‘ফেরি চালানোর সময় স্ত্রীর সঙ্গেও কথা বলা যাবে না’
jugantor
‘ফেরি চালানোর সময় স্ত্রীর সঙ্গেও কথা বলা যাবে না’

  যুগান্তর প্রতিবেদন, মানিকগঞ্জ  

০২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:২০:১৫  |  অনলাইন সংস্করণ

সাম্প্রতিক সময়ে কয়েক দফায় পদ্মা সেতুতে ফেরির ধাক্কা লাগার ঘটনাকে গুরুত্ব দিয়ে এবার পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে চলাচলকারী ফেরি নাবিকদের দক্ষতা ও সচেতনতা বৃদ্ধি শীর্ষক এক প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) চেয়ারম্যান মো. তাজুল ইসলাম বলেন, ফেরি চালানোর সময় অত্যন্ত মনোযোগ দিয়ে চালাতে হবে। ফেরি চালানোর সময় স্ত্রীর সঙ্গেও কথা বলা যাবে না। তাহলে ফেরিতে কোনো দুর্ঘটনা ঘটবে না।

বৃহস্পতিবার দুপুরে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে চলাচলকারী ফেরি নাবিকদের দক্ষতা ও সচেতনতা বৃদ্ধি শীর্ষক এক প্রশিক্ষণ কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

পাটুরিয়া ফেরিঘাটে অবস্থিত পদ্মা রিভারভিউ হোটেল মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত কর্মশালায় এ সময় জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ আব্দুল লতিফ, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ গোলাম আজাদ খান, বিআইডব্লিউটিসির আরিচা কার্যালয়ের ডিজিএম জিল্লুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

তাজুল ইসলাম আরও বলেন, নাবিকরা যদি আরও দক্ষ হতো তাহলে এ রকম ঘটনা ঘটত না। তাই সব ফেরি নাবিক, সুকানি, মাস্টারকে নিয়মনীতি মেনে চলাতে হবে।

ফেরির নাবিক, ইঞ্জিন মাস্টার, সুকানিসহ মোট ২৪ জন প্রশিক্ষণার্থী কর্মশালায় অংশগ্রহণ করেন।

‘ফেরি চালানোর সময় স্ত্রীর সঙ্গেও কথা বলা যাবে না’

 যুগান্তর প্রতিবেদন, মানিকগঞ্জ 
০২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:২০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সাম্প্রতিক সময়ে কয়েক দফায় পদ্মা সেতুতে ফেরির ধাক্কা লাগার ঘটনাকে গুরুত্ব দিয়ে এবার পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে চলাচলকারী ফেরি নাবিকদের দক্ষতা ও সচেতনতা বৃদ্ধি শীর্ষক এক প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশন (বিআইডব্লিউটিসি) চেয়ারম্যান মো. তাজুল ইসলাম বলেন, ফেরি চালানোর সময় অত্যন্ত মনোযোগ দিয়ে চালাতে হবে। ফেরি চালানোর সময় স্ত্রীর সঙ্গেও কথা বলা যাবে না। তাহলে ফেরিতে কোনো দুর্ঘটনা ঘটবে না।

বৃহস্পতিবার দুপুরে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে চলাচলকারী ফেরি নাবিকদের দক্ষতা ও সচেতনতা বৃদ্ধি শীর্ষক এক প্রশিক্ষণ কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

পাটুরিয়া ফেরিঘাটে অবস্থিত পদ্মা রিভারভিউ হোটেল মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত কর্মশালায় এ সময় জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ আব্দুল লতিফ, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ গোলাম আজাদ খান, বিআইডব্লিউটিসির আরিচা কার্যালয়ের ডিজিএম জিল্লুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

তাজুল ইসলাম আরও বলেন, নাবিকরা যদি আরও দক্ষ হতো তাহলে এ রকম ঘটনা ঘটত না। তাই সব ফেরি নাবিক, সুকানি, মাস্টারকে নিয়মনীতি মেনে চলাতে হবে।

ফেরির নাবিক, ইঞ্জিন মাস্টার, সুকানিসহ মোট ২৪ জন প্রশিক্ষণার্থী কর্মশালায় অংশগ্রহণ করেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন