ভাড়া ৫ টাকা বেশি চাওয়ায় অটোচালককে হত্যা!
jugantor
ভাড়া ৫ টাকা বেশি চাওয়ায় অটোচালককে হত্যা!

  আশুলিয়া (ঢাকা) প্রতিনিধি  

০৩ আগস্ট ২০২১, ০৯:২৯:০৪  |  অনলাইন সংস্করণ

ফাইল ছবি

ঢাকার আশুলিয়ায় ভাড়া পাঁচ টাকা বেশি চাওয়ায় এক অটোরিকশা চালককে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্তকে স্থানীয়রা গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছেন।

সোমবার সকালে নরসিংহপুর-কাশিমপুর আঞ্চলিক সড়কের ইউসুফ মার্কেট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত অটোচালক আব্দুল আলীম (৪০) গাজীপুর মহানগরীর কাশিমপুর বাগবাড়ি এলাকার জয়নাল আবেদীনের ছেলে।

অভিযুক্ত ফজলুল হক (৪১) শেরপুরের নালিতাবাড়ি থানার কাকড়কান্ডি গ্রামের আব্দুল লতিপের ছেলে। তিনি গাজীপুর মহানগরীর কাশিমপুর স্বরোপাইতলী এলাকার বাসিন্দা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বাগবাড়ি মাদ্রাসা বাজার থেকে পোশাক কারখানায় যাওয়ার জন্য অটোরিকশায় উঠেন ফজলুল হক। তিনি ইউসুফ মার্কেট বাসস্ট্যান্ডে নামেন।

এ সময় অটোরিকশা থেকে নেমে পাঁচ টাকা ভাড়া দিতে চাইলে চালক ১০ টাকা চান। এ নিয়ে দুজনের মধ্যে তর্ক হয়। এক পর্যায়ে ফজলুল হক ওই চালককে লাথি মারলে তিনি অটো থেকে নিচে পড়ে যান।

এ সময় অটোটি চালু ছিল। তাই তিনি অটোর নিচে চাপা পড়েন। এতে মাথায় গুরুতর আঘাত পান এবং ঘটনাস্থলেই মারা যান আব্দুল আলীম । পরে স্থানীয়রা ফজলুলকে আটক করে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেন।

এ ব্যাপরে আশুলিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জিয়াউল ইসলাম যুগান্তরকে জানান, নিহত অটোচালকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। অভিযুক্তকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

ভাড়া ৫ টাকা বেশি চাওয়ায় অটোচালককে হত্যা!

 আশুলিয়া (ঢাকা) প্রতিনিধি 
০৩ আগস্ট ২০২১, ০৯:২৯ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

ঢাকার আশুলিয়ায় ভাড়া পাঁচ টাকা বেশি চাওয়ায় এক অটোরিকশা চালককে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্তকে স্থানীয়রা গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছেন।

সোমবার সকালে নরসিংহপুর-কাশিমপুর আঞ্চলিক সড়কের ইউসুফ মার্কেট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। 

নিহত অটোচালক আব্দুল আলীম (৪০) গাজীপুর মহানগরীর কাশিমপুর বাগবাড়ি এলাকার জয়নাল আবেদীনের ছেলে। 

অভিযুক্ত ফজলুল হক (৪১) শেরপুরের নালিতাবাড়ি থানার কাকড়কান্ডি গ্রামের আব্দুল লতিপের ছেলে। তিনি গাজীপুর মহানগরীর কাশিমপুর স্বরোপাইতলী এলাকার বাসিন্দা। 

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বাগবাড়ি মাদ্রাসা বাজার থেকে পোশাক কারখানায় যাওয়ার জন্য অটোরিকশায় উঠেন ফজলুল হক। তিনি ইউসুফ মার্কেট বাসস্ট্যান্ডে নামেন। 

এ সময় অটোরিকশা থেকে নেমে পাঁচ টাকা ভাড়া দিতে চাইলে চালক ১০ টাকা চান। এ নিয়ে দুজনের মধ্যে তর্ক হয়। এক পর্যায়ে ফজলুল হক ওই চালককে লাথি মারলে তিনি অটো থেকে নিচে পড়ে যান। 

এ সময় অটোটি চালু ছিল। তাই তিনি অটোর নিচে চাপা পড়েন। এতে মাথায় গুরুতর আঘাত পান এবং ঘটনাস্থলেই মারা যান আব্দুল আলীম ।  পরে স্থানীয়রা ফজলুলকে আটক করে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেন। 

এ ব্যাপরে আশুলিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জিয়াউল ইসলাম যুগান্তরকে জানান, নিহত অটোচালকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। অভিযুক্তকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন