অতিবিপন্ন দুটি বাঁশভাল্লুক লাউয়াছড়ায় অবমুক্ত
jugantor
অতিবিপন্ন দুটি বাঁশভাল্লুক লাউয়াছড়ায় অবমুক্ত

  কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি  

১৭ আগস্ট ২০২১, ১৮:৫৫:৩৩  |  অনলাইন সংস্করণ

অতিবিপন্ন দুটি বাঁশভাল্লুক লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানে অবমুক্ত

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানে অতিবিপন্ন দুটি বাঁশভাল্লুক অবমুক্ত করা হয়েছে। মঙ্গলবার বেলা ১১টায় বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগ এ দুটি প্রাণী অবমুক্ত করে।

জানা যায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বন বিভাগ ও র্যা ব সদস্যরা গত ৪ আগস্ট শ্রীমঙ্গলের বার্ড রিডিং পার্ক জালালিয়া রোড থেকে অতিবিপন্ন প্রজাতির ৪টি প্রাণী উদ্ধার করে। প্রাণীগুলো ছিল দুটি বাঁশভাল্লুক, ১টি খাটো লেজি বানর ও ১টি হিমালয়ান শকুন। উদ্ধারকৃত ৪টি প্রাণীর মধ্যে দুটি বাঁশভাল্লুক মঙ্গলবার সকালে লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানে অবমুক্ত করা হয়। আর খাটো লেজি বানর ও হিমালয়ান শকুন গাজীপুরের বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কে পাঠানো হয়েছে।

দুটি বাঁশভাল্লুক অবমুক্তকালে উপস্থিত ছিলেন- বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের মৌলভীবাজারের বিভাগীয় কর্মকর্তা মো. রেজাউল করিম চৌধুরী, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিসম্পদ বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. মোস্তফা ফিরোজ, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিসম্পদ বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. কামরুল হাসান, বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের লাউয়াছড়া বন রেঞ্জ কর্মকর্তা শহিদুল ইসলাম ও বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনের পরিচালক স্বপন দেব সজল।

বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের মৌলভীবাজারের বিভাগীয় কর্মকর্তা মো. রেজাউল করিম লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানে দুটি বাঁশভাল্লুক অবমুক্ত করার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

অতিবিপন্ন দুটি বাঁশভাল্লুক লাউয়াছড়ায় অবমুক্ত

 কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি 
১৭ আগস্ট ২০২১, ০৬:৫৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
অতিবিপন্ন দুটি বাঁশভাল্লুক লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানে অবমুক্ত
অতিবিপন্ন বাঁশভাল্লুক লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানে অবমুক্ত

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানে অতিবিপন্ন দুটি বাঁশভাল্লুক অবমুক্ত করা হয়েছে। মঙ্গলবার বেলা ১১টায় বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগ এ দুটি প্রাণী অবমুক্ত করে।

জানা যায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বন বিভাগ ও র্যা ব সদস্যরা গত ৪ আগস্ট শ্রীমঙ্গলের বার্ড রিডিং পার্ক জালালিয়া রোড থেকে অতিবিপন্ন প্রজাতির ৪টি প্রাণী উদ্ধার করে। প্রাণীগুলো ছিল দুটি বাঁশভাল্লুক, ১টি খাটো লেজি বানর ও ১টি হিমালয়ান শকুন। উদ্ধারকৃত ৪টি প্রাণীর মধ্যে দুটি বাঁশভাল্লুক মঙ্গলবার সকালে লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানে অবমুক্ত করা হয়। আর খাটো লেজি বানর ও হিমালয়ান শকুন গাজীপুরের বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্কে পাঠানো হয়েছে।

দুটি বাঁশভাল্লুক অবমুক্তকালে উপস্থিত ছিলেন- বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের মৌলভীবাজারের বিভাগীয় কর্মকর্তা মো. রেজাউল করিম চৌধুরী, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিসম্পদ বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ড. মোস্তফা ফিরোজ, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিসম্পদ বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. কামরুল হাসান, বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের লাউয়াছড়া বন রেঞ্জ কর্মকর্তা শহিদুল ইসলাম ও বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনের পরিচালক স্বপন দেব সজল।

বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের মৌলভীবাজারের বিভাগীয় কর্মকর্তা মো. রেজাউল করিম লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানে দুটি বাঁশভাল্লুক অবমুক্ত করার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন