রাস্তার পাশে আ.লীগ নেতার লাশ
jugantor
রাস্তার পাশে আ.লীগ নেতার লাশ

  ডামুড্যা (শরীয়তপুর) প্রতিনিধি  

২৮ আগস্ট ২০২১, ২২:৩১:৪৮  |  অনলাইন সংস্করণ

শরীয়তপুরের ডামুড্যায় রাস্তার পাশ থেকে মো. আব্দুল আহাদ সরদার (৫৫) নামে এক আওয়ামী লীগ নেতার লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার ভোর ৬টার দিকে উপজেলার ইসলামপুর ইউনিয়ন থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

নিহত আব্দুল আহাদ সরদার ইসলামপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। তিনি ৯নং ওয়ার্ডের সাবেক মালগাঁও গ্রামের মৃত রশিদ সরদারের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শনিবার ভোর ৬টার দিকে বাড়ি থেকে ৩ কিলোমিটার দূরে রাস্তার পাশে একটি দোকানের সামনে তার লাশ পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয়রা। এ সময় স্থানীয়রা পরিবারের সদস্যদের খবর দিলে তারা এসে লাশটি বাড়িতে নিয়ে যান।

এ সময় স্থানীয় মুদি দোকানদার আক্কাস বলেন, আমি সকালে দোকান খুলতে এসে দেখি দোকানের সামনে অনেক লোকের ভিড়। সামনে গিয়ে দেখি আহাদ ভাইয়ের নিথর দেহ পড়ে আছে।

মৃত আব্দুল আহাদ সরদারের স্ত্রী জোসনা বেগম (৫০) বলেন, আমার স্বামীরে কারা জানি মাইরা হালাইছে, আমার স্বামী রাতে আমার সঙ্গে ঘুমাইয়া ছিল। সে আমারে কিছু বইলা যায় নাই, আমি ঘুমাইয়া ছিলাম। সকালে ঘুম থেকে উঠে দেখি আমার স্বামী ঘরে নাই। বাহির থেকে দরজা বন্ধ। এরপর অন্য দরজা দিয়ে বের হয়ে অজু করে নামাজ পড়ি। এরপর কে জানি আমারে খবর দিল, আমি তাড়াতাড়ি গেলাম। গিয়ে দেখি আমার স্বামীর নিথর দেহটি পড়ে আছে, আমি এর বিচার চাই।

ডামুড্যা থানার ওসি শরীফ আহমেদ বলেন, আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। পরিবারের কেউ অভিযোগ না দেওয়ার কারণে এখনো মামলা হয়নি।

রাস্তার পাশে আ.লীগ নেতার লাশ

 ডামুড্যা (শরীয়তপুর) প্রতিনিধি 
২৮ আগস্ট ২০২১, ১০:৩১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

শরীয়তপুরের ডামুড্যায় রাস্তার পাশ থেকে মো. আব্দুল আহাদ সরদার (৫৫) নামে এক আওয়ামী লীগ নেতার লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শনিবার ভোর ৬টার দিকে উপজেলার ইসলামপুর ইউনিয়ন থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। 

নিহত আব্দুল আহাদ সরদার ইসলামপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। তিনি ৯নং ওয়ার্ডের সাবেক মালগাঁও গ্রামের মৃত রশিদ সরদারের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শনিবার ভোর ৬টার দিকে বাড়ি থেকে ৩ কিলোমিটার দূরে রাস্তার পাশে একটি দোকানের সামনে তার লাশ পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয়রা। এ সময় স্থানীয়রা পরিবারের সদস্যদের খবর দিলে তারা এসে লাশটি বাড়িতে নিয়ে যান।

এ সময় স্থানীয় মুদি দোকানদার আক্কাস বলেন, আমি সকালে দোকান খুলতে এসে দেখি দোকানের সামনে অনেক লোকের ভিড়। সামনে গিয়ে দেখি আহাদ ভাইয়ের নিথর দেহ পড়ে আছে।

মৃত আব্দুল আহাদ সরদারের স্ত্রী জোসনা বেগম (৫০) বলেন, আমার স্বামীরে কারা জানি মাইরা হালাইছে, আমার স্বামী রাতে আমার সঙ্গে ঘুমাইয়া ছিল। সে আমারে কিছু বইলা যায় নাই, আমি ঘুমাইয়া ছিলাম। সকালে ঘুম থেকে উঠে দেখি আমার স্বামী ঘরে নাই। বাহির থেকে দরজা বন্ধ। এরপর অন্য দরজা দিয়ে বের হয়ে অজু করে নামাজ পড়ি। এরপর কে জানি আমারে খবর দিল, আমি তাড়াতাড়ি গেলাম। গিয়ে দেখি আমার স্বামীর নিথর দেহটি পড়ে আছে, আমি এর বিচার চাই।

ডামুড্যা থানার ওসি শরীফ আহমেদ বলেন, আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। পরিবারের কেউ অভিযোগ না দেওয়ার কারণে এখনো মামলা হয়নি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন