কেশবপুরে উন্নত জাতের খেজুর গাছের চারা রোপণ
jugantor
কেশবপুরে উন্নত জাতের খেজুর গাছের চারা রোপণ

  কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি  

৩১ আগস্ট ২০২১, ২২:১৪:৪৮  |  অনলাইন সংস্করণ

উন্নত জাতের খেজুরের চারা রোপণ করেন যশোর জেলা প্রশাসক মো. তমিজুল ইসলাম খান

যশোরের কেশবপুর ও মনিরামপুর সীমান্ত এলাকার নাগোরঘোপে উন্নত জাতের খেজুরের চারা রোপণ কর্মসূচি উদ্বোধন করেছেন যশোরজেলা প্রশাসক মো. তমিজুল ইসলাম খান।

মঙ্গলবার দুপুরে এই কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন-কেশবপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার এম এম আরাফাত হোসেন, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ঋতুরাজ সরকার, কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার মো. আরিফহোসেন, উপ সহকারী কৃষি অফিসার অনাথ বন্ধু দাস ও খেজুরগাছ গবেষক সৈয়দ নকিব মাহমুদ।

খেজুর গাছের চারা রোপণ শেষে জেলা প্রশাসক বলেন, যশোরের ঐতিহ্য খেজুরের রস ও গুড় যেন হারিয়ে না যায় এর জন্য প্রশাসন সব সময় সকল উদ্যোগে সহযোগিতা করবে।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, খেজুর গুড় থেকে চিনি উৎপাদনে কেউ আগ্রহী হলে তাকে সহযোগিতা করা হবে।

খেজুর গাছ গবেষক সৈয়দ নকিব মাহমুদ বলেন, বৃহত্তর যশোর জেলা থেকে যে সব খেজুর গাছে রস বেশি হয় সে সব খেজুর গাছের ৮ হাজার চারা সংগ্রহ করা হয়েছে। এই গাছ থেকে কমপক্ষে ১ থেকে ১২ লিটার রস পাওয়া যাবে।

সংবাদ সম্মেলনে কেশবপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার বলেন, কেশবপুর থেকে সাগরদাঁড়ি মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্তের বাড়ি পর্যন্ত রাস্তার দুইধারে এই উন্নত জাতের খেজুর গাছ লাগানোর ব্যবস্থা করা হবে।

কেশবপুরে উন্নত জাতের খেজুর গাছের চারা রোপণ

 কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি 
৩১ আগস্ট ২০২১, ১০:১৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
উন্নত জাতের খেজুরের চারা রোপণ করেন যশোর জেলা প্রশাসক মো. তমিজুল ইসলাম খান
উন্নত জাতের খেজুরের চারা রোপণ করেন যশোর জেলা প্রশাসক মো. তমিজুল ইসলাম খান। ছবি: যুগান্তর

যশোরের কেশবপুর ও মনিরামপুর সীমান্ত এলাকার নাগোরঘোপে উন্নত জাতের খেজুরের চারা রোপণ কর্মসূচি উদ্বোধন করেছেন যশোর জেলা প্রশাসক মো. তমিজুল ইসলাম খান।

মঙ্গলবার দুপুরে এই কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন- কেশবপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার এম এম আরাফাত হোসেন, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা ঋতুরাজ সরকার, কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার মো. আরিফ হোসেন, উপ সহকারী কৃষি অফিসার অনাথ বন্ধু দাস ও খেজুরগাছ গবেষক সৈয়দ নকিব মাহমুদ। 

খেজুর গাছের চারা রোপণ শেষে জেলা প্রশাসক বলেন, যশোরের ঐতিহ্য খেজুরের রস ও গুড় যেন হারিয়ে না যায় এর জন্য প্রশাসন সব সময় সকল উদ্যোগে সহযোগিতা করবে।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, খেজুর গুড় থেকে চিনি উৎপাদনে কেউ আগ্রহী হলে তাকে সহযোগিতা করা হবে।

খেজুর গাছ গবেষক সৈয়দ নকিব মাহমুদ বলেন, বৃহত্তর যশোর জেলা থেকে যে সব খেজুর গাছে রস বেশি হয় সে সব খেজুর গাছের ৮ হাজার চারা সংগ্রহ করা হয়েছে। এই গাছ থেকে কমপক্ষে ১ থেকে ১২ লিটার রস পাওয়া যাবে। 

সংবাদ সম্মেলনে কেশবপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার বলেন, কেশবপুর থেকে সাগরদাঁড়ি মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্তের বাড়ি পর্যন্ত রাস্তার দুইধারে এই উন্নত জাতের খেজুর গাছ লাগানোর ব্যবস্থা করা হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন