টিকা দিতে দেরি হওয়ায় স্বাস্থ্যকর্মীর ওপর হামলা, আটক ১
jugantor
টিকা দিতে দেরি হওয়ায় স্বাস্থ্যকর্মীর ওপর হামলা, আটক ১

  নেত্রকোনা প্রতিনিধি  

১০ আগস্ট ২০২১, ১৮:০৯:২৮  |  অনলাইন সংস্করণ

আটপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে

নেত্রকোনা জেলার আটপাড়ায় টিকা দিতে দেরি হওয়ায় হাসপাতালের স্টোর কিপার মো. মির্জা আতাউর রহমান জুয়েলের ওপর হামলার অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টায় আটপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এইঘটনা ঘটে।

মারধরে জড়িত থাকার অভিযোগে মো. নুরুল আমিন (৩২) নামে এক ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ। তিনি আটপাড়া উপজেলার মোবারকপুর গ্রামের গিয়াস উদ্দিন আহমেদের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, আটপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রতিদিনের ন্যায় মঙ্গলবার সকাল ১০টা থেকে করোনার টিকা প্রদান শুরু হয়। সকাল সাড়ে ১০টায় টিকা নেওয়া লাইনে শৌরগোল ওঠে টিকা শেষ হয়ে গেছে। এ সময় টিকা নিতে আসা মো. নুরুল আমিন ক্ষিপ্ত হয়ে হাসপাতালের স্টোর কিপার আতাউর রহমান জুয়েলকে মারধর করেন।

স্থানীয়রা পরিস্থিতি থামানোর চেষ্টা করেন। পরে পুলিশ গিয়ে হাসপাতাল থেকে অভিযুক্তকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

আটপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্টোরকিপার মির্জা আতাউর রহমান জুয়েল বলেন, আমরা করোনার মধ্যে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করে যাচ্ছি। টিকা দেওয়ার সময় ভিড় হলে আমি সবাইকে ধৈর্য ধরে টিকা নিতে বলি। এ সময় নুরুল আমিন আমার ওপর হামলা চালায়। আমি এ ঘটনার বিচার চাই।

অভিযুক্ত নুরুল আমিন পুলিশ হেফাজতে থাকায় তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

নেত্রকোনার আটপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. জাফর ইকবাল বলেন, একজনকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় হাসপাতালের স্টোরকিপার মির্জা আতাউর রহমান জুয়েল বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

নেত্রকোনার জেলা সিভিল সার্জন মো. সেলিম মিয়া বলেন, আটপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মঙ্গলবার সকালে টিকা কার্যক্রম শুরু হয়। ২৮০ জনকে টিকার দেওয়ার পর কর্মরত একজনের ওপর হামলা হলে টিকা কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যায়। স্বাস্থ্যকর্মীরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে করোনা পরিস্থিতিতে কাজ করে যাচ্ছেন। তারপরও তাদের ওপর হামলা মেনে নেওয়া যায় না। এ ঘটনায় নিন্দা জানাই, দোষী ব্যক্তির শাস্তি দাবি করছি।

টিকা দিতে দেরি হওয়ায় স্বাস্থ্যকর্মীর ওপর হামলা, আটক ১

 নেত্রকোনা প্রতিনিধি 
১০ আগস্ট ২০২১, ০৬:০৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আটপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে
আটপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স। ফাইল ছবি

নেত্রকোনা জেলার আটপাড়ায় টিকা দিতে দেরি হওয়ায় হাসপাতালের স্টোর কিপার মো. মির্জা আতাউর রহমান জুয়েলের ওপর হামলার অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টায় আটপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এই ঘটনা ঘটে।

মারধরে জড়িত থাকার অভিযোগে মো. নুরুল আমিন (৩২) নামে এক ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ। তিনি আটপাড়া উপজেলার মোবারকপুর গ্রামের গিয়াস উদ্দিন আহমেদের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, আটপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রতিদিনের ন্যায় মঙ্গলবার সকাল ১০টা থেকে করোনার টিকা প্রদান শুরু হয়। সকাল সাড়ে ১০টায় টিকা নেওয়া লাইনে শৌরগোল ওঠে টিকা শেষ হয়ে গেছে। এ সময় টিকা নিতে আসা মো. নুরুল আমিন ক্ষিপ্ত হয়ে হাসপাতালের স্টোর কিপার আতাউর রহমান জুয়েলকে মারধর করেন।

স্থানীয়রা পরিস্থিতি থামানোর চেষ্টা করেন। পরে পুলিশ গিয়ে হাসপাতাল থেকে অভিযুক্তকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

আটপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্টোরকিপার মির্জা আতাউর রহমান জুয়েল বলেন, আমরা করোনার মধ্যে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করে যাচ্ছি। টিকা দেওয়ার সময় ভিড় হলে আমি সবাইকে ধৈর্য ধরে টিকা নিতে বলি। এ সময় নুরুল আমিন আমার ওপর হামলা চালায়। আমি এ ঘটনার বিচার চাই।

অভিযুক্ত নুরুল আমিন পুলিশ হেফাজতে থাকায় তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।
 
নেত্রকোনার আটপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. জাফর ইকবাল বলেন, একজনকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় হাসপাতালের স্টোরকিপার মির্জা আতাউর রহমান জুয়েল বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

নেত্রকোনার জেলা সিভিল সার্জন মো. সেলিম মিয়া বলেন, আটপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মঙ্গলবার সকালে টিকা কার্যক্রম শুরু হয়। ২৮০ জনকে টিকার দেওয়ার পর কর্মরত একজনের ওপর হামলা হলে টিকা কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যায়। স্বাস্থ্যকর্মীরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে করোনা পরিস্থিতিতে কাজ করে যাচ্ছেন। তারপরও তাদের ওপর হামলা মেনে নেওয়া যায় না। এ ঘটনায় নিন্দা জানাই, দোষী ব্যক্তির শাস্তি দাবি করছি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও খবর
 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন