নিখোঁজের ৪ দিন পর ডোবায় অটোচালকের লাশ
jugantor
নিখোঁজের ৪ দিন পর ডোবায় অটোচালকের লাশ

  নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি  

০৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:৩৬:৪৪  |  অনলাইন সংস্করণ

হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলায় নিখোঁজের ৪ দিন পর ডোবা থেকে আবিদুর রহমান (১৬) নামে এক ব্যাটারিচালিত অটোরিকশাচালকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার দুপুরে নবীগঞ্জ সদর ইউনিয়নের গোজাখাইর শরিষপুর গ্রামে সড়কের পার্শ্ববর্তী ডোবা থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। আবিদুর রহমান পৌর এলাকার কেলী কানাইপুর গ্রামের পাতা মিয়ার ছেলে।

নিহতের পরিবার ও পুলিশ জানায়, গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নবীগঞ্জ শহর থেকে দুজন যাত্রী নিয়ে উপজেলার গুজাখাইর গ্রামে যায় কিশোর আবিদুর রহমান। ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের সামনে যাওয়ার পর ওই যাত্রীরা খাগাপাশা নিয়ে যাওয়ার জন্য বলে। কিন্তু চালক আবিদুর যেতে অনীহা জানালে তারা পুনরায় নবীগঞ্জ শহর এসে নতুন বাজার মোড়ে মাছ ক্রয় করে।

পরে ওই দুজন যাত্রী তাদের নবীগঞ্জ-হবিগঞ্জ সড়কে গড়মুড়িয়া ব্রিজে নিয়ে যাওয়ার জন্য বলেন। সেখানে যাওয়ার পর থেকে অটোরিকশা ও চালক আবিদুর আর ফিরে আসেনি। এ ঘটনার পর থেকে নিখোঁজ ছিল আবিদুর। ছেলের সন্ধান চেয়ে গত বুধবার নবীগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন আবিদুরের পিতা।

শুক্রবার দুপুরে নবীগঞ্জ সদর ইউনিয়নের গোজাখাইর শরিষপুর গ্রামে সড়কের পার্শ্ববর্তী ডোবায় একটি লাশ পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয় লোকজন। খবর পেয়ে নবীগঞ্জ থানার ওসি ডালিম আহমেদের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ও হবিগঞ্জ পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) একদল পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। পরে লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে হবিগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে নবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ডালিম আহমেদ বলেন, গত মঙ্গলবার থেকে নিখোঁজ ছিল আবিদুর, একদিন পর এ ঘটনায় তার পিতা নবীগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। লাশের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে ময়না তদন্তের জন্য লাশ হবিগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

নিখোঁজের ৪ দিন পর ডোবায় অটোচালকের লাশ

 নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি 
০৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৩৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলায় নিখোঁজের ৪ দিন পর ডোবা থেকে আবিদুর রহমান (১৬) নামে এক ব্যাটারিচালিত অটোরিকশাচালকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। 

শুক্রবার দুপুরে নবীগঞ্জ সদর ইউনিয়নের গোজাখাইর শরিষপুর গ্রামে সড়কের পার্শ্ববর্তী ডোবা থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। আবিদুর রহমান পৌর এলাকার কেলী কানাইপুর গ্রামের পাতা মিয়ার ছেলে।

নিহতের পরিবার ও পুলিশ জানায়, গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নবীগঞ্জ শহর থেকে দুজন যাত্রী নিয়ে উপজেলার গুজাখাইর গ্রামে যায় কিশোর আবিদুর রহমান। ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের সামনে যাওয়ার পর ওই যাত্রীরা খাগাপাশা নিয়ে যাওয়ার জন্য বলে। কিন্তু চালক আবিদুর যেতে অনীহা জানালে তারা পুনরায় নবীগঞ্জ শহর এসে নতুন বাজার মোড়ে মাছ ক্রয় করে।

পরে ওই দুজন যাত্রী তাদের নবীগঞ্জ-হবিগঞ্জ সড়কে গড়মুড়িয়া ব্রিজে নিয়ে যাওয়ার জন্য বলেন। সেখানে যাওয়ার পর থেকে অটোরিকশা ও চালক আবিদুর আর ফিরে আসেনি। এ ঘটনার পর থেকে নিখোঁজ ছিল আবিদুর। ছেলের সন্ধান চেয়ে গত বুধবার নবীগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন আবিদুরের পিতা। 

শুক্রবার দুপুরে নবীগঞ্জ সদর ইউনিয়নের গোজাখাইর শরিষপুর গ্রামে সড়কের পার্শ্ববর্তী ডোবায় একটি লাশ পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয় লোকজন। খবর পেয়ে নবীগঞ্জ থানার ওসি ডালিম আহমেদের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ও হবিগঞ্জ পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) একদল পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। পরে লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে হবিগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। 

এ প্রসঙ্গে নবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ডালিম আহমেদ বলেন, গত  মঙ্গলবার থেকে নিখোঁজ ছিল আবিদুর, একদিন পর এ ঘটনায় তার পিতা নবীগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। লাশের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে ময়না তদন্তের জন্য লাশ হবিগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন