খুলনার ফ্যাশন হাউসে আগুন
jugantor
খুলনার ফ্যাশন হাউসে আগুন

  খুলনা ব্যুরো  

০২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৬:০০:৪৪  |  অনলাইন সংস্করণ

খুলনার ফ্যাশন হাউসে আগুন

নগরীর সোনাডাঙ্গা মজিদ সরণির রহিম প্লাজায় অবস্থিত আল-আকসা মার্কেটের একটি ফ্যাশন হাউসে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার সকাল সোয়া ৭টায় এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

সেখানে আর্টিস্ট ফ্যাশন নামে একটি শোরুমে আগুন দেখতে পেয়ে জরুরি সেবা ৯৯৯ ফোন করা হয়। পরে দীর্ঘক্ষণ চেষ্টায় সকাল সাড়ে ১০টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা।

আর্টিস্ট ফ্যাশনের ম্যানেজার মো. সাইফুল ইসলাম জানান, বুধবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে নিয়ম অনুযায়ী দোকান বন্ধ করা হয়। এর পর সকাল পৌনে ৮টায় দোকানে আগুন লেগেছে খবর পেয়ে ছুটে যান তিনি, গিয়ে দেখেন দোকানের সব মালামাল পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

ফায়ার সার্ভিসের সহকারী পরিচালক মো. আনোয়ার হোসেন জানান, আগুন লাগার সংবাদ পেয়ে চারটি ইউনিট ও মেডিকেল টিম মিলিয়ে ছয়টি ইউনিট ঘটনাস্থলে যায়। অগ্নিকাণ্ডের স্থানটি কাপড়ের শোরুম ছিল। আগুন নিয়ন্ত্রণে এলেও ধোঁয়া থাকার কারণে সম্পূর্ণ নির্বাপণে সময় লেগেছে। বেলা ১১টার দিকে আগুন সম্পূর্ণ নির্বাপণ করা সম্ভব হয়।

খুলনা সদর ফায়ার সার্ভিস অফিসের সিনিয়র কর্মকর্তা সাইদুজ্জামান জানান, পৌনে ৮টায় সংবাদ পেয়ে পাঁচ মিনিটের মধ্যে সেখানে জান তারা। অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত তদন্ত না করে বলা সম্ভব নয়। বয়রা ও খুলনা সদরের মোট ছয়টি ইউনিট একসঙ্গে আগুন নেভানোর কাজ করেছে। তবে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। তাদের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় আগুন ছড়াতে পারেনি বলেও জানান তিনি।

খুলনার ফ্যাশন হাউসে আগুন

 খুলনা ব্যুরো 
০২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:০০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
খুলনার ফ্যাশন হাউসে আগুন
প্রতীকী ছবি

নগরীর সোনাডাঙ্গা মজিদ সরণির রহিম প্লাজায় অবস্থিত আল-আকসা মার্কেটের একটি ফ্যাশন হাউসে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার সকাল সোয়া ৭টায় এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

সেখানে আর্টিস্ট ফ্যাশন নামে একটি শোরুমে আগুন দেখতে পেয়ে জরুরি সেবা ৯৯৯ ফোন করা হয়। পরে দীর্ঘক্ষণ চেষ্টায় সকাল সাড়ে ১০টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা।

আর্টিস্ট ফ্যাশনের ম্যানেজার মো. সাইফুল ইসলাম জানান, বুধবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে নিয়ম অনুযায়ী দোকান বন্ধ করা হয়।  এর পর সকাল পৌনে ৮টায় দোকানে আগুন লেগেছে খবর পেয়ে ছুটে যান তিনি, গিয়ে দেখেন দোকানের সব মালামাল পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

ফায়ার সার্ভিসের সহকারী পরিচালক মো. আনোয়ার হোসেন জানান, আগুন লাগার সংবাদ পেয়ে চারটি ইউনিট ও মেডিকেল টিম মিলিয়ে ছয়টি ইউনিট ঘটনাস্থলে যায়। অগ্নিকাণ্ডের স্থানটি কাপড়ের শোরুম ছিল। আগুন নিয়ন্ত্রণে এলেও ধোঁয়া থাকার কারণে সম্পূর্ণ নির্বাপণে সময় লেগেছে। বেলা ১১টার দিকে আগুন সম্পূর্ণ নির্বাপণ করা সম্ভব হয়।

খুলনা সদর ফায়ার সার্ভিস অফিসের সিনিয়র কর্মকর্তা সাইদুজ্জামান জানান, পৌনে ৮টায় সংবাদ পেয়ে পাঁচ মিনিটের মধ্যে সেখানে জান তারা। অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত তদন্ত না করে বলা সম্ভব নয়। বয়রা ও খুলনা সদরের মোট ছয়টি ইউনিট একসঙ্গে আগুন নেভানোর কাজ করেছে। তবে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। তাদের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় আগুন ছড়াতে পারেনি বলেও জানান তিনি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন