মায়ের সঙ্গে অভিমান করে নার্সিং ইনস্টিটিউটের ছাত্রীর আত্মহত্যা
jugantor
মায়ের সঙ্গে অভিমান করে নার্সিং ইনস্টিটিউটের ছাত্রীর আত্মহত্যা

  কুমারখালী (কুষ্টিয়া) প্রতিনিধি  

০৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৫:১১:১২  |  অনলাইন সংস্করণ

আত্মহত্যা

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে মায়ের সঙ্গে অভিমান করে নার্সিং ইনস্টিটিউটের তৃতীয় বর্ষের এক ছাত্রী আত্মহত্যা করেছেন।

চাপড়া ইউনিয়নের সাঁওতা রাজপাড়া গ্রামে রোববার ভোরে মেয়েটি তার মামাবাড়িতে থাকাকালীন এ ঘটনা ঘটে।

এ বিষয়ে কুমারখালী থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

নিহত রাফিজা খাতুন (২০) উপজেলার চাপড়া ইউনিয়নের সাঁওতা রাজপাড়া গ্রামের সিরাজুল ইসলামের মেয়ে।

এলাকাবাসী ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, রাফিজা খাতুন শনিবার কুষ্টিয়া নার্সিং ইনস্টিটিউট থেকে সন্ধ্যার পর বাড়িতে ফিরলে তার মা বকাবকি করে।এতে তিনি রাগ করে পার্শ্ববর্তী মামারবাড়িতে চলে যায়।

রাতের কোনো এক ভাগে ফ্যানের সঙ্গে রশি দিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন।

রোববার ভোড়ে তার মামি তাকে ডাকাডাকি করে ঘর না খুললে এলাকাবাসীর সহায়তায় দরজা ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করে তার মৃতদেহ দেখে পুলিশে খবর দেন।

কুমারখালী থানার ওসি কামরুজ্জামান তালুকদার জানান, এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে ও পরিবারের সম্মতিতে লাশ দাফনের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে কুমারখালী থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

মায়ের সঙ্গে অভিমান করে নার্সিং ইনস্টিটিউটের ছাত্রীর আত্মহত্যা

 কুমারখালী (কুষ্টিয়া) প্রতিনিধি 
০৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:১১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
আত্মহত্যা
ফাইল ছবি

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে মায়ের সঙ্গে অভিমান করে নার্সিং ইনস্টিটিউটের তৃতীয় বর্ষের এক ছাত্রী আত্মহত্যা করেছেন।

 চাপড়া ইউনিয়নের সাঁওতা রাজপাড়া গ্রামে রোববার ভোরে মেয়েটি তার মামাবাড়িতে থাকাকালীন এ ঘটনা ঘটে।

এ বিষয়ে কুমারখালী থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

নিহত রাফিজা খাতুন (২০)  উপজেলার চাপড়া ইউনিয়নের সাঁওতা রাজপাড়া গ্রামের সিরাজুল ইসলামের মেয়ে।

এলাকাবাসী ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, রাফিজা খাতুন শনিবার কুষ্টিয়া নার্সিং ইনস্টিটিউট থেকে সন্ধ্যার পর বাড়িতে ফিরলে তার মা বকাবকি করে।এতে তিনি রাগ করে পার্শ্ববর্তী মামারবাড়িতে চলে যায়।

রাতের কোনো এক ভাগে ফ্যানের সঙ্গে রশি দিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন।

রোববার ভোড়ে তার মামি তাকে ডাকাডাকি করে ঘর না খুললে এলাকাবাসীর সহায়তায় দরজা ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করে তার মৃতদেহ দেখে পুলিশে খবর দেন।

কুমারখালী থানার ওসি কামরুজ্জামান তালুকদার জানান, এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে ও পরিবারের সম্মতিতে লাশ দাফনের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে কুমারখালী থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন