করোনা টিকা নেওয়ার ৬ ঘণ্টা পর মৃত্যু
jugantor
করোনা টিকা নেওয়ার ৬ ঘণ্টা পর মৃত্যু

  ভাঙ্গুড়া (পাবনা) প্রতিনিধি  

০৭ আগস্ট ২০২১, ২২:০৯:৪১  |  অনলাইন সংস্করণ

পাবনার ভাঙ্গুড়া উপজেলায় মোকলেছ খন্দকার (৫৫) নামে এক ব্যক্তি করোনা টিকা নেওয়ার ৬ ঘণ্টা পর মারা গেছেন।

মোকলেছ উপজেলার খানমরিচ ইউনিয়নের করতকান্দি গ্রামের মৃত আফতাব উদ্দিন খন্দকারের ছেলে। ঘটনায় টিকা গ্রহণ নিয়ে এলাকায় মিশ্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে, বিরাজ করছে আতঙ্ক।

নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার হালিমা খানম জানান, এ বিষয়ে তদন্ত করা হবে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, শনিবার সকালে ইউনিয়নের করতকান্দি ওয়ার্ডে গণটিকা কার্যক্রম থেকে তিনি টিকা গ্রহণ করেন। আগে থেকেই হৃদরোগে আক্রান্ত ছিলেন মোকলেছ খন্দকার। টিকা গ্রহণের পর থেকে তিনি স্বাভাবিক চলাফেরা করছিলেন। হঠাৎ বিকালে তিনি অজ্ঞান হয়ে গেলে পরিবারের লোকেরা তাকে সুস্থ করার চেষ্টা করলে তিনি মারা যান। এরপর বিষয়টি উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরগুলোতে জানান গ্রামের বাসিন্দারা।

মোকলেছের সঙ্গে একই কেন্দ্রে থেকে টিকা গ্রহণকারী প্রতিবেশী শিবলু খন্দকার বলেন, তিনি আগে থেকেই অসুস্থ ছিলেন। টিকা নিলে সুস্থ হয়ে উঠবেন এই ভেবে তিনি আমার সঙ্গে গিয়ে কেন্দ্র থেকে টিকা নেন। কিন্তু এরপরে হঠাৎ করেই বিকালে মারা যান।

সংশ্লিষ্ট ইউপি সদস্য আলমগীর হোসেন বলেন, সকালবেলা টিকা নেন মোকলেছ। এরপর দীর্ঘ কয়েক ঘণ্টা সুস্থ ও স্বাভাবিকভাবে সবার সঙ্গে চলাফেরা করেন। কিন্তু হঠাৎ করেই বিকালে জ্ঞান হারিয়ে মারা যান।

তবে এ বিষয়ে মোবাইল ফোনে পরিবারের কোনো সদস্য সংবাদকর্মীর সঙ্গে কথা বলতে রাজি হননি।

মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাক্তার হালিমা খানম বলেন, টিকার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া থাকে ১৫ থেকে ২০ মিনিট। কিন্তু ওই ব্যক্তি মারা গেছে অন্তত ৬ ঘণ্টা পরে। এতে এটি স্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনা বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে বিষয়টি নিয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করে তদন্ত করা হবে।

করোনা টিকা নেওয়ার ৬ ঘণ্টা পর মৃত্যু

 ভাঙ্গুড়া (পাবনা) প্রতিনিধি 
০৭ আগস্ট ২০২১, ১০:০৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

পাবনার ভাঙ্গুড়া উপজেলায় মোকলেছ খন্দকার (৫৫) নামে এক ব্যক্তি করোনা টিকা নেওয়ার ৬ ঘণ্টা পর মারা গেছেন। 

মোকলেছ উপজেলার খানমরিচ ইউনিয়নের করতকান্দি গ্রামের মৃত আফতাব উদ্দিন খন্দকারের ছেলে। ঘটনায় টিকা গ্রহণ নিয়ে এলাকায় মিশ্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে, বিরাজ করছে আতঙ্ক। 

নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার হালিমা খানম জানান, এ বিষয়ে তদন্ত করা হবে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, শনিবার সকালে ইউনিয়নের করতকান্দি ওয়ার্ডে গণটিকা কার্যক্রম থেকে তিনি টিকা গ্রহণ করেন। আগে থেকেই হৃদরোগে আক্রান্ত ছিলেন মোকলেছ খন্দকার। টিকা গ্রহণের পর থেকে তিনি স্বাভাবিক চলাফেরা করছিলেন। হঠাৎ বিকালে তিনি অজ্ঞান হয়ে গেলে পরিবারের লোকেরা তাকে সুস্থ করার চেষ্টা করলে তিনি মারা যান। এরপর বিষয়টি উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরগুলোতে জানান গ্রামের বাসিন্দারা।

মোকলেছের সঙ্গে একই কেন্দ্রে থেকে টিকা গ্রহণকারী প্রতিবেশী শিবলু খন্দকার বলেন, তিনি আগে থেকেই অসুস্থ ছিলেন। টিকা নিলে সুস্থ হয়ে উঠবেন এই ভেবে তিনি আমার সঙ্গে গিয়ে কেন্দ্র থেকে টিকা নেন। কিন্তু এরপরে হঠাৎ করেই বিকালে মারা যান।

সংশ্লিষ্ট ইউপি সদস্য আলমগীর হোসেন বলেন, সকালবেলা টিকা নেন মোকলেছ। এরপর দীর্ঘ কয়েক ঘণ্টা সুস্থ ও স্বাভাবিকভাবে সবার সঙ্গে চলাফেরা করেন। কিন্তু হঠাৎ করেই বিকালে জ্ঞান হারিয়ে মারা যান।

তবে এ বিষয়ে মোবাইল ফোনে পরিবারের কোনো সদস্য সংবাদকর্মীর সঙ্গে কথা বলতে রাজি হননি।

মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাক্তার হালিমা খানম বলেন, টিকার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া থাকে ১৫ থেকে ২০ মিনিট। কিন্তু ওই ব্যক্তি মারা গেছে অন্তত ৬ ঘণ্টা পরে। এতে এটি স্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনা বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে বিষয়টি নিয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করে তদন্ত করা হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস

২০ অক্টোবর, ২০২১
১৭ অক্টোবর, ২০২১
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন