অ্যাম্বুলেন্সে ইয়াবা বহন, আটক ৪
jugantor
অ্যাম্বুলেন্সে ইয়াবা বহন, আটক ৪

  যুগান্তর প্রতিবেদন, বরগুনা ও বরগুনা (দক্ষিণ) প্রতিনিধি  

০৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:২১:০৩  |  অনলাইন সংস্করণ

বরগুনায় এ্যাম্বুলেন্সে ইয়াবা নিয়ে যাওয়ার সময় চারজনকে আটক করেছে পুলিশ। এ সময় তাদের কাছ থেকে ৮০ পিস ইয়াবা জব্দ করা হয়।

সোমবার রাত পৌনে ৯টার দিকে বরগুনার ২নং গৌরীচন্না ইউনিয়নের নতুন বাসস্ট্যান্ড এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৮০ পিস ইয়াবাসহ ওই চারজনকে আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলেন- গৌরীচন্না ইউনিয়নের পুরাতন বাসষ্ট্যান্ড এলাকার সেরাজুল হকের ছেলে শহিদুল ইসলাম শুভ (২৬), একই এলাকার বাচ্চু খানের ছেলে আবদুল্লাহ খান (৪০), বরিশালের শেরে বাংলা রোড এলাকার হানিফ কাজীর ছেলে কাজী জুয়েল (৩৫) ও বরিশালের ওয়াপদা কলোনি এলাকার চিত্তরঞ্জন সরকারের ছেলে দীপক সরকার (২৫)।

এরা বাংলাদেশ প্রবীণ হিতৈষী সংঘের একটি অ্যাম্বুলেন্সে করে ইয়াবা বহন করছিল। এ সময় অ্যাম্বুলেন্সটি জব্দ করা হয়।

বরগুনা প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি হাসানুর রহমান ঝন্টু যুগান্তরকে বলেন, বরগুনা শহরে ৫০টির বেশি ব্যক্তি মালিকানাধীন অ্যাম্বুলেন্স রয়েছে। বরগুনা হাসপাতালে কোনো রোগী আসলেই এখানকার ডাক্তাররা দ্রুত বরিশাল নেয়ার জন্য বলেন। লক্কড় ঝক্কর অ্যাম্বুলেন্স দিয়ে রোগী বহন করে। রোগীর বহনের মধ্য মাদক ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে অ্যাম্বুলেন্স মালিকরা।

বরগুনা পুলিশ সুপার জাহাঙ্গীর মল্লিক বলেন, এডিশনাল এসপি সদর সার্কেল বেতাগী থেকে বরগুনা আসছিলেন। এ সময় তার গাড়ীর সামনে প্রবীণ হিতৈষী সংঘ জরা বিজ্ঞান প্রতিষ্ঠানের একটা অ্যাম্বুলেন্স দেখতে পায়। পেছনে পুলিশের গাড়ি দেখে অ্যাম্বুলেন্সটি দ্রুত লাকুরতলার নতুন বাসস্ট্যান্ডে ঢুকে গেলে পুলিশের সন্দেহ হয়। পরে অ্যাম্বুলেন্সটি তল্লাশি করে ৮০ পিস ইয়াবা পাওয়া যায়। আটককৃত চারজনকে আরও জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। এরপর পরবর্তী আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বরগুনা থানার ও কেএম তারিকুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

অ্যাম্বুলেন্সে ইয়াবা বহন, আটক ৪

 যুগান্তর প্রতিবেদন, বরগুনা ও বরগুনা (দক্ষিণ) প্রতিনিধি 
০৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:২১ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বরগুনায় এ্যাম্বুলেন্সে ইয়াবা নিয়ে যাওয়ার সময় চারজনকে আটক করেছে পুলিশ। এ সময় তাদের কাছ থেকে ৮০ পিস ইয়াবা জব্দ করা হয়।

সোমবার রাত পৌনে ৯টার দিকে বরগুনার ২নং গৌরীচন্না ইউনিয়নের নতুন বাসস্ট্যান্ড এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৮০ পিস ইয়াবাসহ ওই চারজনকে আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলেন- গৌরীচন্না ইউনিয়নের পুরাতন বাসষ্ট্যান্ড এলাকার সেরাজুল হকের ছেলে শহিদুল ইসলাম শুভ (২৬), একই এলাকার বাচ্চু খানের ছেলে আবদুল্লাহ খান (৪০), বরিশালের শেরে বাংলা রোড এলাকার হানিফ কাজীর ছেলে কাজী জুয়েল (৩৫) ও বরিশালের ওয়াপদা কলোনি এলাকার চিত্তরঞ্জন সরকারের ছেলে দীপক সরকার (২৫)।

এরা বাংলাদেশ প্রবীণ হিতৈষী সংঘের একটি অ্যাম্বুলেন্সে করে ইয়াবা বহন করছিল। এ সময় অ্যাম্বুলেন্সটি জব্দ করা হয়।

বরগুনা প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি হাসানুর রহমান ঝন্টু যুগান্তরকে বলেন, বরগুনা শহরে ৫০টির বেশি ব্যক্তি মালিকানাধীন অ্যাম্বুলেন্স রয়েছে। বরগুনা হাসপাতালে কোনো রোগী আসলেই এখানকার ডাক্তাররা দ্রুত বরিশাল নেয়ার জন্য বলেন। লক্কড় ঝক্কর অ্যাম্বুলেন্স দিয়ে রোগী বহন করে। রোগীর বহনের মধ্য মাদক ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে অ্যাম্বুলেন্স মালিকরা।

বরগুনা পুলিশ সুপার জাহাঙ্গীর মল্লিক বলেন, এডিশনাল এসপি সদর সার্কেল বেতাগী থেকে বরগুনা আসছিলেন। এ সময় তার গাড়ীর সামনে প্রবীণ হিতৈষী সংঘ জরা বিজ্ঞান প্রতিষ্ঠানের একটা অ্যাম্বুলেন্স দেখতে পায়। পেছনে পুলিশের গাড়ি দেখে অ্যাম্বুলেন্সটি দ্রুত লাকুরতলার নতুন বাসস্ট্যান্ডে ঢুকে গেলে পুলিশের সন্দেহ হয়। পরে অ্যাম্বুলেন্সটি তল্লাশি করে ৮০ পিস ইয়াবা পাওয়া যায়। আটককৃত চারজনকে আরও জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। এরপর পরবর্তী আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বরগুনা থানার ও কেএম তারিকুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন