ওসিকে আদালতে তলব
jugantor
ওসিকে আদালতে তলব

  মাগুরা প্রতিনিধি  

০৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২১:৩৭:০৪  |  অনলাইন সংস্করণ

মাগুরায় একটি মামলা সম্পন্ন করার স্বার্থে পুলিশের কাছে প্রতিবেদন চেয়ে আড়াই বছর পরও না পাওয়ায় শ্রীপুর থানার ওসিকে ৩ দিনের মধ্যে আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

মাগুরার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক এম জাহিদ হাসান বৃহস্পতিবার এ আদেশ দিয়েছেন।

আদালতে বিচারাধীন মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার মদনপুর গ্রামের মোসলেম শেখের ছেলে আবদুল্লাহ শেখ শ্রীপুর বাসস্ট্যান্ডে স্টাটার হিসেবে জীবিকা নির্বাহ করতেন। ২০১৮ সালের ১ জুলাই দুপুর ৩টার দিকে সে বাড়ি থেকে শ্রীপুর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় পৌঁছলে তারই গ্রামের প্রতিপক্ষ সামাজিক দলের ২৬ জন সদস্য অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে তার ওপর হামলায় চালায়।

এতে আবদুল্লাহ শেখ মারাত্মক আহত হন। যে ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে তার ছোটভাই ফারুক শেখ ঘটনার পরদিন মাগুরা জেলা জজ আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলাটি পুলিশি তদন্ত শেষে আদালতে বিচারাধীন।

কিন্তু মামলাটির ২৬ নম্বর আসামি মদনপুর গ্রামের হাবিবুর রহমান শেখের ছেলে নজু শেখ (৫০) মামলা দায়েরের পর মারা যান। তার মৃত্যুর বিষয়ে প্রতিবেদন চেয়ে তৎকালীন চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সুনন্দ বাগচি ২০১৯ সালের ১৫ এপ্রিল শ্রীপুর থানা ওসিকে প্রতিবেদন চেয়ে পত্র দেন।

আদালত সূত্রে জানা যায়, মামলাটি দায়েরের পর ৩ বছর পেরিয়ে গেছে। অন্যদিকে প্রতিবেদন চাওয়ার পর কেটে গেছে ২ বছর ৫ মাস। তারপরও শ্রীপুর থানা পুলিশ আদালতে প্রতিবেদনটি জমা দেয়নি। এতে মামলাটির বিচারকার্য থেমে রয়েছে। যার পরিপ্রেক্ষিতে চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বৃহস্পতিবার তিন কার্য দিবসের মধ্যে শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে সশরীরে আদালতে হাজির হয়ে ওই বিষয়ে ব্যাখ্যা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

এ বিষয়ে শ্রীপুর থানার বর্তমান ওসি সুকদেব রায় আদালতের আদেশ প্রাপ্তির বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, এ সময়ের মধ্যে তিনজন ওসির পরিবর্তন হয়েছে। এতদিনেও কী কারণে প্রতিবেদনটি দেয়া হয়নি সেটি জানি না। তবে আদালতের নির্দেশনা মতো অবশ্যই ব্যাখ্যা দেয়া হবে।

ওসিকে আদালতে তলব

 মাগুরা প্রতিনিধি 
০৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:৩৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মাগুরায় একটি মামলা সম্পন্ন করার স্বার্থে পুলিশের কাছে প্রতিবেদন চেয়ে আড়াই বছর পরও না পাওয়ায় শ্রীপুর থানার ওসিকে ৩ দিনের মধ্যে আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

মাগুরার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক এম জাহিদ হাসান বৃহস্পতিবার এ আদেশ দিয়েছেন।

আদালতে বিচারাধীন মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, মাগুরার শ্রীপুর উপজেলার মদনপুর গ্রামের মোসলেম শেখের ছেলে আবদুল্লাহ শেখ শ্রীপুর বাসস্ট্যান্ডে স্টাটার হিসেবে জীবিকা নির্বাহ করতেন। ২০১৮ সালের ১ জুলাই দুপুর ৩টার দিকে সে বাড়ি থেকে শ্রীপুর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় পৌঁছলে তারই গ্রামের প্রতিপক্ষ সামাজিক দলের ২৬ জন সদস্য অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে তার ওপর হামলায় চালায়।

এতে আবদুল্লাহ শেখ মারাত্মক আহত হন। যে ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে তার ছোটভাই ফারুক শেখ ঘটনার পরদিন মাগুরা জেলা জজ আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলাটি পুলিশি তদন্ত শেষে আদালতে বিচারাধীন।

কিন্তু মামলাটির ২৬ নম্বর আসামি মদনপুর গ্রামের হাবিবুর রহমান শেখের ছেলে নজু শেখ (৫০) মামলা দায়েরের পর মারা যান। তার মৃত্যুর বিষয়ে প্রতিবেদন চেয়ে তৎকালীন চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সুনন্দ বাগচি ২০১৯ সালের ১৫ এপ্রিল শ্রীপুর থানা ওসিকে প্রতিবেদন চেয়ে পত্র দেন।

আদালত সূত্রে জানা যায়, মামলাটি দায়েরের পর ৩ বছর পেরিয়ে গেছে। অন্যদিকে প্রতিবেদন চাওয়ার পর কেটে গেছে ২ বছর ৫ মাস। তারপরও শ্রীপুর থানা পুলিশ আদালতে প্রতিবেদনটি জমা দেয়নি। এতে মামলাটির বিচারকার্য থেমে রয়েছে। যার পরিপ্রেক্ষিতে চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বৃহস্পতিবার তিন কার্য দিবসের মধ্যে শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে সশরীরে আদালতে হাজির হয়ে ওই বিষয়ে ব্যাখ্যা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

এ বিষয়ে শ্রীপুর থানার বর্তমান ওসি সুকদেব রায় আদালতের আদেশ প্রাপ্তির বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, এ সময়ের মধ্যে তিনজন ওসির পরিবর্তন হয়েছে। এতদিনেও কী কারণে প্রতিবেদনটি দেয়া হয়নি সেটি জানি না। তবে আদালতের নির্দেশনা মতো অবশ্যই ব্যাখ্যা দেয়া হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন