তারা সবাই ছিনতাইকারী
jugantor
তারা সবাই ছিনতাইকারী

  হোমনা (কুমিল্লা) প্রতিনিধি  

১০ আগস্ট ২০২১, ২১:৫৮:৩৯  |  অনলাইন সংস্করণ

কুমিল্লার হোমনায় ৪ নারী ছিনতাইকারীকে আটক করে পুলিশে দিয়েছেন স্থানীয় জনতা। সোমবার হোমনা বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ছিনতাইকারীরা হলো- দাউদকান্দি উপজেলার পুরান গৌরীপুরের রাজার মিয়ার স্ত্রী আঁখি সরকার (২০), তিতাস উপজেলার আলীরগাঁও গ্রামের বিল্লাল হোসেনের স্ত্রী হাছিনা আক্তার (২৬), একই উপজেলার বৈদ্যারকান্দি গ্রামের মো. নাছিরের স্ত্রী শিউলী (২০) ও একই উপজেলার জিয়ারকান্দি গ্রামের রুবেলের স্ত্রী মৌসুমী।

জানা গেছে, সোমবার শ্রীমদ্দি গ্রামের মো. মনু মিয়া তার মেয়েকে নিয়ে ২ লাখ ১২ হাজার টাকা ব্যাংকে জমা দিতে যান। ব্যাংকে ভিড় থাকায় পরদিন জমা দেবেন বলে বাড়ি রওনা হন। পথে হোমনা বাজারের মেঘনা হাসপাতালের সামনের সড়কে মেয়েকে দাঁড় করিয়ে অটো ডাকতে গেলে শারমিন ছিনতাইকারীর কবলে পড়ে। এ সময় ১ লাখ ১২ হাজার টাকা মাটিতে পড়ে যায় এবং ১ লাখ টাকা নিয়ে একজন চলে যায়।

পরে উপস্থিত লোকজনের সহযোগিতায় ৩ ছিনতাইকারীকে আটক করে কৌশলে বাকিজনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। পরবর্তীতে সে টাকা নেওয়ার কথা স্বীকার করে এবং ৮০ হাজার টাকা ফেরত দিতে আসে। তখন ৪ নারী ছিনতাইকারীকে আটকে রেখে থানায় খবর দিলে হোমনা থানা পুলিশ তাদের আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে মনু মিয়া বাদী ৪ ছিনতাইকারীর বিরুদ্ধে মামলা করেন।

এ ব্যাপারে হোমনা থানার ওসি মো.আবুল কায়েস আকন্দ জানান, একটি ছিনতাইকারী চক্র দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন স্থানে ছিনতাই করে আসছে। আজ জনতার হাত ধরা পড়েছে। ছিনতাইকারীদের কাছ থেকে মনু মিয়ার ১ লাখ ৯২ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। থানায় মামলা হয়েছে। ৪ জনকে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

তারা সবাই ছিনতাইকারী

 হোমনা (কুমিল্লা) প্রতিনিধি 
১০ আগস্ট ২০২১, ০৯:৫৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কুমিল্লার হোমনায় ৪ নারী ছিনতাইকারীকে আটক  করে পুলিশে দিয়েছেন স্থানীয় জনতা। সোমবার হোমনা বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ছিনতাইকারীরা হলো- দাউদকান্দি উপজেলার পুরান গৌরীপুরের রাজার মিয়ার স্ত্রী আঁখি সরকার (২০), তিতাস উপজেলার আলীরগাঁও গ্রামের বিল্লাল হোসেনের স্ত্রী হাছিনা আক্তার (২৬), একই উপজেলার বৈদ্যারকান্দি গ্রামের মো. নাছিরের স্ত্রী শিউলী (২০) ও একই উপজেলার জিয়ারকান্দি গ্রামের রুবেলের স্ত্রী মৌসুমী।

জানা গেছে, সোমবার শ্রীমদ্দি গ্রামের মো. মনু মিয়া তার মেয়েকে  নিয়ে ২ লাখ ১২ হাজার টাকা ব্যাংকে জমা দিতে যান। ব্যাংকে ভিড় থাকায় পরদিন জমা দেবেন বলে বাড়ি রওনা হন। পথে হোমনা বাজারের মেঘনা হাসপাতালের সামনের সড়কে মেয়েকে দাঁড় করিয়ে অটো ডাকতে গেলে শারমিন ছিনতাইকারীর কবলে পড়ে। এ সময় ১ লাখ ১২ হাজার টাকা মাটিতে পড়ে যায় এবং ১ লাখ টাকা নিয়ে একজন চলে যায়।

পরে উপস্থিত লোকজনের সহযোগিতায় ৩ ছিনতাইকারীকে আটক  করে কৌশলে বাকিজনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। পরবর্তীতে সে টাকা নেওয়ার কথা স্বীকার করে এবং ৮০ হাজার টাকা ফেরত দিতে আসে। তখন ৪ নারী ছিনতাইকারীকে আটকে রেখে থানায় খবর দিলে হোমনা থানা পুলিশ তাদের আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে মনু মিয়া বাদী ৪ ছিনতাইকারীর বিরুদ্ধে  মামলা করেন।

এ ব্যাপারে হোমনা থানার ওসি মো.আবুল কায়েস আকন্দ জানান, একটি ছিনতাইকারী চক্র দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন স্থানে ছিনতাই করে আসছে। আজ  জনতার হাত ধরা পড়েছে। ছিনতাইকারীদের কাছ থেকে মনু মিয়ার ১ লাখ ৯২ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। থানায় মামলা হয়েছে। ৪ জনকে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন