সৈকতে ভেসে আসছে একের পর এক ডলফিন
jugantor
সৈকতে ভেসে আসছে একের পর এক ডলফিন

  কুয়াকাটা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি  

২১ আগস্ট ২০২১, ২২:৩৫:৩৯  |  অনলাইন সংস্করণ

ডলফিন, কুয়াকাটা

একদিনের ব্যবধানে কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতে আবারও ভেসে এসেছে ৭ ফুট দৈর্ঘ্যের একটি মৃত ইরাবতি ডলফিন। শনিবার দুপুরে সৈকতের জিরো পয়েন্টের পশ্চিম পাশের ব্লকের এই ডলফিনটি পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয়রা।

এর একদিন আগে দু’টি ডলফিনসহ চলতি মাসে কুয়াকাটা সৈকত এলাকা থেকে ৬টি মৃত ডলফিন উদ্ধার করে বালুচাপা দেওয়া হয়।

শনিবার দুপুরে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সর্বশেষ পাওয়া মৃত ডলফিনটির শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন এবং ইলিশ শিকারের জাল জড়ানো ছিল। তাদের মতে, জেলেদের জালে আটকে মারা যাবার পর এসব ডলফিন সাগরে ভাসিয়ে দেয় জেলেরা।

কুয়াকাটা ডলফিন রক্ষা কমিটি জানায়, ২০২০ সাল থেকে কুয়াকাটা সৈকতের বিভিন্ন পয়েন্টে মৃত ভেসে আসে ক্লামবার্ড, পরপয়েস, শুশুকসহ বেশ কয়েক প্রজাতির অন্তত ২৩টি ডলফিন। এছাড়া একইভাবে মৃত ভেসে আসে ৪৫ ফুটলম্বা বেলিন প্রজাতির ২টি তিমি। শরীরে আঘাতের চিহ্ন নিয়ে সৈকতে জীবিত ভেসে আসে বিরল প্রজাতির বিশালাকৃতির কচ্ছপ। উদ্ধার হয় বিরল প্রজাতির রাজ কাঁকড়ার দেহাবশেষ।

এসব জলজপ্রাণীর মুখে জাল জড়ানো এবং শরীরে আঘাতের চিহ্ন নিয়েই কুয়াকাটা সৈকতে ভেসে আসে।

ওয়ার্ল্ড ফিসের সহযোগী গবেষক সাগরিকা স্মৃতি যুগান্তরকে বলেন, সমুদ্রে মাছ শিকারি জেলেদের জালে আটকে কিংবা নৌযানের প্রপেলারের আঘাতে এসব প্রাণী মারা যাচ্ছে। সামুদ্রিক পরিবেশের ভারসাম্যসহ জীববৈচিত্র রক্ষায় জেলেদের সচেতনায় সামাজিক উদ্যোগ গ্রহণের বিকল্প নেই।

কলাপাড়া উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা অপু সাহা বলেন, জালে আটক এসব স্তন্যপায়ী প্রাণীকে আঘাত না করে দ্রুত জীবিত উদ্ধার করে অবমুক্তসহ পানির দূষণ রোধ করতে হবে। এদের রক্ষা করতে না পারলে বড় ধরনের হুমকির মুখে পড়বে সামুদ্রিক জীববৈচিত্র।

পটুয়াখালী জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোল্লা এমদাদুল্যাহ ডলফিন সাগরে মারা যাওয়ায় উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, জেলেসহ স্থানীয়দের সমুদ্রের জলজ সম্পদ রক্ষায় প্রচার-প্রচারণা, প্রশিক্ষণ, উদ্বুদ্ধ করতে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

পটুয়াখালী বিভাগী বন কর্মকর্তা আবদুল্লাহ আল মামুন ডলফিনকে পরিবেশ বান্ধব সামুদ্রিক বন্ধুহিসেবে উল্লেখ করে জানান, কুয়াকাটা সৈকতে ভেসে আসা মৃত প্রাণীদের সংরক্ষণ, গবেষণা এবং কুয়াকাটায় আসা পর্যটকদের উদ্দেশ্যে প্রদর্শনের জন্য যাদুঘর নির্মাণে উদ্যোগ নেওয়ার কথা ভাবছে বনবিভাগ।

সৈকতে ভেসে আসছে একের পর এক ডলফিন

 কুয়াকাটা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি 
২১ আগস্ট ২০২১, ১০:৩৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
ডলফিন, কুয়াকাটা
ফাইল ছবি

একদিনের ব্যবধানে কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতে আবারও ভেসে এসেছে ৭ ফুট  দৈর্ঘ্যের একটি মৃত ইরাবতি ডলফিন। শনিবার দুপুরে সৈকতের জিরো পয়েন্টের পশ্চিম পাশের ব্লকের এই ডলফিনটি পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয়রা।

এর একদিন আগে দু’টি ডলফিনসহ চলতি মাসে কুয়াকাটা সৈকত এলাকা থেকে ৬টি মৃত ডলফিন উদ্ধার করে বালুচাপা দেওয়া হয়।

শনিবার দুপুরে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সর্বশেষ পাওয়া মৃত ডলফিনটির শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন এবং ইলিশ শিকারের জাল জড়ানো ছিল। তাদের মতে, জেলেদের জালে আটকে মারা যাবার পর এসব ডলফিন সাগরে ভাসিয়ে দেয় জেলেরা। 

কুয়াকাটা ডলফিন রক্ষা কমিটি জানায়, ২০২০ সাল থেকে কুয়াকাটা সৈকতের বিভিন্ন পয়েন্টে মৃত ভেসে আসে ক্লামবার্ড, পরপয়েস, শুশুকসহ বেশ কয়েক প্রজাতির অন্তত ২৩টি ডলফিন। এছাড়া একইভাবে মৃত ভেসে আসে ৪৫ ফুট লম্বা বেলিন প্রজাতির ২টি তিমি। শরীরে আঘাতের চিহ্ন নিয়ে সৈকতে জীবিত ভেসে আসে বিরল প্রজাতির বিশালাকৃতির কচ্ছপ। উদ্ধার হয় বিরল প্রজাতির রাজ কাঁকড়ার দেহাবশেষ।

এসব জলজপ্রাণীর মুখে জাল জড়ানো এবং শরীরে আঘাতের চিহ্ন নিয়েই কুয়াকাটা সৈকতে ভেসে আসে।

ওয়ার্ল্ড ফিসের সহযোগী গবেষক সাগরিকা স্মৃতি যুগান্তরকে বলেন, সমুদ্রে মাছ শিকারি জেলেদের জালে আটকে কিংবা নৌযানের প্রপেলারের আঘাতে এসব প্রাণী মারা যাচ্ছে। সামুদ্রিক পরিবেশের ভারসাম্যসহ জীববৈচিত্র রক্ষায় জেলেদের সচেতনায় সামাজিক উদ্যোগ গ্রহণের বিকল্প নেই।

কলাপাড়া উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা অপু সাহা বলেন, জালে আটক এসব স্তন্যপায়ী প্রাণীকে আঘাত না করে দ্রুত জীবিত উদ্ধার করে অবমুক্তসহ পানির দূষণ রোধ করতে হবে। এদের রক্ষা করতে না পারলে বড় ধরনের হুমকির মুখে পড়বে সামুদ্রিক জীববৈচিত্র। 

পটুয়াখালী জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোল্লা এমদাদুল্যাহ ডলফিন সাগরে মারা যাওয়ায় উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, জেলেসহ স্থানীয়দের সমুদ্রের জলজ সম্পদ রক্ষায় প্রচার-প্রচারণা, প্রশিক্ষণ, উদ্বুদ্ধ করতে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। 

পটুয়াখালী বিভাগী বন কর্মকর্তা আবদুল্লাহ আল মামুন ডলফিনকে পরিবেশ বান্ধব সামুদ্রিক বন্ধু হিসেবে উল্লেখ করে জানান, কুয়াকাটা সৈকতে ভেসে আসা মৃত প্রাণীদের সংরক্ষণ, গবেষণা এবং কুয়াকাটায় আসা পর্যটকদের উদ্দেশ্যে প্রদর্শনের জন্য যাদুঘর নির্মাণে উদ্যোগ নেওয়ার কথা ভাবছে বনবিভাগ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন