বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণ নিয়ে দুই গ্রুপের সংঘর্ষ
jugantor
বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণ নিয়ে দুই গ্রুপের সংঘর্ষ

  চাটখিল (নোয়াখালী) প্রতিনিধি  

১৫ আগস্ট ২০২১, ১৯:২৬:১৫  |  অনলাইন সংস্করণ

নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে স্থাপিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সমর্থকদের মাঝে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

রোববার সকালে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে পুষ্পস্তবক দেওয়াকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সমর্থকদের মাঝে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার সময় উপস্থিত নেতাকর্মী ও প্রশাসনের কর্মকর্তাদের মাঝে চরম আতঙ্কের সৃষ্টি হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী একাধিক নেতাকর্মী জানান, পৌরসভা আওয়ামী লীগ সভাপতি বজলুর রহমান লিটন ও উপজেলা যুবলীগ আহবায়ক বেলায়েত হোসেনের সমর্থক ছাত্রলীগ পুষ্পস্তবক অর্পণ করা নিয়ে নিজেদের মধ্যে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ে। একপর্যায়ে দুই গ্রুপের সমর্থকরা বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে দেওয়া পুষ্পস্তবক ছিনিয়ে নিয়ে ভাংচুর করে। উপজেলা প্রশাসন ও থানা পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

জানা যায়, ইউএনও এএসএম মোসার নেতৃত্বে উপজেলা প্রশাসন, উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি জাহাঙ্গীর কবির, সেক্রেটারি জাকির হোসেন জাহাঙ্গীর, পৌর মেয়র ভিপি নিজাম উদ্দিন, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান এইচএম আলী তাহের ইভুসহ নেতারা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদ বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে পর্যায়ক্রমে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন। এরপর ছাত্রলীগের নেতারা বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে ফুল দিতে গিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

এ বিষয়ে ইউএনও এএসএম মোসা জানান, সংঘর্ষের ঘটনা খুবই দুঃখজনক। তিনি বলেন, সিসিটিভি ফুটেজ দেখে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

চাটখিল থানার ওসি আবুল খায়ের ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ব্যাপারে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। সিটিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করা হয়েছে, তা দেখে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ ঘটনায় পৌর এলাকায় ছাত্রলীগ-যুবলীগের মাঝে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণ নিয়ে দুই গ্রুপের সংঘর্ষ

 চাটখিল (নোয়াখালী) প্রতিনিধি 
১৫ আগস্ট ২০২১, ০৭:২৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে স্থাপিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সমর্থকদের মাঝে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

রোববার সকালে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে পুষ্পস্তবক দেওয়াকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সমর্থকদের মাঝে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার সময় উপস্থিত নেতাকর্মী ও প্রশাসনের কর্মকর্তাদের মাঝে চরম আতঙ্কের সৃষ্টি হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী একাধিক নেতাকর্মী জানান, পৌরসভা আওয়ামী লীগ সভাপতি বজলুর রহমান লিটন ও উপজেলা যুবলীগ আহবায়ক বেলায়েত হোসেনের সমর্থক ছাত্রলীগ পুষ্পস্তবক অর্পণ করা নিয়ে নিজেদের মধ্যে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ে। একপর্যায়ে দুই গ্রুপের সমর্থকরা বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে দেওয়া পুষ্পস্তবক ছিনিয়ে নিয়ে ভাংচুর করে। উপজেলা প্রশাসন ও থানা পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

জানা যায়, ইউএনও এএসএম মোসার নেতৃত্বে উপজেলা প্রশাসন, উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি জাহাঙ্গীর কবির, সেক্রেটারি জাকির হোসেন জাহাঙ্গীর, পৌর মেয়র ভিপি নিজাম উদ্দিন, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান এইচএম আলী তাহের ইভুসহ নেতারা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদ বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে পর্যায়ক্রমে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন। এরপর ছাত্রলীগের নেতারা বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে ফুল দিতে গিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

এ বিষয়ে ইউএনও এএসএম মোসা জানান, সংঘর্ষের ঘটনা খুবই দুঃখজনক। তিনি বলেন, সিসিটিভি ফুটেজ দেখে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

চাটখিল থানার ওসি আবুল খায়ের ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ব্যাপারে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। সিটিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করা হয়েছে, তা দেখে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ ঘটনায় পৌর এলাকায় ছাত্রলীগ-যুবলীগের মাঝে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : অশ্রুঝরা আগস্ট

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন