ডেঙ্গিতে নারীর মৃত্যু, করোনার ভয়ে কাছে আসেনি কেউ
jugantor
ডেঙ্গিতে নারীর মৃত্যু, করোনার ভয়ে কাছে আসেনি কেউ

  ফতুল্লা (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি  

০২ আগস্ট ২০২১, ১১:০২:৫২  |  অনলাইন সংস্করণ

মৃত্যু

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে মাহফুজা খানম নামে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে।

রোববার রাত ১টায় ফতুল্লার আফাজনগর এলাকায় নিজ বাড়িতে ৫৫ বছর বয়সি ওই নারীর মৃত্যু হয়।

সোমবার ভোরে ওই নারীর মৃতদেহ বাসা থেকে বাইরে বের করতে তার সন্তানরা ডেকেও আশপাশের কাউকে কাছে পায়নি। করোনার ভয়ে কেউ কাছে না এলেও নিহতের এক মেয়ে ও এক ছেলে পাঁচতলার ওপরের ফ্ল্যাট থেকে মায়ের মৃতদেহ নিচে নামান। পরে স্থানীয় দাফন কমিটির সহযোগিতায় দাফন করেন।

এ বিষয়ে নিহতের ছোট ছেলে সাদিদ জানান, মায়ের ১০ দিনের মতো জ্বর ছিল। এর মধ্যে প্রথমে করোনা টেস্ট করিয়ে নেগেটিভ রিপোর্ট আসে।পরবর্তী সময় ডাক্তারের কাছে নিয়ে গেলে বিভিন্ন পরীক্ষা করার পর তার রক্তে কিছুটা ইনফেকশনের পাশাপাশি ডেঙ্গুও ধরা পড়ে। গতরাতে বাসায় প্রচণ্ড জ্বরে তিনি মারা যান।

তিনি আরও জানান, করোনা পরিস্থিতির কারণে ভয়ে কেউ এগিয়ে আসেনি। আমি আর আমার অসুস্থ বড় বোন মিলে মায়ের লাশ পাঁচতলা থেকে নিচে নামিয়েছি। ডেকেও আশপাশের কাউকে কাছে পাইনি। পরে স্থানীয় দাফন কমিটির লোকজনের সহযোগিতায় মায়ের লাশ দাফনের ব্যবস্থা করেছি।

ডেঙ্গিতে নারীর মৃত্যু, করোনার ভয়ে কাছে আসেনি কেউ

 ফতুল্লা (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি 
০২ আগস্ট ২০২১, ১১:০২ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মৃত্যু
ফাইল ছবি

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে মাহফুজা খানম নামে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে।

রোববার রাত ১টায় ফতুল্লার আফাজনগর এলাকায় নিজ বাড়িতে ৫৫ বছর বয়সি ওই নারীর মৃত্যু হয়।

সোমবার ভোরে ওই নারীর মৃতদেহ বাসা থেকে বাইরে বের করতে তার সন্তানরা ডেকেও আশপাশের কাউকে কাছে পায়নি। করোনার ভয়ে কেউ কাছে না এলেও নিহতের এক মেয়ে ও এক ছেলে পাঁচতলার ওপরের ফ্ল্যাট থেকে মায়ের মৃতদেহ নিচে নামান। পরে স্থানীয় দাফন কমিটির সহযোগিতায় দাফন করেন।

এ বিষয়ে নিহতের ছোট ছেলে সাদিদ জানান, মায়ের ১০ দিনের মতো জ্বর ছিল। এর মধ্যে প্রথমে করোনা টেস্ট করিয়ে নেগেটিভ রিপোর্ট আসে।পরবর্তী সময় ডাক্তারের কাছে নিয়ে গেলে বিভিন্ন পরীক্ষা করার পর তার রক্তে কিছুটা ইনফেকশনের পাশাপাশি ডেঙ্গুও ধরা পড়ে। গতরাতে বাসায় প্রচণ্ড জ্বরে তিনি মারা যান।

তিনি আরও জানান, করোনা পরিস্থিতির কারণে ভয়ে কেউ এগিয়ে আসেনি। আমি আর আমার অসুস্থ বড় বোন মিলে মায়ের লাশ পাঁচতলা থেকে নিচে নামিয়েছি। ডেকেও আশপাশের কাউকে কাছে পাইনি। পরে স্থানীয় দাফন কমিটির লোকজনের সহযোগিতায় মায়ের লাশ দাফনের ব্যবস্থা করেছি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ভয়ংকর ডেঙ্গু

০৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন