দুই নারীর কথাকাটাকাটি, অতঃপর...
jugantor
দুই নারীর কথাকাটাকাটি, অতঃপর...

  যুগান্তর প্রতিবেদন, মানিকগঞ্জ  

২৫ আগস্ট ২০২১, ২০:৪২:৫১  |  অনলাইন সংস্করণ

মানিকগঞ্জে দুই নারী প্রতিবেশীর কথাকাটাকাটির জের ধরে বখাটে যুবকদের দিয়ে প্রতিপক্ষের বাড়িতে হামলা চালিয়ে মারধর ও টাকা-পয়সা লুট করে নিয়ে গেছে একপক্ষের লোকজন। মঙ্গলবার রাতে পৌর এলাকার নারাঙ্গাই মহল্লায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বুধবার সকালে থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী এক নারী।

সদর থানায় দায়ের করা ভুক্তভোগী পরিবারের অভিযোগ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার বিকাল ৫টার দিকে নারাঙ্গাই মহল্লায় রিনা বেগম এবং মেঘলা আক্তার নামের দুই নারী প্রতিবেশীর মধ্যে তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে কথাকাটাকাটি ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। মেঘলা আক্তারের স্বামী আবু বক্কর রিনা বেগমের ওপর চড়াও হন। এরপর রাত ৮টার দিকে আবু বক্কর ১০-১২ জন বখাটে যুবক নিয়ে ওই নারীর বাড়িতে হামলা করেন। এ সময় বাড়িতে শুধু রিনা বেগম ও তার কিশোরী মেয়ে (সুমাইয়া আক্তার) ছিলেন।

বখাটে যুবকেরা লোহার রড ও লাঠিসোটা দিয়ে ঘরের ভেতর টেলিভিশন ও বিভিন্ন আসবাব ভাঙচুর করে। এ সময় রিনা বেগম বাধা দিলে তাকে মারধর করতে থাকে। তার কিশোরী মেয়ে এগিয়ে আসলে ওই যুবকেরা তাকে শ্লীলতাহানি ও মারধর করে।

একপর্যায়ে ওয়্যারড্রপে (কাঠের আলমারি) থাকা এক লাখ টাকা হাতিয়ে নেয় হামলাকারীরা। ভুক্তভোগীদের ডাকচিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসলে হামলাকারীরা চলে যায়। পরে বিষয়টি থানায় অবহিত করলে রাতে ঘটনাস্থলে পুলিশ আসে। এ ঘটনায় আহত রিনা বেগম ও তার মেয়েকে জেলা সদর হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

এ ঘটনায় বুধবার সকালে রিনা বেগম বাদী হয়ে আবু বক্কর সিদ্দিক ও মেঘলাসহ ১০ জনকে আসামি করে থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। রিনা বেগম বলেন, তার দেবর আনোয়ার হোসেন পরিবহনের ব্যবসা করেন। বাসের কিস্তি বাবদ দেওয়া এক লাখ টাকা তার কাছে রেখে দিয়েছিলেন। হামলাকারীরা সেই টাকা লুট করে নিয়ে গেছে। এ ঘটনার পর আবারো তাদের মারধরের হুমকি দেওয়া হচ্ছে বলে তিনি অভিযোগ করেন।

অভিযোগের বিষয়ে বুধবার দুপুরে আবু বক্করের সঙ্গে কথা বলতে বাড়িতে গিয়ে কাউকে পাওয়া যায়নি। তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোন নম্বরে একাধিকবার কল করা হলেও তা বন্ধ পাওয়া গেছে।

এ ব্যাপারে সদর থানার ওসি আকবর আলী খান বলেন, খবর পেয়ে রাতেই ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। বিষয়টি তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

দুই নারীর কথাকাটাকাটি, অতঃপর...

 যুগান্তর প্রতিবেদন, মানিকগঞ্জ 
২৫ আগস্ট ২০২১, ০৮:৪২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মানিকগঞ্জে দুই নারী প্রতিবেশীর কথাকাটাকাটির জের ধরে বখাটে যুবকদের দিয়ে প্রতিপক্ষের বাড়িতে হামলা চালিয়ে মারধর ও টাকা-পয়সা লুট করে নিয়ে গেছে একপক্ষের লোকজন। মঙ্গলবার রাতে পৌর এলাকার নারাঙ্গাই মহল্লায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বুধবার সকালে থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী এক নারী।

সদর থানায় দায়ের করা ভুক্তভোগী পরিবারের অভিযোগ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার বিকাল ৫টার দিকে নারাঙ্গাই মহল্লায় রিনা বেগম এবং মেঘলা আক্তার নামের দুই নারী প্রতিবেশীর মধ্যে তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে কথাকাটাকাটি ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। মেঘলা আক্তারের স্বামী আবু বক্কর রিনা বেগমের ওপর চড়াও হন। এরপর রাত ৮টার দিকে আবু বক্কর ১০-১২ জন বখাটে যুবক নিয়ে ওই নারীর বাড়িতে হামলা করেন। এ সময় বাড়িতে শুধু রিনা বেগম ও তার কিশোরী মেয়ে (সুমাইয়া আক্তার) ছিলেন।

বখাটে যুবকেরা লোহার রড ও লাঠিসোটা দিয়ে ঘরের ভেতর টেলিভিশন ও বিভিন্ন আসবাব ভাঙচুর করে। এ সময় রিনা বেগম বাধা দিলে তাকে মারধর করতে থাকে। তার কিশোরী মেয়ে এগিয়ে আসলে ওই যুবকেরা তাকে শ্লীলতাহানি ও মারধর করে।

একপর্যায়ে ওয়্যারড্রপে (কাঠের আলমারি) থাকা এক লাখ টাকা হাতিয়ে নেয় হামলাকারীরা। ভুক্তভোগীদের ডাকচিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসলে হামলাকারীরা চলে যায়। পরে বিষয়টি থানায় অবহিত করলে রাতে ঘটনাস্থলে পুলিশ আসে। এ ঘটনায় আহত রিনা বেগম ও তার মেয়েকে জেলা সদর হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

এ ঘটনায় বুধবার সকালে রিনা বেগম বাদী হয়ে আবু বক্কর সিদ্দিক ও মেঘলাসহ ১০ জনকে আসামি করে থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। রিনা বেগম বলেন, তার দেবর আনোয়ার হোসেন পরিবহনের ব্যবসা করেন। বাসের কিস্তি বাবদ দেওয়া এক লাখ টাকা তার কাছে রেখে দিয়েছিলেন। হামলাকারীরা সেই টাকা লুট করে নিয়ে গেছে। এ ঘটনার পর আবারো তাদের মারধরের হুমকি দেওয়া হচ্ছে বলে তিনি অভিযোগ করেন।

অভিযোগের বিষয়ে বুধবার দুপুরে আবু বক্করের সঙ্গে কথা বলতে বাড়িতে গিয়ে কাউকে পাওয়া যায়নি। তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোন নম্বরে একাধিকবার কল করা হলেও তা বন্ধ পাওয়া গেছে।

এ ব্যাপারে সদর থানার ওসি আকবর আলী খান বলেন, খবর পেয়ে রাতেই ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। বিষয়টি তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন