দিনাজপুরে পাশের হার কমেছে, জিপিএ-৫ বেড়েছে

  দিনাজপুর প্রতিনিধি ০৬ মে ২০১৮, ১৯:১৬ | অনলাইন সংস্করণ

এসএসসি

দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ডের এসএসসি পরীক্ষায় এবার পাশের হার কমলেও বেড়েছে জিপিএ-৫ প্রাপ্তদের সংখ্যা। এবার এই বোর্ডের পাশের হার ৭৭.৬২ শতাংশ ও জিপিএ-৫ পেয়েছে ১০ হাজার ৭৫৫ জন শিক্ষার্থী।

দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক তোফাজ্জুর রহমান জানান, চলতি বছরে দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ডের ৮টি জেলার মোট ২ হাজার ৬১৯ টি প্রতিষ্ঠানের ১ লাখ ৮৭ হাজার ৬৩৮ জন শিক্ষার্থী ২৬০টি কেন্দ্রে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে।

এর মধ্যে ১ লাখ ৪৪ হাজার ৮৭৬ জন পাশ করে। মোট পাশের হার ৭৭ দশমিক ৬২ শতাংশ।

গত বছরে এই শিক্ষাবোর্ডের এসএসসি পরীক্ষায় পাশের হার ছিল ৮৩ দশমিক ৯৮ শতাংশ।

তবে পাশের হার কম হলেও বেড়েছে জিপিএ-৫ প্রাপ্তদের সংখ্যা। এবার এই বোর্ড থেকে ১০ হাজার ৭৫৫ জন পরীক্ষার্থী জিপিএ-৫ পেয়েছে। গত বছরে এর সংখ্যা ছিল ৬ হাজার ৯২৯ জন।

শিক্ষাবোর্ডের প্রাপ্ত ফলাফল থেকে জানা যায়, এবার এই শিক্ষাবোর্ডের ফলাফলে যেমন কমেছে শতভাগ পাশকৃত বিদ্যালয়ের সংখ্যা তেমনিভাবে বেড়েছে একজনও পাশ করেনি এমন বিদ্যালয়ের সংখ্যা। শতভাগ পাশকৃত বিদ্যালয়ের সংখ্যা ৮৪টি। আর একজনও পাশ করেনি এমন বিদ্যালয়ের সংখ্যা ৫টি।

গতবছর শতভাগ পাশ করে ১৬৬টি বিদ্যালয় থেকে। আর একজনও পাশ করেনি একটি বিদ্যালয় থেকে। এবার যে ৫টি বিদ্যালয় থেকে একজনও পাশ করেনি, সেই বিদ্যালয়গুলো হলো- দিনাজপুর জেলার খানসামা উপজেলার নলবাড়ী গার্লস হাই স্কুল, গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার সারবানাদা গার্লস হাই স্কুল, একই জেলার পলাশবাড়ী উপজেলার থুটিয়াপুকুর গার্লস হাই স্কুল, লালমনিরহাট জেলার আদিতমারী উপজেলার ভাদাই দক্ষিণ পাড়া উচ্চ বিদ্যালয় ও পঞ্চগড় জেলার দেবীগঞ্জ উপজেলার লক্ষ্মীরহাট উচ্চ বিদ্যালয়।

দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডের অধীনে ৮টি জেলার মধ্যে সার্বিক ফলাফল বিবেচনায় প্রথম স্থানে রয়েছে রংপুর জেলা। এই জেলায় পাশের হার ৮২ দশমিক ০৮ শতাংশ, আর জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩ হাজার ১২০ জন। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে গাইবান্ধা জেলা। এই জেলার পাশের হার ৮০ দশমিক ৯৫ শতাংশ জিপিএ-৫ পেয়েছে ১ হাজার ৩৪৩ জন। ৭৮ দশমিক ৪৮ শতাংশ পাশের হার ও ১ হাজার ২০৬ জন জিপিএ-৫ পেয়ে তৃতীয় স্থানে রয়েছে নীলফামারী জেলা।

৭৮ দশমিক ২১ শতাশ পাশের হার ও ১ হাজার ৯ জন জিপিএ-৫ পেয়েছে চতুর্থ স্থানে জেলা কুড়িগ্রামে।

পঞ্চম স্থানে রয়েছে ঠাকুরগাঁও জেলা। এই জেলার পাশের হার ৭৬ দশমিক ৪০ শতাংশ ও জিপিএ-৫ পেয়েছে ১ হাজার ৫৬ জন।

ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে দিনাজপুর জেলা। এই জেলার পাশের হার ৭৫ দশমিক ৭২ শতাংশ। তবে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২ হাজার ১৩৭ জন। সপ্তম স্থানে রয়েছে লালমনিরহাট জেলা। এই জেলার পাশের হার ৭৪ দশমিক ০৮ শতাংশ ও জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪৮৭ জন। অষ্টম স্থানে রয়েছে পঞ্চগড় জেলা। এই জেলার পাশের হার ৬৮ দশমিক ৮৮ শতাংশ ও জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩৯৭ জন।

দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক তোফাজ্জুর রহমান জানান, গত কয়েক বছরের ফলাফল বিবেচনায় এবার অন্যান্য বছরের তুলনায় ফলাফল খারাপ। তবে সারা দেশের ফলাফল বিবেচনা করলে এই বোর্ডের ফলাফল ঠিক রয়েছে।

তিনি জানান, অভিন্ন প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা হওয়ায় এবং অভিজ্ঞ শিক্ষকদেরকে দিয়ে খাতা নিরীক্ষণ করায় ফলাফল একটু খারাপ হলেও মানের দিক দিয়ে ভালো রয়েছে। তাছাড়া এবারে এই বোর্ডের পরীক্ষার্থীদের মধ্যে শুধুমাত্র গণিতেই অকৃতকার্য হয়েছে প্রায় ১৯ হাজার শিক্ষার্থী। আগামীতে ফলাফল ভালো করার জন্য শিক্ষকদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করাসহ শিক্ষার্থীদের বিশেষভাবে নজর দেয়া হবে বলে জানান তিনি।

ঘটনাপ্রবাহ : এসএসসি-১৮

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter