নিখোঁজ মাঝি, রক্তমাখা নৌকা উদ্ধার
jugantor
নিখোঁজ মাঝি, রক্তমাখা নৌকা উদ্ধার

  সিংড়া (নাটোর) প্রতিনিধি  

২৭ আগস্ট ২০২১, ২২:২০:১৩  |  অনলাইন সংস্করণ

নাটোরের সিংড়ায় নৌকাসহ নিখোঁজ হওয়ার ২৪ ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও নৌকার মাঝি আরজুর (২৯) সন্ধান পাওয়া যায়নি। এদিকে পার্শ্ববর্তী গুরুদাসপুর উপজেলার আত্রাই নদীর হরদমা এলাকা থেকে নৌকাটি উদ্ধার করা হয়। তবে উদ্ধারকৃত নৌকায় রক্তের দাগ রয়েছে বলে জানায় পুলিশ।

নিখোঁজ নৌকার মাঝি আরজু উপজেলার চামারী ইউনিয়নের আনন্দনগর গ্রামের মো. কদম আলীর ছেলে বলে জানা গেছে।

চামারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. রশিদুল ইসলাম জানান, বৃহস্পতিবার বিকালে বিলদহর ঘাট থেকে যাত্রীসহ নৌকা নিয়ে চলনবিলে বেড়ানোর উদ্দেশ্যে বের হন আরজু মিয়া। রাতে বাড়ি না ফেরায় স্বজনরা খোঁজাখুঁজি শুরু করেন।

শুক্রবার দুপুর ২টার দিকে গুরুদাসপুর উপজেলার হরদমা এলাকায় আত্রাই নদী থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় নৌকাটির সন্ধান পাওয়া যায়। তবে নৌকার মাঝি আরজু মিয়াকে এখনো খুঁজে পাওয়া যায়নি। আর নৌকায় রক্তের দাগ রয়েছে বলে জানান তিনি।

নিখোঁজ আরজুর স্ত্রী জানান, বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে মোবাইল ফোনে কথা হয়। এরপর ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

সিংড়া থানার পুলিশ পরিদর্শক ওসি তদন্ত রফিকুল ইসলাম বলেন, নৌকা উদ্ধার হয়েছে। তবে নৌকায় রক্তের দাগ রয়েছে। আর নিখোঁজ মাঝিকে খোঁজা হচ্ছে।

নিখোঁজ মাঝি, রক্তমাখা নৌকা উদ্ধার

 সিংড়া (নাটোর) প্রতিনিধি 
২৭ আগস্ট ২০২১, ১০:২০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নাটোরের সিংড়ায় নৌকাসহ নিখোঁজ হওয়ার ২৪ ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও নৌকার মাঝি আরজুর (২৯) সন্ধান পাওয়া যায়নি। এদিকে পার্শ্ববর্তী গুরুদাসপুর উপজেলার আত্রাই নদীর হরদমা এলাকা থেকে নৌকাটি উদ্ধার করা হয়। তবে উদ্ধারকৃত নৌকায় রক্তের দাগ রয়েছে বলে জানায় পুলিশ। 

নিখোঁজ নৌকার মাঝি আরজু উপজেলার চামারী ইউনিয়নের আনন্দনগর গ্রামের মো. কদম আলীর ছেলে বলে জানা গেছে। 

চামারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. রশিদুল ইসলাম জানান, বৃহস্পতিবার বিকালে বিলদহর ঘাট থেকে যাত্রীসহ নৌকা নিয়ে চলনবিলে বেড়ানোর উদ্দেশ্যে বের হন আরজু মিয়া। রাতে বাড়ি না ফেরায় স্বজনরা খোঁজাখুঁজি শুরু করেন।

শুক্রবার দুপুর ২টার দিকে গুরুদাসপুর উপজেলার হরদমা এলাকায় আত্রাই নদী থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় নৌকাটির সন্ধান পাওয়া যায়। তবে নৌকার মাঝি আরজু মিয়াকে এখনো খুঁজে পাওয়া যায়নি। আর নৌকায় রক্তের দাগ রয়েছে বলে জানান তিনি। 

নিখোঁজ আরজুর স্ত্রী জানান, বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে মোবাইল ফোনে কথা হয়। এরপর ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

সিংড়া থানার পুলিশ পরিদর্শক ওসি তদন্ত রফিকুল ইসলাম বলেন, নৌকা উদ্ধার হয়েছে। তবে নৌকায় রক্তের দাগ রয়েছে। আর নিখোঁজ মাঝিকে খোঁজা হচ্ছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন