পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে খুন হলেন যুবক
jugantor
পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে খুন হলেন যুবক

  নড়াইল প্রতিনিধি  

২৩ আগস্ট ২০২১, ২১:০০:৫৭  |  অনলাইন সংস্করণ

নড়াইলে সৈয়দ আলী শেখ (১৮) নামে এক যুবক পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে খুন হয়েছেন। শনিবার রাত ৮টার দিকে নাসির শেখের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে ঢাকায় নেয়ার পথে রোববার সন্ধ্যা পৌনে ৭টার দিকে তিনি মারা যান।

সৈয়দ আলী শেখ নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার নলদী ইউনিয়নের হলদাহ গ্রামের আজিজার শেখের ছেলে। এ ঘটনায় পুলিশ দুইজনকে আটক করেছে।

স্থানীয় ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, সৈয়দ আলী লোহাগড়া উপজেলার লাহুড়িয়া ইউনিয়নের কামারগ্রামের নাসির শেখের বাড়িতে দিনমজুরের কাজ করতেন। সৈয়দ আলীর মজুরির এক হাজার পাওনা টাকা চাইতে শনিবার রাত ৮টার দিকে নাসির শেখের বাড়িতে যান। তার নিকট পাওনা টাকা চাইলে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়।

এক পর্যায়ে নাজমুলের পরিবারের লোকজন সৈয়দ আলীকে দা দিয়ে এলোপাথাড়ি কুপিয়ে এবং লাঠি দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর রক্তাক্ত জখম করে। এ সময় তাকে ঠেকাতে গিয়ে উপজেলার কামারগ্রামের তিনজন পথচারী আহত হয়। আহতদের লোহাগড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

পরবর্তীতে সৈয়দ আলীর অবস্থার অবনতি হলে সৈয়দ আলীকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার অবস্থার আরও অবনতি হলে ঢাকায় নেয়ার পথে রোববার সন্ধ্যা পৌনে ৭টার তার মৃত্যু হয়।

লোহাগড়া থানা ওসি শেখ আবু হেনা মিলন জানান, ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এ ব্যাপারে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে খুন হলেন যুবক

 নড়াইল প্রতিনিধি 
২৩ আগস্ট ২০২১, ০৯:০০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নড়াইলে সৈয়দ আলী শেখ (১৮) নামে এক যুবক পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে খুন হয়েছেন। শনিবার রাত ৮টার দিকে নাসির শেখের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে ঢাকায় নেয়ার পথে রোববার সন্ধ্যা পৌনে ৭টার দিকে তিনি মারা যান।

সৈয়দ আলী শেখ নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার নলদী ইউনিয়নের হলদাহ গ্রামের আজিজার শেখের ছেলে। এ ঘটনায় পুলিশ দুইজনকে আটক করেছে।

স্থানীয় ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, সৈয়দ আলী লোহাগড়া উপজেলার লাহুড়িয়া ইউনিয়নের কামারগ্রামের নাসির শেখের বাড়িতে দিনমজুরের কাজ করতেন। সৈয়দ আলীর মজুরির এক হাজার পাওনা টাকা চাইতে শনিবার রাত ৮টার দিকে নাসির শেখের বাড়িতে যান। তার নিকট পাওনা টাকা চাইলে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়।

এক পর্যায়ে নাজমুলের পরিবারের লোকজন সৈয়দ আলীকে দা দিয়ে এলোপাথাড়ি কুপিয়ে এবং লাঠি দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর রক্তাক্ত জখম করে। এ সময় তাকে ঠেকাতে গিয়ে উপজেলার কামারগ্রামের তিনজন পথচারী আহত হয়। আহতদের লোহাগড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

পরবর্তীতে সৈয়দ আলীর অবস্থার অবনতি হলে সৈয়দ আলীকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার অবস্থার আরও অবনতি হলে ঢাকায় নেয়ার পথে রোববার সন্ধ্যা পৌনে ৭টার তার মৃত্যু হয়।

লোহাগড়া থানা ওসি শেখ আবু হেনা মিলন জানান, ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এ ব্যাপারে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন