বিষের বোতল-ছুরি নিয়ে অবস্থান মাদ্রাসাছাত্রীর
jugantor
বিষের বোতল-ছুরি নিয়ে অবস্থান মাদ্রাসাছাত্রীর

  নেত্রকোনা ও কলমাকান্দা প্রতিনিধি  

৩১ আগস্ট ২০২১, ২৩:৫৮:২০  |  অনলাইন সংস্করণ

নেত্রকোনার কলমাকান্দা উপজেলায় বিষের বোতল ও ছুরি নিয়ে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বড়বোনের বাড়িতে অবস্থান করছেন এক মাদ্রাসাছাত্রী (২০)। প্রেমিকা আসার খবর পেয়েই প্রেমিক রুহুল আমিন পালিয়ে গেছেন।

সোমবার বিকাল ৫টা থেকে উপজেলার কৈলাটি ইউনিয়নের পাইপুকুরিয়া গ্রামের রুহুল আমিনের ভগিনীপতি সেলিমের ঘরে অবস্থান করছেন ওই ছাত্রী।

প্রেমিক রুহুল আমিন কলমাকান্দা উপজেলার মইপুকুরিয়া গ্রামের কালাচাঁন খাঁর ছেলে। তিনি পাইপুকুরিয়া গ্রামে বোনজামাই সেলিমের বাড়িতেই বসবাস করেন। পার্শ্ববর্তী বোবাহালা বাজারে পোশাক ও ফ্ল্যাক্সিলোডের দোকান রয়েছে তার।

মঙ্গলবার ভোরে সেলিমের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, জেলার বারহাট্টা উপজেলার রায়পুর ইউনিয়নের শিমুলিয়া গ্রামের ভিকটিম ওই ছাত্রী রুহুল আমিনের ভগিনীপতি সেলিমের ঘরে শুয়ে আছেন।

এ সময় তিনি জানান, প্রায় তিন বছর ধরে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে রুহুল আমিনের সঙ্গে তার সম্পর্ক রয়েছে। এ সময় তাদের মধ্যে সরাসরি যোগাযোগ ও একাধিকবার শারীরিক সম্পর্ক হয়েছে। সম্প্রতি রুহুল আমিনকে বিয়ের জন্য চাপ দিলে সে টালবাহানা শুরু করে। যে কারণে বাধ্য হয়ে তিনি এই বাড়িতে বিষের বোতল নিয়ে অবস্থান করছেন। এর আগে থেকেই তিনি সেলিমের এই বাড়ি চিনতেন রুহুল আমিনের মাধ্যমে।

তিনি আরও বলেন, আমি কোনো মামলা করব না। হয় রুহুল আমিন আমাকে বিয়ে করবে, নয়তো আমি আত্মহত্যা করব।

এ বিষয়ে কৈলাটি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রুবেল ভূঁইয়া বলেন, এ বিষয়টি আমি শুনেছি; তবে বিস্তারিত কিছু জানি না।

কলমাকান্দা থানার ওসি মো. আব্দুল আহাদ খান বলেন, এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা এটার সমাধান দিতে পারলে খুবই ভালো হয়। তারা সমাধান দিতে ব্যর্থ হলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সোহেল রানা জানান, ছেলেপক্ষ থানা পুলিশের কাছে একটি অভিযোগ দায়ের করলে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বিষের বোতল-ছুরি নিয়ে অবস্থান মাদ্রাসাছাত্রীর

 নেত্রকোনা ও কলমাকান্দা প্রতিনিধি 
৩১ আগস্ট ২০২১, ১১:৫৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নেত্রকোনার কলমাকান্দা উপজেলায় বিষের বোতল ও ছুরি নিয়ে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বড়বোনের বাড়িতে অবস্থান করছেন এক মাদ্রাসাছাত্রী (২০)। প্রেমিকা আসার খবর পেয়েই প্রেমিক রুহুল আমিন পালিয়ে গেছেন।

সোমবার বিকাল ৫টা থেকে উপজেলার কৈলাটি ইউনিয়নের পাইপুকুরিয়া গ্রামের রুহুল আমিনের ভগিনীপতি সেলিমের ঘরে অবস্থান করছেন ওই ছাত্রী।

প্রেমিক রুহুল আমিন কলমাকান্দা উপজেলার মইপুকুরিয়া গ্রামের কালাচাঁন খাঁর ছেলে। তিনি পাইপুকুরিয়া গ্রামে বোনজামাই সেলিমের বাড়িতেই বসবাস করেন। পার্শ্ববর্তী বোবাহালা বাজারে পোশাক ও ফ্ল্যাক্সিলোডের দোকান রয়েছে তার।

মঙ্গলবার ভোরে সেলিমের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, জেলার বারহাট্টা উপজেলার রায়পুর ইউনিয়নের শিমুলিয়া গ্রামের ভিকটিম ওই ছাত্রী রুহুল আমিনের ভগিনীপতি সেলিমের ঘরে শুয়ে আছেন।

এ সময় তিনি জানান, প্রায় তিন বছর ধরে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে রুহুল আমিনের সঙ্গে তার সম্পর্ক রয়েছে। এ সময় তাদের মধ্যে সরাসরি যোগাযোগ ও একাধিকবার শারীরিক সম্পর্ক হয়েছে। সম্প্রতি রুহুল আমিনকে বিয়ের জন্য চাপ দিলে সে টালবাহানা শুরু করে। যে কারণে বাধ্য হয়ে তিনি এই বাড়িতে বিষের বোতল নিয়ে অবস্থান করছেন। এর আগে থেকেই তিনি সেলিমের এই বাড়ি চিনতেন রুহুল আমিনের মাধ্যমে।

তিনি আরও বলেন, আমি কোনো মামলা করব না। হয় রুহুল আমিন আমাকে বিয়ে করবে, নয়তো আমি আত্মহত্যা করব।
 
এ বিষয়ে কৈলাটি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রুবেল ভূঁইয়া বলেন, এ বিষয়টি আমি শুনেছি; তবে বিস্তারিত কিছু জানি না।

কলমাকান্দা থানার ওসি মো. আব্দুল আহাদ খান বলেন, এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা এটার সমাধান দিতে পারলে খুবই ভালো হয়। তারা সমাধান দিতে ব্যর্থ হলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সোহেল রানা জানান, ছেলেপক্ষ থানা পুলিশের কাছে একটি অভিযোগ দায়ের করলে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন