সিলিংফ্যানে সংযোগ দিতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পর্শে কলেজছাত্রের মৃত্যু
jugantor
সিলিংফ্যানে সংযোগ দিতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পর্শে কলেজছাত্রের মৃত্যু

  নাজিরপুর (পিরোজপুর) প্রতিনিধি  

২৬ আগস্ট ২০২১, ১৫:০৫:২৩  |  অনলাইন সংস্করণ

বিদ্যুৎস্পর্শ

পিরোজপুরের নাজিরপুর উপজেলায় সিলিংফ্যানে সংযোগ দিতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পর্শে অরূপ মিস্ত্রি (১৮) নামে এক কলেজছাত্রের মৃত্যু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার উপজেলার শ্রীরামকাঠী ইউনিয়নের বন্দরসংলগ্ন বেকারি মোড় এলাকার নিজ ঘরে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত অরূপ মিস্ত্রি একই এলাকার মৃত ইন্দু ভূষণ মিস্ত্রির ছেলে ও নাজিরপুর ডিগ্রি কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র।

নিহতের স্বজন ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সকাল সাড়ে ১০টার দিকে তিনি নিজ ঘরের সিলিংফ্যানে সংযোগ দেওয়ার সময় বিদ্যুৎস্পর্শে আহত হন। পরে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত্যু বলে ঘোষণা করেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক অশেষ প্রতীম রায় ও ডা. অতনু মিত্র জানান, তাকে মৃত্যু অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়েছিল।

ওই কালেজছাত্রকে হাসপাতালে নিয়ে আসা প্রতিবেশী মো. লিটন শেখ জানান, ওই কলেজছাত্রের মা অঞ্জলী রানীর চিৎকার শুনতে পেয়ে তাদের ঘরে যাই। পরে বিদ্যুৎস্পর্শে ঘরের মেঝেতে কলেজছাত্রকে অচেতন অবস্থায় দেখতে পাই। এ সময় স্থানীয়দের সহযোগিতায় তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত্যু বলে ঘোষণা করেন।

সিলিংফ্যানে সংযোগ দিতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পর্শে কলেজছাত্রের মৃত্যু

 নাজিরপুর (পিরোজপুর) প্রতিনিধি 
২৬ আগস্ট ২০২১, ০৩:০৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
বিদ্যুৎস্পর্শ
ফাইল ছবি

পিরোজপুরের নাজিরপুর উপজেলায় সিলিংফ্যানে সংযোগ দিতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পর্শে অরূপ মিস্ত্রি (১৮) নামে এক কলেজছাত্রের মৃত্যু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার উপজেলার শ্রীরামকাঠী ইউনিয়নের বন্দরসংলগ্ন বেকারি মোড় এলাকার নিজ ঘরে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত অরূপ মিস্ত্রি একই এলাকার মৃত ইন্দু ভূষণ মিস্ত্রির ছেলে ও নাজিরপুর ডিগ্রি কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র।

নিহতের স্বজন ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সকাল সাড়ে ১০টার দিকে তিনি নিজ ঘরের সিলিংফ্যানে সংযোগ দেওয়ার সময় বিদ্যুৎস্পর্শে আহত হন। পরে তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত্যু বলে ঘোষণা করেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক অশেষ প্রতীম রায় ও ডা. অতনু মিত্র জানান, তাকে মৃত্যু অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়েছিল।

ওই কালেজছাত্রকে হাসপাতালে নিয়ে আসা প্রতিবেশী মো. লিটন শেখ জানান, ওই কলেজছাত্রের মা অঞ্জলী রানীর চিৎকার শুনতে পেয়ে তাদের ঘরে যাই। পরে বিদ্যুৎস্পর্শে ঘরের মেঝেতে কলেজছাত্রকে অচেতন অবস্থায় দেখতে পাই। এ সময় স্থানীয়দের সহযোগিতায় তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত্যু বলে ঘোষণা করেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন