পরকীয়া সন্দেহে যুবককে রাতভর গাছে বেঁধে মারধর, মামলা
jugantor
পরকীয়া সন্দেহে যুবককে রাতভর গাছে বেঁধে মারধর, মামলা

  নাজিরপুর (পিরোজপুর) প্রতিনিধি  

১৮ আগস্ট ২০২১, ১৫:০৪:১২  |  অনলাইন সংস্করণ

পরকীয়ায় যুবককে মারধর

পিরোজপুরের নাজিরপুর উপজেলায় পরকীয়ার অভিযোগের সমীর হালদার (৩৫) নামে এক যুবককে গাছের সঙ্গে বেঁধে রাতভর মারধরের অভিযোগে মামলা হয়েছে।

মঙ্গলবার ভুক্তভোগী সমীর হালদার বাদী হয়ে এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে আটজনকে নামীয় ও আরও ৫-৬ জনকে অজ্ঞাত আসামি করে মামলাটি করা হয়েছে।

গত ৫ আগস্ট রাতে উপজেলার দেউলবাড়ি দোবরা ইউনিয়নের পাকুরিয়া গ্রামের খেয়াঘাটসংলগ্ন স্থানে ঘটনাটি ঘটে। আর ভুক্তভোগী সমীর হালদার উপজেলার শাঁখারিকাঠী ইউনিয়নের উত্তর হোগলাবুনিয়া গ্রামের সুনিল হালদারের ছেলে।

নাজিরপুর থানার ওসি মো. আশ্রাফুজ্জামান জানান, এ বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়ে আইনিব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

দায়ের হওয়া মামলা ও ভুক্তভোগীর দেওয়া তথ্যমতে জানা গেছে, গত ৫ আগস্ট রাতে ওই সমীর হালদার পাওনা ৫০ হাজার ৪৩ হাজার টাকা দিতে দেউলবাড়ি ইউনিয়নের পাকুরিয়া গ্রামে খালা সীমা মল্লিকের বাড়িতে যান। ওই রাতে তিনি সেখানে ঘুমিয়ে পড়লে রাত ১২টার দিকে স্থানীয় শিক্ত সরকারসহ আটজন ও অজ্ঞাত আরও ৫-৬ জন তাকে ওই ঘরের দরজা খুলে পরকীয়ার অভিযোগ করে ডেকে নেয়।

এ সময় তাকে গাছের সঙ্গে বেঁধে রাতভর মারধর ও নির্যাতন করেন। এতে গুরুতর আহত হলে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

বিষয়টি ধামাচাপা দিতে তারা বিভিন্নভাবে ভুক্তভোগীসহ সেই খালার পরিবারকে হুমকি দিচ্ছেন।

এ বিষয়ে জানতে অভিযুক্তদের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তারা পলাতক থাকায় তা সম্ভব হয়নি।

পরকীয়া সন্দেহে যুবককে রাতভর গাছে বেঁধে মারধর, মামলা

 নাজিরপুর (পিরোজপুর) প্রতিনিধি 
১৮ আগস্ট ২০২১, ০৩:০৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
পরকীয়ায় যুবককে মারধর
ফাইল ছবি

পিরোজপুরের নাজিরপুর উপজেলায় পরকীয়ার অভিযোগের সমীর হালদার (৩৫) নামে এক যুবককে গাছের সঙ্গে বেঁধে রাতভর মারধরের অভিযোগে মামলা হয়েছে।

মঙ্গলবার ভুক্তভোগী সমীর হালদার বাদী হয়ে এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে আটজনকে নামীয় ও আরও ৫-৬ জনকে অজ্ঞাত আসামি করে মামলাটি করা হয়েছে।

গত ৫ আগস্ট রাতে উপজেলার দেউলবাড়ি দোবরা ইউনিয়নের পাকুরিয়া গ্রামের খেয়াঘাটসংলগ্ন স্থানে ঘটনাটি ঘটে। আর ভুক্তভোগী সমীর হালদার উপজেলার শাঁখারিকাঠী ইউনিয়নের উত্তর হোগলাবুনিয়া গ্রামের সুনিল হালদারের ছেলে।

নাজিরপুর থানার ওসি মো. আশ্রাফুজ্জামান জানান, এ বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়ে আইনিব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

দায়ের হওয়া মামলা ও ভুক্তভোগীর দেওয়া তথ্যমতে জানা গেছে, গত ৫ আগস্ট রাতে ওই সমীর হালদার পাওনা ৫০ হাজার ৪৩ হাজার টাকা দিতে দেউলবাড়ি ইউনিয়নের পাকুরিয়া গ্রামে খালা সীমা মল্লিকের বাড়িতে যান। ওই রাতে তিনি সেখানে ঘুমিয়ে পড়লে রাত ১২টার দিকে স্থানীয় শিক্ত সরকারসহ আটজন ও অজ্ঞাত আরও ৫-৬ জন তাকে ওই ঘরের দরজা খুলে পরকীয়ার অভিযোগ করে ডেকে নেয়।

এ সময় তাকে গাছের সঙ্গে বেঁধে রাতভর মারধর ও নির্যাতন করেন। এতে গুরুতর আহত হলে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।  

বিষয়টি ধামাচাপা দিতে তারা বিভিন্নভাবে ভুক্তভোগীসহ সেই খালার পরিবারকে হুমকি দিচ্ছেন।

এ বিষয়ে জানতে অভিযুক্তদের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা  হলে তারা পলাতক থাকায় তা সম্ভব হয়নি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন