কুমিল্লায় ৪ দোকানে আগুন
jugantor
কুমিল্লায় ৪ দোকানে আগুন

  কুমিল্লা ব্যুরো  

০৫ আগস্ট ২০২১, ১২:৩৪:০৩  |  অনলাইন সংস্করণ

আগুন

কুমিল্লার মুরাদনগরে অগ্নিকাণ্ডে চার পাইকারি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান পুড়ে ছাই হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার বাঙ্গরা থানা সদর বাজারে এ ঘটনা ঘটে। অগ্নিকাণ্ডে ওই বাজারের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর সওদাগরের দুটি দোকানের প্রায় তিন কোটি টাকা, ওয়াদুদ সওদাগরের একটি দোকানে ৭০ লাখ, আর জামাল সওদাগরের একটি দোকানে ৪০ লাখ টাকার মালামাল পুড়ে গেছে বলে দাবি করা হয়েছে।

খবর পেয়ে মুরাদনগর থেকে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণ করেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় ব্যবসায়ীরা জানান, লকডাউনের কারণে বাজারের সব দোকানপাট বন্ধ ছিল। বৃহস্পতিবার সকালে বাজারের পাইকারি মুদি মালের ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর সওদাগরের একটি দোকান থেকে হঠাৎ আগুনের সূত্রপাত ঘটে। এতে ওই ব্যবসায়ীর দুটি দোকানসহ আশপাশের আরও দুটি পাইকারি দোকানে আগুন ছড়িয়ে পড়ে।

এ ঘটনায় বাজারের ব্যবসায়ীসহ আশপাশের লোকজন ছুটে এসে আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চালায়। পরে খবর পেয়ে মুরাদনগর থেকে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর সওদাগর জানান, তার দুটি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে নগদ টাকাসহ প্রায় তিন কোটি টাকা মালামাল ছিল। এ ছাড়া আরও দুটি প্রতিষ্ঠানের প্রায় এক কোটি ১০ লাখ টাকার মালামাল পুড়ে গেছে।

ফায়ার সার্ভিসের ইউনিট কমান্ডার এসএম শামীম জানান, বিদ্যুতের শর্টসার্কিট থেকে আগুন ছড়িয়েছে বলে আমরা প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি। আগুন নিয়ন্ত্রণে আমাদের দুটি ইউনিট কাজ করেছে। আগুনে চারটি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে, আমরা তদন্ত করে ক্ষতির পরিমাণ নিরূপণসহ প্রতিবেদন পেশ করব।

বাঙ্গরাবাজার থানার ওসি কামরুজ্জামান তালুকদার জানান, অগ্নিকাণ্ডের ঘটনাটি আমার থানার পাশেই ঘটেছে। মানুষের চিৎকার শুনে পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে যাই এবং ফায়ার সার্ভিসকে খবর দিই। ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে। তবে কী কারণে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে তা তদন্ত করা হবে।

কুমিল্লায় ৪ দোকানে আগুন

 কুমিল্লা ব্যুরো 
০৫ আগস্ট ২০২১, ১২:৩৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আগুন
ছবি: যুগান্তর

কুমিল্লার মুরাদনগরে অগ্নিকাণ্ডে চার পাইকারি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান পুড়ে ছাই হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার বাঙ্গরা থানা সদর বাজারে এ ঘটনা ঘটে। অগ্নিকাণ্ডে ওই বাজারের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর সওদাগরের দুটি দোকানের প্রায় তিন কোটি টাকা, ওয়াদুদ সওদাগরের একটি দোকানে ৭০ লাখ, আর জামাল সওদাগরের একটি দোকানে ৪০ লাখ টাকার মালামাল পুড়ে গেছে বলে দাবি করা হয়েছে।

খবর পেয়ে মুরাদনগর থেকে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণ করেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় ব্যবসায়ীরা জানান, লকডাউনের কারণে বাজারের সব দোকানপাট বন্ধ ছিল। বৃহস্পতিবার সকালে বাজারের পাইকারি মুদি মালের ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর সওদাগরের একটি দোকান থেকে হঠাৎ আগুনের সূত্রপাত ঘটে। এতে ওই ব্যবসায়ীর দুটি দোকানসহ আশপাশের আরও দুটি পাইকারি দোকানে আগুন ছড়িয়ে পড়ে।

এ ঘটনায় বাজারের ব্যবসায়ীসহ আশপাশের লোকজন ছুটে এসে আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চালায়। পরে খবর পেয়ে মুরাদনগর থেকে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর সওদাগর জানান, তার দুটি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে নগদ টাকাসহ প্রায় তিন কোটি টাকা মালামাল ছিল। এ ছাড়া আরও দুটি প্রতিষ্ঠানের প্রায় এক কোটি ১০ লাখ টাকার মালামাল পুড়ে গেছে।    

ফায়ার সার্ভিসের ইউনিট কমান্ডার এসএম শামীম জানান, বিদ্যুতের শর্টসার্কিট থেকে আগুন ছড়িয়েছে বলে আমরা প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি। আগুন নিয়ন্ত্রণে আমাদের দুটি ইউনিট কাজ করেছে। আগুনে চারটি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে, আমরা তদন্ত করে ক্ষতির পরিমাণ নিরূপণসহ প্রতিবেদন পেশ করব।  

বাঙ্গরাবাজার থানার ওসি কামরুজ্জামান তালুকদার জানান, অগ্নিকাণ্ডের ঘটনাটি আমার থানার পাশেই ঘটেছে। মানুষের চিৎকার শুনে পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে যাই এবং ফায়ার সার্ভিসকে খবর দিই। ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে। তবে কী কারণে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে তা তদন্ত করা হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন