মডেল মসজিদে নিয়োগে অনিয়ম, আদালতে মামলা
jugantor
মডেল মসজিদে নিয়োগে অনিয়ম, আদালতে মামলা

  বিজয়নগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি  

৩১ আগস্ট ২০২১, ২২:০৯:২৫  |  অনলাইন সংস্করণ

বিজয়নগর উপজেলা মডেল মসজিদের নিয়োগের অনিয়মের প্রতিকার চেয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া দেওয়ানী আদালতে এক চাকরিপ্রার্থী মামলা দায়ের করেছেন।

মামলার বাদী বিজয়নগর উপজেলার পত্তন ইউনিয়নের বড় পুকুরপাড় এলাকার আমীর আলীর ছেলে শফিকুল ইসলাম। দেওয়ানী আদালতে তার করা মামলা নং ১২০/২১।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, বিজয়নগর উপজেলা মডেল মসজিদ নির্মাণের পর গত ১২ আগস্ট নতুন ইমাম নিয়োগে করা হয়। কিন্তু এই নিয়োগে কোনো নিয়ম মানা হয়নি। তালিকার সর্বনিন্মে থাকা মো. মিছবাহ উদ্দিন নামে এক ব্যক্তিকে ইমাম পদে নিয়োগের জন্য চূড়ান্ত চিঠি ইস্যু করা হয়েছে।

এজাহারে মিছবাহ উদ্দিন ছাড়াও বিবাদী করা হয়েছে মডেল মসজিদ নিয়োগ কমিটির সভাপতি বিজয়নগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার, সহকারী কমিশনার (ভূমি) বিজয়নগর, ইসলামী ফাউন্ডেশনের ফিল্ড অফিসার, সহকারী মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার, আউলিয়ানগর সিনিয়র মাদ্রাসার অধ্যক্ষ, বিজয়নগর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের এর প্রশাসনিক কর্মকর্তাকে।

মামলার বাদী শফিকুল ইসলাম বলেন, নিয়োগের ক্ষেত্রে কোনো নিয়মন না মেনে নিজেদের পছন্দমত লোক নিয়োগ প্রদান করা হয়েছে। যোগ্যতা সম্পন্ন অনেক প্রার্থী থাকলেও নিয়োগ আবেদন যে সব যোগ্যতা চাওয়া হয় তার অনেক কিছুই মিছবাহ উদ্দিনের নেই। তার পরেও তাকে গোপনে চূড়ান্ত নিয়োগ প্রদান করা হয়েছে।

মডেল মসজিদে নিয়োগে অনিয়ম, আদালতে মামলা

 বিজয়নগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি 
৩১ আগস্ট ২০২১, ১০:০৯ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বিজয়নগর উপজেলা মডেল মসজিদের নিয়োগের অনিয়মের প্রতিকার চেয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া দেওয়ানী আদালতে এক চাকরিপ্রার্থী মামলা দায়ের করেছেন।

মামলার বাদী বিজয়নগর উপজেলার পত্তন ইউনিয়নের বড় পুকুরপাড় এলাকার আমীর আলীর ছেলে শফিকুল ইসলাম। দেওয়ানী আদালতে তার করা মামলা নং ১২০/২১।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, বিজয়নগর উপজেলা মডেল মসজিদ নির্মাণের পর গত ১২ আগস্ট নতুন ইমাম নিয়োগে করা হয়। কিন্তু এই নিয়োগে কোনো নিয়ম মানা হয়নি। তালিকার সর্বনিন্মে থাকা মো. মিছবাহ উদ্দিন নামে এক ব্যক্তিকে ইমাম পদে নিয়োগের জন্য চূড়ান্ত চিঠি ইস্যু করা হয়েছে।

এজাহারে মিছবাহ উদ্দিন ছাড়াও বিবাদী করা হয়েছে মডেল মসজিদ নিয়োগ কমিটির সভাপতি বিজয়নগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার, সহকারী কমিশনার (ভূমি) বিজয়নগর, ইসলামী ফাউন্ডেশনের ফিল্ড অফিসার, সহকারী মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার, আউলিয়ানগর সিনিয়র মাদ্রাসার অধ্যক্ষ, বিজয়নগর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের এর প্রশাসনিক কর্মকর্তাকে।

মামলার বাদী শফিকুল ইসলাম বলেন, নিয়োগের ক্ষেত্রে কোনো নিয়মন না মেনে নিজেদের পছন্দমত লোক নিয়োগ প্রদান করা হয়েছে। যোগ্যতা সম্পন্ন অনেক প্রার্থী থাকলেও নিয়োগ আবেদন যে সব যোগ্যতা চাওয়া হয় তার অনেক কিছুই মিছবাহ উদ্দিনের নেই। তার পরেও তাকে গোপনে চূড়ান্ত নিয়োগ প্রদান করা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন