ট্রাকচাপায় পিষ্ট হয়ে প্রবাসীর স্ত্রী নিহত, বেঁচে গেল কোলে থাকা শিশু
jugantor
ট্রাকচাপায় পিষ্ট হয়ে প্রবাসীর স্ত্রী নিহত, বেঁচে গেল কোলে থাকা শিশু

  মহম্মদপুর (মাগুরা) প্রতিনিধি  

৩০ জুলাই ২০২১, ১৫:৫৪:৪০  |  অনলাইন সংস্করণ

ট্রাকচাপায় পিষ্ট হয়ে প্রবাসীর স্ত্রী নিহত, বেঁচে গেল কোলে থাকা শিশু

মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলায় খাদিজা বেগম (২২) নামে এক ইরাক প্রবাসীর স্ত্রী ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলে নিহত হন। এ সময় প্রাণে বেঁচে যায় নিহতের কোলে থাকা ৬ বছরের কন্যাশিশু মিম।

বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার রাহাতপুর সুইচগেটসংলগ্ন নহাটা-রাজাপুর সড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত খাদিজা রাজাপুর ইউনিয়নের রাহাতপুর গ্রামের ইরাক প্রবাসী স্বাধীন মল্লিকের স্ত্রী।

এ ঘটনায় চালক ও হেলপার পলাতক রয়েছেন। ঘাতক ট্রাকটি জব্দ করেছে মহম্মদপুর থানা পুলিশ।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্বাধীনের বড় ভাই মো. জামাল মল্লিক জানান, নিহত খাদিজা তার মেয়েকে নিয়ে নহাটাবাজারে ডাক্তারের পরামর্শ নিতে যান। সেখান থেকে খাদিজার স্বজন আকবর সরদারের মোটরসাইকেলে বাড়ি ফিরছিলেন তিনি।

এ সময় রাজাপুরের রাহাতপুর সুইসগেটসংলগ্ন এলাকায় পৌঁছলে বৃষ্টিতে ভেজা রাস্তায় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাক সাইড দিতে গেলে মোটরসাইকেল স্লিপ করে। এতে পেছনে বসে থাকা খাদিজা ও কন্যাশিশু মিম রাস্তার মাঝখানে ছিটকে পড়ে যায়। সেখানে চলন্ত ট্রাকের সামনের চাকায় পিষ্ট হয় খাদিজা এবং কোলে থাকা কন্যাশিশু মিম পাশের একটি ধান ক্ষেতে গিয়ে আছড়ে পড়ে।

ঘটনাস্থলে পিষ্ট হওয়া নারী মারা গেলেও শিশুটি প্রাণে বেঁচে যায়। শিশুটি এখন পুরোপুরি সুস্থ আছে। মায়ের মরদেহ সড়কে পড়ে থাকতে দেখে অবুঝ শিশু মিম মা মা করে অঝরে কাঁদতে থাকে। পরে এলাকাবাসী এসে শিশু ও মোটরসাইকেলচালককে উদ্ধার করে।

এ বিষয়ে মহম্মদপুর থানার ওসি মো. নাসির উদ্দীন জানান, ট্রাকটি পুলিশের হেফাজতে নেওয়া হয়েছে এবং ট্রাকচালককে আটকের চেষ্টা চলছে। আইনি প্রক্রিয়া শেষে নিহত নারীকে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

ট্রাকচাপায় পিষ্ট হয়ে প্রবাসীর স্ত্রী নিহত, বেঁচে গেল কোলে থাকা শিশু

 মহম্মদপুর (মাগুরা) প্রতিনিধি 
৩০ জুলাই ২০২১, ০৩:৫৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ট্রাকচাপায় পিষ্ট হয়ে প্রবাসীর স্ত্রী নিহত, বেঁচে গেল কোলে থাকা শিশু
ফাইল ছবি

মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলায় খাদিজা বেগম (২২) নামে এক ইরাক প্রবাসীর স্ত্রী ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলে নিহত হন। এ সময় প্রাণে বেঁচে যায় নিহতের কোলে থাকা ৬ বছরের কন্যাশিশু মিম।

বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার রাহাতপুর সুইচগেটসংলগ্ন নহাটা-রাজাপুর সড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত খাদিজা রাজাপুর ইউনিয়নের রাহাতপুর গ্রামের ইরাক প্রবাসী স্বাধীন মল্লিকের স্ত্রী।

এ ঘটনায় চালক ও হেলপার পলাতক রয়েছেন। ঘাতক ট্রাকটি জব্দ করেছে মহম্মদপুর থানা পুলিশ।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্বাধীনের বড় ভাই মো. জামাল মল্লিক জানান, নিহত খাদিজা তার মেয়েকে নিয়ে নহাটাবাজারে ডাক্তারের পরামর্শ নিতে যান। সেখান থেকে খাদিজার স্বজন আকবর সরদারের মোটরসাইকেলে বাড়ি ফিরছিলেন তিনি।

এ সময় রাজাপুরের রাহাতপুর সুইসগেটসংলগ্ন এলাকায় পৌঁছলে বৃষ্টিতে ভেজা রাস্তায় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাক সাইড দিতে গেলে মোটরসাইকেল স্লিপ করে। এতে পেছনে বসে থাকা খাদিজা ও কন্যাশিশু মিম রাস্তার মাঝখানে ছিটকে পড়ে যায়। সেখানে চলন্ত ট্রাকের সামনের চাকায় পিষ্ট হয় খাদিজা এবং কোলে থাকা কন্যাশিশু মিম পাশের একটি ধান ক্ষেতে গিয়ে আছড়ে পড়ে।

ঘটনাস্থলে পিষ্ট হওয়া নারী মারা গেলেও শিশুটি প্রাণে বেঁচে যায়। শিশুটি এখন পুরোপুরি সুস্থ আছে। মায়ের মরদেহ সড়কে পড়ে থাকতে দেখে অবুঝ শিশু মিম মা মা করে অঝরে কাঁদতে থাকে। পরে এলাকাবাসী এসে শিশু ও মোটরসাইকেলচালককে উদ্ধার করে।

এ বিষয়ে মহম্মদপুর থানার ওসি মো. নাসির উদ্দীন জানান, ট্রাকটি পুলিশের হেফাজতে নেওয়া হয়েছে এবং ট্রাকচালককে আটকের চেষ্টা চলছে। আইনি প্রক্রিয়া শেষে নিহত নারীকে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন