মাঠেই প্রাণ গেল ফুটবল খেলোয়াড়ের  
jugantor
মাঠেই প্রাণ গেল ফুটবল খেলোয়াড়ের  

  যুগান্তর প্রতিবেদন, রাঙ্গাবালী  

৩০ জুলাই ২০২১, ১৯:৫৫:২৮  |  অনলাইন সংস্করণ

পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলায় ফুটবল খেলাকালীন মাঠেই নাঈম হোসেন (১৭) নামে এক স্কুলছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার দুপুরে মৌডুবি ইউনিয়নের বাইলাবুনিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত নাঈম ওই ইউনিয়নের বাইলাবুনিয়া গ্রামের মজিবুর রহমানের ছেলে এবং মৌডুবি সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্র।

স্থানীয় লোকজন ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, স্থানীয় কিশোর-তরুণদের সঙ্গে শুক্রবার দুপুর সাড়ে ১১টায় বাইলাবুনিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে গোলকিপার হিসেবে নাঈম ফুটবল খেলতে নামে। খেলা চলাকালীন দৌড়াদৌড়ি করার সময় নাঈম হঠাৎ মাঠের মধ্যে পড়ে যায়। সেখান থেকে উঠে দ্বিতীয়বার দৌড় দিলে আবারও পড়ে গিয়ে অচেতন হয়। পরে স্থানীয় চিকিৎসক ডেকে আনলে নাঈমকে দেখে মৃত ঘোষণা করা হয়।

জানা গেছে, নাঈম বাবা-মায়ের একমাত্র সন্তান। তার মৃত্যুতে পরিবার ও সহপাঠীদের মধ্যে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। স্বজনদের আহাজারিতে আকাশ-বাতাস ভারি হয়ে উঠেছে নাঈমের গ্রামে।

নাঈমের খালাতো ভাই নূর আহম্মেদ বলেন, এর আগেও বিভিন্ন সময় সে এরকম অজ্ঞান (অচেতন) হতো।

মৌডুবি ইউপির ৮ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য আবুল কালাম আজাদ বলেন, বল খেলতে গিয়ে দুইবার মাঠে পড়ে গিয়েছিল নাঈম। শেষবার পড়ে গিয়ে আর উঠতে পারেনি। ডাক্তার এসে তাকে মৃত ঘোষণা করে। ধারণা করা হচ্ছে, হয়তো সে স্ট্রোক করে মারা গেছে।

রাঙ্গাবালী থানার ওসি দেওয়ান জগলুল হাসান বলেন, আমরা এখনো এ ধরনের কোনো খবর পাইনি। খোঁজ নিয়ে দেখছি।

মাঠেই প্রাণ গেল ফুটবল খেলোয়াড়ের  

 যুগান্তর প্রতিবেদন, রাঙ্গাবালী 
৩০ জুলাই ২০২১, ০৭:৫৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলায় ফুটবল খেলাকালীন মাঠেই নাঈম হোসেন (১৭) নামে এক স্কুলছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার দুপুরে মৌডুবি ইউনিয়নের বাইলাবুনিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে এ ঘটনা ঘটে। 

নিহত নাঈম ওই ইউনিয়নের বাইলাবুনিয়া গ্রামের মজিবুর রহমানের ছেলে এবং মৌডুবি সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্র। 

স্থানীয় লোকজন ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, স্থানীয় কিশোর-তরুণদের সঙ্গে শুক্রবার দুপুর সাড়ে ১১টায় বাইলাবুনিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে গোলকিপার হিসেবে নাঈম ফুটবল খেলতে নামে। খেলা চলাকালীন দৌড়াদৌড়ি করার সময় নাঈম হঠাৎ মাঠের মধ্যে পড়ে যায়। সেখান থেকে উঠে দ্বিতীয়বার দৌড় দিলে আবারও পড়ে গিয়ে অচেতন হয়। পরে স্থানীয় চিকিৎসক ডেকে আনলে নাঈমকে দেখে মৃত ঘোষণা করা হয়।

জানা গেছে, নাঈম বাবা-মায়ের একমাত্র সন্তান। তার মৃত্যুতে পরিবার ও সহপাঠীদের মধ্যে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। স্বজনদের আহাজারিতে আকাশ-বাতাস ভারি হয়ে উঠেছে নাঈমের গ্রামে। 

নাঈমের খালাতো ভাই নূর আহম্মেদ বলেন, এর আগেও বিভিন্ন সময় সে এরকম অজ্ঞান (অচেতন) হতো। 

মৌডুবি ইউপির ৮ নম্বর ওয়ার্ড সদস্য আবুল কালাম আজাদ বলেন, বল খেলতে গিয়ে দুইবার মাঠে পড়ে গিয়েছিল নাঈম। শেষবার পড়ে গিয়ে আর উঠতে পারেনি। ডাক্তার এসে তাকে মৃত ঘোষণা করে। ধারণা করা হচ্ছে, হয়তো সে স্ট্রোক করে মারা গেছে।

রাঙ্গাবালী থানার ওসি দেওয়ান জগলুল হাসান বলেন, আমরা এখনো এ ধরনের কোনো খবর পাইনি। খোঁজ নিয়ে দেখছি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন