চুরির অপবাদে কিশোরকে পানিতে চুবিয়ে হত্যা
jugantor
চুরির অপবাদে কিশোরকে পানিতে চুবিয়ে হত্যা

  ময়মনসিংহ ব্যুরো  

০৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২১:৪৪:২১  |  অনলাইন সংস্করণ

গাজীপুরের জয়দেবপুরে ইজিবাইক চুরির অপবাদ দিয়ে ডোবার পানিতে চুবিয়ে নির্যাতনের পর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এক কিশোরের মৃত্যু হয়েছে।

নিহত জিসান মিয়া (১৬) ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার মরিচারচর গ্রামের আবদুস সামাদের ছেলে। জিসানের মা গাজীপুরের একটি গার্মেন্টসে চাকরি করার সুবাদে ভবানীপুর বাজারে হাফিজুর রহমানের বাড়িতে ভাড়া থাকত।

শুক্রবার ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওই কিশোরের মৃত্যু হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে গাজীপুরের জয়দেবপুর থানার ওসি (তদন্ত) নাছিম আহমেদ বলেন, এ ঘটনায় নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। অভিযোগটি হত্যা মামলা হিসেবে রজু করার প্রক্রিয়া চলছে। এ ঘটনার পর অভিযুক্তরা পলাতক রয়েছেন। তাদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে। ময়মনসিংহ কোতোয়ালি মডেল থানায় বিষয়টি অবগত করা হয়েছে।

এ বিষয়ে কোতোয়ালি মডেল থানার এসআই আমিনুল ইসলাম জানান, জয়দেবপুর থানা থেকে বিষয়টি জানানো হয়েছে। মরদেহ ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে আছে। নিহতের পরিবারের লোকজন এখনো যোগাযোগ করেনি। যোগাযোগ করলেই ময়নাতদন্তের ব্যবস্থা করা হবে।

পুলিশ জানায়, গত ১৪ আগস্ট জিসান জয়দেবপুরের ভবানীপুর বাজারের একটি সড়কের পাশে দাঁড়িয়ে ছিল। তখন তার পাশেই দাঁড়ানো থাকা একটি ইজিবাইকে সে উঠে বসে। এ সময় ইজিবাইকটি রাস্তার ঢাল বেয়ে পাশের খালে পড়ে যায়। তখন কাছাকাছি থাকা ইজিবাইক চালক দৌড়ে এসে জিসানকে চোর বলে বেদম মারধর করেন।

পরদিন সকালে ওই ইজিবাইক চালকের স্বজনরা জিসানকে গজারি বনের ভেতরে ডেকে নিয়ে চুরির বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে আবারো মারধর করেন। এ সময় তারা জিসানকে সেখানকার একটি ডোবার পানিতে চুবিয়ে ধরেন। তখন জিসান নিস্তেজ হয়ে পড়লে মারা গেছে ভেবে ওই লোকজন তাকে সেখানে ফেলে চলে যান।

পরে খবর পেয়ে পরিবারের লোকজন জিসানকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে গাজীপুরের শহীদ তাজউদ্দীন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করান। পরে তার অবস্থা গুরুতর হওয়ায় সেদিনই তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় জিসান শুক্রবার মারা যায়।

চুরির অপবাদে কিশোরকে পানিতে চুবিয়ে হত্যা

 ময়মনসিংহ ব্যুরো 
০৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:৪৪ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

গাজীপুরের জয়দেবপুরে ইজিবাইক চুরির অপবাদ দিয়ে ডোবার পানিতে চুবিয়ে নির্যাতনের পর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এক কিশোরের মৃত্যু হয়েছে। 

নিহত জিসান মিয়া (১৬) ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার মরিচারচর গ্রামের আবদুস সামাদের ছেলে। জিসানের মা গাজীপুরের একটি গার্মেন্টসে চাকরি করার সুবাদে ভবানীপুর বাজারে হাফিজুর রহমানের বাড়িতে ভাড়া থাকত।

শুক্রবার ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওই কিশোরের মৃত্যু হয়। 

বিষয়টি নিশ্চিত করে গাজীপুরের জয়দেবপুর থানার ওসি (তদন্ত) নাছিম আহমেদ বলেন, এ ঘটনায় নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। অভিযোগটি হত্যা মামলা হিসেবে রজু করার প্রক্রিয়া চলছে। এ ঘটনার পর অভিযুক্তরা পলাতক রয়েছেন। তাদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে। ময়মনসিংহ কোতোয়ালি মডেল থানায় বিষয়টি অবগত করা হয়েছে।

এ বিষয়ে কোতোয়ালি মডেল থানার এসআই  আমিনুল ইসলাম জানান, জয়দেবপুর থানা থেকে বিষয়টি জানানো হয়েছে। মরদেহ ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে আছে। নিহতের পরিবারের লোকজন এখনো যোগাযোগ করেনি। যোগাযোগ করলেই ময়নাতদন্তের ব্যবস্থা করা হবে।

পুলিশ জানায়, গত ১৪ আগস্ট জিসান জয়দেবপুরের ভবানীপুর বাজারের একটি সড়কের পাশে দাঁড়িয়ে ছিল। তখন তার পাশেই দাঁড়ানো থাকা একটি ইজিবাইকে সে উঠে বসে। এ সময় ইজিবাইকটি রাস্তার ঢাল বেয়ে পাশের খালে পড়ে যায়। তখন কাছাকাছি থাকা ইজিবাইক চালক দৌড়ে এসে জিসানকে চোর বলে বেদম মারধর করেন।

পরদিন সকালে ওই ইজিবাইক চালকের স্বজনরা জিসানকে গজারি বনের ভেতরে ডেকে নিয়ে চুরির বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে আবারো মারধর করেন। এ সময় তারা জিসানকে সেখানকার একটি ডোবার পানিতে চুবিয়ে ধরেন। তখন জিসান নিস্তেজ হয়ে পড়লে মারা গেছে ভেবে ওই লোকজন তাকে সেখানে ফেলে চলে যান।

পরে খবর পেয়ে পরিবারের লোকজন জিসানকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে গাজীপুরের শহীদ তাজউদ্দীন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করান। পরে তার অবস্থা গুরুতর হওয়ায় সেদিনই তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় জিসান শুক্রবার মারা যায়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন