পরকীয়া প্রেমের জেরে যুবককে পুড়িয়ে হত্যা
jugantor
পরকীয়া প্রেমের জেরে যুবককে পুড়িয়ে হত্যা

  বেনাপোল প্রতিনিধি  

০৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:০৮:০১  |  অনলাইন সংস্করণ

যশোরের শার্শায় পরকীয়া প্রেমের জেরে মনিরুল ইসলাম (৩৫) নামে এক যুবককে পুড়িয়ে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ২টার দিকে উপজেলার নাভরন কাজিরবেড় গ্রামে।

নিহত মনিরুল ইসলাম মনিরামপুর উপজেলার রাজগঞ্জ এলাকার আবুল হোসেনের ছেলে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানান, শুক্রবার ভোরে হঠাৎ পাশের বাড়িতে চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা ছুটে এসে আগুন নেভাতে থাকেন। একপর্যায়ে মোটরসাইকেলের নিচে চাপা পড়ে আগুনে পুড়ে এক যুবকের লাশ পড়ে থাকতে দেখে এলাকাবাসী পুলিশে খবর দেন। পরে খবর পেয়ে শার্শা থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে লাশ উদ্ধার করে।

কাজিরবেড় গ্রামের সিরাজুল ইসলামের বাড়িতে নিচতলায় ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ এলাকার সাইদুর রহমান স্ত্রী-সন্তান নিয়ে ভাড়া থাকতেন। সাইদুর রহমান একজন এনজিও কর্মী। ঘটনার রাতে তিনি বাড়িতে ছিলেন না। সাইদুর রহমানের স্ত্রী বিথী খাতুনের সঙ্গে নিহত যুবকের প্রেমের সম্পর্ক ছিল বলে জানান প্রতিবেশীসহ বাড়ির অন্যরা।

শার্শা থানার ওসি বদরুল আলম খান জানান, রাতেই খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে ময়নাতদন্তের জন্য। প্রাথমিকভাবে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ভাড়াটিয়ার স্ত্রীসহ চারজনকে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে।

পরকীয়া প্রেমের জেরে যুবককে পুড়িয়ে হত্যা

 বেনাপোল প্রতিনিধি 
০৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:০৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

যশোরের শার্শায় পরকীয়া প্রেমের জেরে মনিরুল ইসলাম (৩৫) নামে এক যুবককে পুড়িয়ে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ২টার দিকে উপজেলার নাভরন কাজিরবেড় গ্রামে। 

নিহত মনিরুল ইসলাম মনিরামপুর উপজেলার রাজগঞ্জ এলাকার আবুল হোসেনের ছেলে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানান, শুক্রবার ভোরে হঠাৎ পাশের বাড়িতে চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা ছুটে এসে আগুন নেভাতে থাকেন। একপর্যায়ে মোটরসাইকেলের নিচে চাপা পড়ে আগুনে পুড়ে এক যুবকের লাশ পড়ে থাকতে দেখে এলাকাবাসী পুলিশে খবর দেন। পরে খবর পেয়ে শার্শা থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে লাশ উদ্ধার করে।

কাজিরবেড় গ্রামের সিরাজুল ইসলামের বাড়িতে নিচতলায় ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ এলাকার সাইদুর রহমান স্ত্রী-সন্তান নিয়ে ভাড়া থাকতেন। সাইদুর রহমান একজন এনজিও কর্মী। ঘটনার রাতে তিনি বাড়িতে ছিলেন না। সাইদুর রহমানের স্ত্রী বিথী খাতুনের সঙ্গে নিহত যুবকের প্রেমের সম্পর্ক ছিল বলে জানান প্রতিবেশীসহ বাড়ির অন্যরা। 

শার্শা থানার ওসি বদরুল আলম খান জানান, রাতেই খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে ময়নাতদন্তের জন্য। প্রাথমিকভাবে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ভাড়াটিয়ার স্ত্রীসহ চারজনকে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন