দুই বাস-প্রাইভেটকারের ত্রিমুখী সংঘর্ষ, নিহত ১
jugantor
দুই বাস-প্রাইভেটকারের ত্রিমুখী সংঘর্ষ, নিহত ১

  বরিশাল ব্যুরো ও গৌরনদী প্রতিনিধি  

২৪ আগস্ট ২০২১, ১৭:৩৩:৩২  |  অনলাইন সংস্করণ

বরিশালের গৌরনদীতে যাত্রীবাহী দুই বাস এবং একটি প্রাইভেটকারের মধ্যে ত্রিমুখী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে বিআরটিসির বাসচালক মো. মুকুল (৪০) নিহতসহ ২৫ জন আহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার দুপুর সোয়া ১২টার দিকে উপজেলার বার্থী গ্রামের গাইনেরপাড় নামক স্থানে ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। দুর্ঘটনাস্থলে মহাসড়কের উপর দুর্ঘটনাকবলিত ২টি বাস ও ১টি প্রাইভেটকার পড়ে থাকলে বরিশালসহ দক্ষিণাঞ্চলের সঙ্গে সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়।

বরিশাল থেকে রেকার এনে দুর্ঘটনাকবলিত যান তিনটি মহাসড়কের উপর থেকে সরিয়ে ফেললে বিকাল সোয়া ৩টার দিকে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় ৯ জনকে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ও ২ জনকে গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মাওয়া থেকে বিএমএফ পরিবহনের ব্যানারে নায়ন নামের একটি যাত্রীবাহী বাস বরিশালের দিকে যাচ্ছিল। অপরদিকে বরিশাল থেকে বিআরটিসি পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস পাবনার উদ্দেশে যাচ্ছিল। পথিমধ্যে গৌরনদী উপজেলার বার্থী গ্রামের গাইনেরপাড় নামক স্থান অতিক্রমকালে ওই দুটি বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এ সময় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ঢাকাগামী একটি প্রাইভেটকার দুর্ঘটনা কবলিত বিআরটিসি বাসের পেছনে ঢুকে যায়।

দুর্ঘটনায় দুটি বাস এবং প্রাইভেটকারের সম্মুখভাগ বিধ্বস্ত হয়। সংঘর্ষে বিআরটিসির বাসচালক মো. মুকুল (৪০) নিহত হন। এছাড়াবিএমএফ পরিবহনের বাসচালক মো. আসলাম (৪৫), যাত্রী ঝুমা (২৮), ডা. সঞ্জয় (৩৫), তামান্না (২৯), আ. রহিম (৪৫), হুমায়ন কবির (৭৫), সুলতানাসহ (৬০) অন্তত ২৬ জন আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে গুরুতর আহত ৯ জনকে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেলে কলেজ হাসপাতলে নেওয়া হয়।

অপর ৯ জনকে শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শেবাচিম হাসপাতালের জরুরি বিভাগের মেডিকেল অফিসার মো. মনিরুজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে দুর্ঘটনাস্থলে মহাসড়কের উপর দুর্ঘটনাকবলিত ২টি বাস ও ১টি প্রাইভেটকার পড়ে থাকলে বরিশালসহ দক্ষিণাঞ্চলের সঙ্গে সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়। ফলে ঘটনাস্থলের উভয় দিকে আড়াই শতাধিক যানবাহন আটকা পড়ে কয়েক হাজার যাত্রী চরম দুর্ভোগের শিকার হন।

গৌরনদী হাইওয়ে থানার ওসি মনিরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, বরিশাল থেকে রেকার এনে মহাসড়কের উপর থেকে দুর্ঘটনাকবলিত যান তিনটি সরানো হলে বিকাল সোয়া ৩টার দিকে মহাসড়কে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হয়। দুর্ঘটনাকবলিত ২টি বাস ও ১টি প্রাইভেটকার জব্দ করা হয়েছে।

দুই বাস-প্রাইভেটকারের ত্রিমুখী সংঘর্ষ, নিহত ১

 বরিশাল ব্যুরো ও গৌরনদী প্রতিনিধি 
২৪ আগস্ট ২০২১, ০৫:৩৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বরিশালের গৌরনদীতে যাত্রীবাহী দুই বাস এবং একটি প্রাইভেটকারের মধ্যে ত্রিমুখী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে বিআরটিসির বাসচালক মো. মুকুল (৪০) নিহতসহ ২৫ জন আহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার দুপুর সোয়া ১২টার দিকে উপজেলার বার্থী গ্রামের গাইনেরপাড় নামক স্থানে ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। দুর্ঘটনাস্থলে মহাসড়কের উপর দুর্ঘটনাকবলিত ২টি বাস ও ১টি প্রাইভেটকার পড়ে থাকলে বরিশালসহ দক্ষিণাঞ্চলের সঙ্গে সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়। 

বরিশাল থেকে রেকার এনে দুর্ঘটনাকবলিত যান তিনটি মহাসড়কের উপর থেকে সরিয়ে ফেললে বিকাল সোয়া ৩টার দিকে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় ৯ জনকে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ও ২ জনকে গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মাওয়া থেকে বিএমএফ পরিবহনের ব্যানারে নায়ন নামের একটি যাত্রীবাহী বাস বরিশালের দিকে যাচ্ছিল। অপরদিকে বরিশাল থেকে বিআরটিসি পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস পাবনার উদ্দেশে যাচ্ছিল। পথিমধ্যে গৌরনদী উপজেলার বার্থী গ্রামের গাইনেরপাড় নামক স্থান অতিক্রমকালে ওই দুটি বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এ সময় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ঢাকাগামী একটি প্রাইভেটকার দুর্ঘটনা কবলিত বিআরটিসি বাসের পেছনে ঢুকে যায়। 

দুর্ঘটনায় দুটি বাস এবং প্রাইভেটকারের সম্মুখভাগ বিধ্বস্ত হয়। সংঘর্ষে বিআরটিসির বাসচালক মো. মুকুল (৪০) নিহত হন। এছাড়া বিএমএফ পরিবহনের বাসচালক মো. আসলাম (৪৫), যাত্রী ঝুমা (২৮), ডা. সঞ্জয় (৩৫), তামান্না (২৯), আ. রহিম (৪৫), হুমায়ন কবির (৭৫), সুলতানাসহ (৬০) অন্তত ২৬ জন আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে গুরুতর আহত ৯ জনকে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেলে কলেজ হাসপাতলে নেওয়া হয়। 

অপর ৯ জনকে শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শেবাচিম হাসপাতালের জরুরি বিভাগের মেডিকেল অফিসার মো. মনিরুজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে দুর্ঘটনাস্থলে মহাসড়কের উপর দুর্ঘটনাকবলিত ২টি বাস ও ১টি প্রাইভেটকার পড়ে থাকলে বরিশালসহ দক্ষিণাঞ্চলের সঙ্গে সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়। ফলে ঘটনাস্থলের উভয় দিকে আড়াই শতাধিক যানবাহন আটকা পড়ে কয়েক হাজার যাত্রী চরম দুর্ভোগের শিকার হন।

গৌরনদী হাইওয়ে থানার ওসি মনিরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, বরিশাল থেকে রেকার এনে মহাসড়কের উপর থেকে দুর্ঘটনাকবলিত যান তিনটি সরানো হলে বিকাল সোয়া ৩টার দিকে মহাসড়কে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হয়। দুর্ঘটনাকবলিত ২টি বাস ও ১টি প্রাইভেটকার জব্দ করা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : সড়কে মৃত্যুর মিছিল

১৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন