টিকা নিলেন ৭ হাজারের বেশি মানুষ
jugantor
হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলা
টিকা নিলেন ৭ হাজারের বেশি মানুষ

  আবুল কালাম আজাদ, চুনারুঘাট  

০৮ আগস্ট ২০২১, ০৩:৫৩:১৮  |  অনলাইন সংস্করণ

হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার ১০টি ইউনিয়ন কেন্দ্রে করোনার ভ্যাকসিন নিতে মানুষের ঢল নেমেছিল। শনিবার টিকা নিয়েছেন উপজেলার ৭ হাজারেরও বেশি মানুষ। তবে টিকা না পেয়ে ফিরতে হয়েছে অনেককে।

সকাল থেকেই উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়ন কেন্দ্রগুলোতে ছিল টিকা নিতে আসা মানুষের ভিড়। প্রতিকেন্দ্রে ৬শ করে ১০টি ইউনিয়নের ৩০টি বুথে সকাল থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ৬ হাজার টিকা দেওয়ার কথা থাকলেও টিকা দেওয়া হয়েছে ৭ হাজারেরও বেশি মানুষকে।

উপজেলার ১০টি ইউনিয়নে ৬শ করে ৬ হাজার টিকা দেওয়ার কথা থাকলেও মানুষের আগ্রহ বেশি থাকায় টিকা দেওয়া হয়েছে ৬ হাজার ৬৯৯ জনকে। অনেককেই টিকা না নিয়ে ফিরতে হয়েছে। এ ছাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে টিকা নেন ৩শ ৮৪ জন। এ নিয়ে উপজেলায় গণটিকা নিয়েছেন ৭ হাজার ৩৩ জন।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোজম্মেল হোসেন জানান, দুপুরের মধ্যেই ৫ হাজারের বেশি মানুষ টিকা নেয়। ৬ হাজার টিকা দেওয়ার কথা থাকলেও মানুষ বেশি হওয়ায় কিছু টিকা বেশি দেওয়া হয়।

এদিকে টিকা কেন্দ্রগুলো পরিদর্শন করেছেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল কাদির লস্কর, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্র্তা সত্যজিত রায় দাশ ও ওসি মো. আলী আশরাফসহ স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সত্যজিত রায় দাশ বলেন, টিকা নেওয়ার জন্য মানুষে মধ্যে আগ্রহ অনেকে বেড়েছে। মানুষ টিকা নিলে এবং মাস্ক পরলে আমরা করোনাভাইরাসের সংক্রমণ কমাতে পারবো।

হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলা

টিকা নিলেন ৭ হাজারের বেশি মানুষ

 আবুল কালাম আজাদ, চুনারুঘাট 
০৮ আগস্ট ২০২১, ০৩:৫৩ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার ১০টি ইউনিয়ন কেন্দ্রে করোনার ভ্যাকসিন নিতে মানুষের ঢল নেমেছিল। শনিবার টিকা নিয়েছেন উপজেলার ৭ হাজারেরও বেশি মানুষ। তবে টিকা না পেয়ে ফিরতে হয়েছে অনেককে।

সকাল থেকেই উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়ন কেন্দ্রগুলোতে ছিল টিকা নিতে আসা মানুষের ভিড়। প্রতিকেন্দ্রে ৬শ করে ১০টি ইউনিয়নের ৩০টি বুথে সকাল থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ৬ হাজার টিকা দেওয়ার কথা থাকলেও টিকা দেওয়া হয়েছে ৭ হাজারেরও বেশি মানুষকে। 

উপজেলার ১০টি ইউনিয়নে ৬শ করে ৬ হাজার টিকা দেওয়ার কথা থাকলেও মানুষের আগ্রহ বেশি থাকায় টিকা দেওয়া হয়েছে ৬ হাজার ৬৯৯ জনকে। অনেককেই টিকা না নিয়ে ফিরতে হয়েছে। এ ছাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে টিকা নেন ৩শ ৮৪ জন। এ নিয়ে উপজেলায় গণটিকা নিয়েছেন ৭ হাজার ৩৩ জন।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মোজম্মেল হোসেন জানান,  দুপুরের মধ্যেই ৫ হাজারের বেশি মানুষ টিকা নেয়। ৬ হাজার টিকা দেওয়ার কথা থাকলেও মানুষ বেশি হওয়ায় কিছু টিকা বেশি দেওয়া হয়। 

এদিকে টিকা কেন্দ্রগুলো পরিদর্শন করেছেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল কাদির লস্কর, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্র্তা সত্যজিত রায় দাশ ও ওসি মো. আলী আশরাফসহ স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা। 

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সত্যজিত রায় দাশ বলেন, টিকা নেওয়ার জন্য মানুষে মধ্যে আগ্রহ অনেকে বেড়েছে। মানুষ টিকা নিলে এবং মাস্ক পরলে আমরা করোনাভাইরাসের সংক্রমণ কমাতে পারবো।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন