হাসপাতালে নবজাতক ফেলে পালিয়ে গেলেন মা
jugantor
হাসপাতালে নবজাতক ফেলে পালিয়ে গেলেন মা

  বাঁশখালী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি  

০২ আগস্ট ২০২১, ২০:৫৭:৩৭  |  অনলাইন সংস্করণ

চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রোববার রাত ১০টায় ডেলিভারির পরেই এক নবজাতক ছেলেকে ফেলে পালিয়েছেন তার মা-বাবা।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. শফিউর রহমান মজুমদার জানান, বর্তমানে ওই নবজাতক হাসপাতালের হেফাজতে বাঁশখালী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এক নার্সের তত্ত্বাবধানে রয়েছে। ওই দম্পতি নবজাতককে দত্তক নেওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছে; কিন্তু দত্তক দেওয়া যাবে না।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, হাসপাতালের রেজিস্টারে নবজাতকের মাতা অর্চনা বড়ুয়া ও স্বামী সুবোধ বড়ুয়া নাম ঠিকানা লিপিবদ্ধ করা হয়। তাদের ঠিকানা বাঁশখালী পৌরসভার জলদী ২ ওয়ার্ড লেখা থাকলেও ওই ঠিকানা সঠিক নয়।

এ বিষয়ে পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর তপন বড়ুয়া বলেন, নবজাতকের পিতা-মাতার সঠিক সন্ধানে পুলিশ ও পৌর প্রশাসনের লোকজন অনেক অনুসন্ধান চালিয়েছে। উল্লেখিত নামে আমার ২ নম্বর ওয়ার্ডের উত্তর জলদী বড়ুয়াপাড়া এলাকায় কাউকে পাওয়া যায়নি।

বাঁশখালী থানার এসআই আক্তার হোসেন জানান, এ বিষয়ে তদন্ত চলছে আমরা ওই নবজাতক শিশুটিকে তার মা-বাবার কাছে ফেরত দেওয়ার চেষ্টা চলছে।

বাঁশখালী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. শফিউর রহমান মজুমদার বলেন, আইনি প্রক্রিয়া ছাড়া দত্তক দেওয়া সম্ভব নয়। নবজাতক শিশুটির প্রকৃত পিতা-মাতার কাছে ফিরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা চলছে।

হাসপাতালে নবজাতক ফেলে পালিয়ে গেলেন মা

 বাঁশখালী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি 
০২ আগস্ট ২০২১, ০৮:৫৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রোববার রাত ১০টায় ডেলিভারির পরেই এক নবজাতক ছেলেকে ফেলে পালিয়েছেন তার মা-বাবা।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. শফিউর রহমান মজুমদার জানান, বর্তমানে ওই নবজাতক হাসপাতালের হেফাজতে বাঁশখালী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এক নার্সের তত্ত্বাবধানে রয়েছে। ওই দম্পতি নবজাতককে দত্তক নেওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছে; কিন্তু দত্তক দেওয়া যাবে না। 

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, হাসপাতালের রেজিস্টারে নবজাতকের মাতা অর্চনা বড়ুয়া ও স্বামী সুবোধ বড়ুয়া নাম ঠিকানা লিপিবদ্ধ করা হয়। তাদের ঠিকানা বাঁশখালী পৌরসভার জলদী ২ ওয়ার্ড লেখা থাকলেও ওই ঠিকানা সঠিক নয়। 

এ বিষয়ে পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর তপন বড়ুয়া বলেন, নবজাতকের পিতা-মাতার সঠিক সন্ধানে পুলিশ ও পৌর প্রশাসনের লোকজন অনেক অনুসন্ধান চালিয়েছে। উল্লেখিত নামে আমার ২ নম্বর ওয়ার্ডের উত্তর জলদী বড়ুয়াপাড়া এলাকায় কাউকে পাওয়া যায়নি।

বাঁশখালী থানার এসআই আক্তার হোসেন জানান, এ বিষয়ে তদন্ত চলছে আমরা ওই নবজাতক শিশুটিকে তার মা-বাবার কাছে ফেরত দেওয়ার চেষ্টা চলছে। 

বাঁশখালী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. শফিউর রহমান মজুমদার বলেন, আইনি প্রক্রিয়া ছাড়া দত্তক দেওয়া সম্ভব নয়। নবজাতক শিশুটির প্রকৃত পিতা-মাতার কাছে ফিরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা চলছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন