৌসুম। এ মৌসুমে পদ্মা নদীতে বড় বড় বাঘাইড়, চিতল, বোয়াল, কাতল, রুই, পাঙ্গাসসহ বিভিন্ন প্রজাতির মিঠা পানির সুস্বাদু মাছ পাওয়া যাচ্ছে। এতে জেলেরা বেশ খুশি। তবে বড় মাছগুলো নদীতে সংরক্ষণ করা গেলে নদীতে মাছের আরও বেশি বংশ বিস্তার হতো।

পদ্মার এক পাঙ্গাশেই ৩৭৭০০ টাকা

 গোয়ালন্দ (রাজবাড়ী) প্রতিনিধি 
২৮ জুলাই ২০২১, ১০:৫৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দে পদ্মা-যমুনা নদীর মোহনায় ২৬ কেজি ওজনের এক বিশাল পাঙ্গাশ মাছ ধরা পড়ে। মঙ্গলবার মধ্যরাতে জেলে পরান হালদারের জালে মাছটি ধরা পড়ে। তার বাড়ি মানিকগঞ্জের জাফরগঞ্জ এলাকায়। 

সকাল সাড়ে ৭টার দিকে মাছটি বিক্রির উদ্দেশ্যে দৌলতদিয়া বাইপাস সড়কের পাশে অবস্থিত দুলাল চালাকের আড়তে আনা হয়। সেখানে উন্মুক্ত নিলামের মাধ্যমে দৌলতদিয়া ফেরিঘাটের মৎস্য ব্যবসায়ী মো. লালচাঁদ খান, মো. মাসুদ মোল্লা ও মো. মজিবর খান যৌথভাবে  ১ হাজার ৪৫০ টাকা কেজি দরে ৩৭ হাজার ৭০০ টাকা দিয়ে কিনে নেন।

এ প্রসঙ্গে ব্যবসায়ী  লালচাঁদ খান বলেন, পদ্মা নদীর পাঙ্গাশ মাছের প্রচুর চাহিদা থাকায় এর দামও বেশ চড়া। মাছটি তারা ঢাকার এক ব্যবসায়ীর কাছে দেড় হাজার টাকা কেজি দরে ৩৯ হাজার টাকায় বিক্রি করেছেন।

এ প্রসঙ্গে গোয়ালন্দ উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. রেজাউল শরীফ জানান, এখন বর্ষা মৌসুম। এ মৌসুমে পদ্মা নদীতে  বড় বড় বাঘাইড়, চিতল, বোয়াল, কাতল, রুই, পাঙ্গাসসহ বিভিন্ন প্রজাতির মিঠা পানির সুস্বাদু মাছ পাওয়া যাচ্ছে। এতে জেলেরা বেশ খুশি। তবে বড় মাছগুলো নদীতে সংরক্ষণ করা গেলে নদীতে মাছের আরও বেশি বংশ বিস্তার হতো।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন