প্রাইভেট পড়াতে গিয়ে ছাত্রীকে ধর্ষণ
jugantor
প্রাইভেট পড়াতে গিয়ে ছাত্রীকে ধর্ষণ

  ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি  

০৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২১:২৫:২৬  |  অনলাইন সংস্করণ

ময়মনসিংহের ভালুকায় প্রাইভেট পড়াতে গিয়ে গৃহশিক্ষক অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ধর্ষণের অভিযোগে ওই গৃহশিক্ষককে পুলিশ গ্রেফতার করেছে।

বুধবার সন্ধ্যায় ভালুকা মডেল থানায় ধর্ষণের মামলা হওয়ার পর পুলিশ অভিযান চালিয়ে গৃহশিক্ষক জালাল উদ্দীনকে (৩০) মল্লিকবাড়ী এলাকা থেকে গ্রেফতার করেছে।

মামলা ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মল্লিকবাড়ী পূর্বপাড়া ইসলামিয়া বালিকা মাদ্রাসার ৮ম শ্রেণির ছাত্রী তারই প্রতিবেশী মল্লিকবাড়ী গ্রামের আমজাত আলীর ছেলে জালাল উদ্দিনের বাড়িতে প্রতিদিন প্রাইভেট পড়তে যায়।

গত মঙ্গলবার ওই গৃহশিক্ষকের বাড়িতে কেউ না থাকায় ওই ছাত্রীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এই কথা কাউকে না বলতে শাসায় ওই গৃহশিক্ষক। পরবর্তীতে ওই মেয়ের ব্যথা ও রক্তক্ষরণ শুরু হলে সে তার মাকে বিস্তারিত ঘটনা অবগত করে।

বুধবার ওই মেয়ের বাবা বাদী হয়ে ভালুকা মডেল থানায় জালাল উদ্দীনকে আসামি করে একটি ধর্ষণ মামলা করেন। পুলিশ রাতেই অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত আসামিকে গ্রেফতার করে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই বিল্লাল হোসেন জানান, মামলা হওয়ার পরই আমরা আসামিকে গ্রেফতার করি। বৃহস্পতিবার তাকে আদালতে প্রেরণ করা হয়। ছাত্রীর ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগে পাঠানো হয়েছে।

প্রাইভেট পড়াতে গিয়ে ছাত্রীকে ধর্ষণ

 ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি 
০৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:২৫ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ময়মনসিংহের ভালুকায় প্রাইভেট পড়াতে গিয়ে গৃহশিক্ষক অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ধর্ষণের অভিযোগে ওই গৃহশিক্ষককে পুলিশ গ্রেফতার করেছে।

বুধবার সন্ধ্যায় ভালুকা মডেল থানায় ধর্ষণের মামলা হওয়ার পর পুলিশ অভিযান চালিয়ে গৃহশিক্ষক জালাল উদ্দীনকে (৩০) মল্লিকবাড়ী এলাকা থেকে গ্রেফতার করেছে।

মামলা ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মল্লিকবাড়ী পূর্বপাড়া ইসলামিয়া বালিকা মাদ্রাসার ৮ম শ্রেণির ছাত্রী তারই প্রতিবেশী মল্লিকবাড়ী গ্রামের আমজাত আলীর ছেলে জালাল উদ্দিনের বাড়িতে প্রতিদিন প্রাইভেট পড়তে যায়।

গত মঙ্গলবার ওই গৃহশিক্ষকের বাড়িতে কেউ না থাকায় ওই ছাত্রীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এই কথা কাউকে না বলতে শাসায় ওই গৃহশিক্ষক। পরবর্তীতে ওই মেয়ের ব্যথা ও রক্তক্ষরণ শুরু হলে সে তার মাকে বিস্তারিত ঘটনা অবগত করে।

বুধবার ওই মেয়ের বাবা বাদী হয়ে ভালুকা মডেল থানায় জালাল উদ্দীনকে আসামি করে একটি ধর্ষণ মামলা করেন। পুলিশ রাতেই অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত আসামিকে গ্রেফতার করে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই বিল্লাল হোসেন জানান, মামলা হওয়ার পরই আমরা আসামিকে গ্রেফতার করি। বৃহস্পতিবার তাকে আদালতে প্রেরণ করা হয়। ছাত্রীর ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগে পাঠানো হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন