পিছিয়ে নেই প্রতিবন্ধী হেলেনা

  গফরগাঁও (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি ০৭ মে ২০১৮, ১৮:৫৫ | অনলাইন সংস্করণ

হেলেনা

দুই পা-ই অচল তার। তার ওপর ডান হাতও বাঁকা। তাতে কি? শারীরিক প্রতিবন্ধী হয়েও জীবনযুদ্ধে থেমে থাকেননি হেলেনা খাতুন। এবার ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলার ঘাগড়া উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে হেলেনা খাতুন জিপিএ ৪.৮৯ পেয়েছে।

তবে এ ফলাফলে খুশি নন হেলেনা খাতুন। কারণ এ পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পাওয়ার আশার ছিল তার। উপজেলার গফরগাঁও ইউনিয়নের ঘাগড়া গ্রামের মৃত শাহাবুদ্দিন ব্যাপারীর মেয়ে হেলেনা খাতুন।

মৃত শাহাবুদ্দিন ব্যাপারী ও ফজিলা খাতুন দম্পতির ছয় ছেলেমেয়ের মধ্যে সবার ছোট হেলেনা। অপর এক ভাই ও চার বোন পড়ালেখা বেশি করতে পারেনি।

দু’চোখে বড় হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে এগিয়ে যাওয়ার নিরন্তর সংগ্রামী মুখ শারীরিক প্রতিবন্ধী হেলেনা খাতুনের। শারীরিক প্রতিবন্ধকতা থাকা সত্ত্বেও সে শিক্ষার আলোয় নিজেকে আলোকিত করার প্রাণপণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

হেলেনার মা ফজিলা খাতুন জানান,ছোটবেলা থেকেই পড়ালেখা করার প্রবল ইচ্ছা ছিল হেলেনার।তাই প্রতিদিন ঝড়বৃষ্টি,রোদ,কাদাপানি উপেক্ষা করে দুই হাতে ভর দিয়ে বাড়ি থেকে প্রায় এক কিলোমিটার দূরে ঘাগড়া উচ্চ বিদ্যালয়ে নিয়মিত লেখাপড়া করেছে সে।

হেলেনা খাতুন জানান,মা’র বিশেষ আগ্রহের কারণে সে পড়ালেখা করতে পারছে।তার ইচ্ছা একজন ডাক্তার হয়ে প্রতিবন্ধীদের শিক্ষার ব্যাপারে সহযোগিতা করা।

ঘাগড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মকবুল হোসেন জানান,হেলেনা বিজ্ঞান বিভাগের একজন মেধাবী ছাত্রী। তার পড়ালেখার প্রতি আগ্রহের কথা চিন্তা করে তাকে আমরা বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করেছি।সে পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পাবে আমরা খুব আশাবাদী ছিলাম। হেলেনার জিপিএ-৫ না পাওয়াটা দুঃখজনক।

ঘটনাপ্রবাহ : এসএসসি-১৮

 

 

জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter