জরিমানা গুনতে হলো নোয়াখালীর নারী মেম্বরকে
jugantor
জরিমানা গুনতে হলো নোয়াখালীর নারী মেম্বরকে

  নোয়াখালী প্রতিনিধি  

২৯ জুলাই ২০২১, ১৮:১৬:০৪  |  অনলাইন সংস্করণ

নোয়াখালীর সদরে কঠোর লকডাউনে স্বাস্থ্যবিধির তোয়াক্কা না করে ছেলের বিয়ের আয়োজন করায় এক নারী ইউপি সদস্যকে (মেম্বার) অর্থদণ্ড করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বুধবার দুপুর ২টার দিকে উপজেলার ৯নং কালাদরাপ ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডের কালাদরাপ গ্রামের রৌশন মেম্বারের বাড়িতে এ ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফাতিমা সুলতানা।

বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফাতিমা সুলতানা বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা যায়, কালাদরাপ ইউনিয়নের ১, ২, ৩ নম্বর ওয়ার্ডের সংরক্ষিত নারী ইউপি সদস্য রৌশন আক্তার। তার ছেলে তারেক হোসেন রাব্বি (২৩) ঢাকায় চাকরি করেন। এ কঠোর লকডাউন উপেক্ষা করে নিজের পাশের বাড়িতে ছেলের বিয়ের আয়োজন করেন মা।

খবর পেয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত বরের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে বরের মা নারী ইউপি সদস্য রৌশন আক্তারকে ২০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড করেন এবং মুচলেকা নেন। এ সময় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনায় সহযোগিতা করেন সুধারাম থানা পুলিশ।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফাতিমা সুলতানা বলেন, সরকারি বিধিনিষেধ অমান্য করে বিয়ের আয়োজন করায় ২০১৮ সালের সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল) আইন অনুযায়ী অর্থদণ্ড করা হয়েছে।

লকডাউন চলাকালে সবাইকে অবশ্যই সরকারি বিধিনিষেধ মানতে হবে। কেউ বিধিনিষেধ অমান্য করলেই তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জরিমানা গুনতে হলো নোয়াখালীর নারী মেম্বরকে

 নোয়াখালী প্রতিনিধি 
২৯ জুলাই ২০২১, ০৬:১৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নোয়াখালীর সদরে কঠোর লকডাউনে স্বাস্থ্যবিধির তোয়াক্কা না করে ছেলের বিয়ের আয়োজন করায় এক নারী ইউপি সদস্যকে (মেম্বার) অর্থদণ্ড করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বুধবার দুপুর ২টার দিকে উপজেলার ৯নং কালাদরাপ ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডের কালাদরাপ গ্রামের রৌশন মেম্বারের বাড়িতে এ ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফাতিমা সুলতানা।

বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফাতিমা সুলতানা বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা যায়, কালাদরাপ ইউনিয়নের ১, ২, ৩ নম্বর ওয়ার্ডের সংরক্ষিত নারী ইউপি সদস্য রৌশন আক্তার। তার ছেলে তারেক হোসেন রাব্বি (২৩) ঢাকায় চাকরি করেন। এ কঠোর লকডাউন উপেক্ষা করে নিজের পাশের বাড়িতে ছেলের বিয়ের আয়োজন করেন মা।

খবর পেয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত বরের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে বরের মা নারী ইউপি সদস্য রৌশন আক্তারকে ২০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড করেন এবং মুচলেকা নেন। এ সময় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনায় সহযোগিতা করেন সুধারাম থানা পুলিশ।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফাতিমা সুলতানা বলেন, সরকারি বিধিনিষেধ অমান্য করে বিয়ের আয়োজন করায় ২০১৮ সালের সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল) আইন অনুযায়ী অর্থদণ্ড করা হয়েছে। 

লকডাউন চলাকালে সবাইকে অবশ্যই সরকারি বিধিনিষেধ মানতে হবে। কেউ বিধিনিষেধ অমান্য করলেই তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন