‘শেখ হাসিনার সব কাজের মূল বার্তাই বাঙ্গালিত্ব প্রতিষ্ঠা করা’
jugantor
‘শেখ হাসিনার সব কাজের মূল বার্তাই বাঙ্গালিত্ব প্রতিষ্ঠা করা’

  সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি  

১১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০০:২১:৪৪  |  অনলাইন সংস্করণ

পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান বলেছেন, শহীদ মিনার নির্মাণ করে শুধু ফুল দিলে হবে না, এর যে অন্তর্নিহিত বাণী যেটা মুক্তিযুদ্ধের সেটা আমাদের ধারণ করতে হবে। বাঙ্গালি শব্দটা যদি মনেপ্রাণে বিশ্বাস করে ধারণ করি তাহলে দায়িত্ব পালন করা হয়। এই সংগ্রামটা ছিল বাঙ্গালিত্ব প্রমাণ করার জন্য। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার সব কাজের মূল বার্তাই বাঙ্গালিত্ব প্রতিষ্ঠা করার। এই বাঙ্গালির সম্মান, ইতিহাস, ঐতিহ্য রক্ষা করার দায়িত্ব এই প্রজন্মের হাতে।

শুক্রবার সন্ধ্যায় সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদ আয়োজিত কৃতি শিক্ষার্থীদের সম্বর্ধনা এবং সুনামগঞ্জ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

পরিকল্পনামন্ত্রী আরও বলেন, শিক্ষার ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রীর আগ্রহ বরাবরই বেশি। তিনি শিক্ষাখাতে বেশি বরাদ্দ প্রদান করেন। বাঙ্গালি জাতিকে শিক্ষিত করে গড়ে তোলার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, বাঙ্গালির বিকল্প বাঙ্গালিই। শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার পাশাপাশি সুস্থ থাকার জন্য মাস্ক পরিধানসহ স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করতে হবে। শিক্ষার্থীদের জীবনকে নির্মল ও সুন্দরভাবে উপভোগ করার জন্য ও উৎসাহিত করতে তিনি শিক্ষকদের প্রতি আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদের উদ্যোগে এইচএসসি ও আলীম পরীক্ষায় জিপিএ-৫ প্রাপ্ত ১৫২ জন কৃতি শিক্ষার্থীকে প্রাইজবন্ড ও ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।

জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নুরুল হুদা মুকুটের সভাপতিত্বে সংবর্ধনা সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মোহাম্মদ জাকির হোসেন। অন্যান্যের মাঝে বক্তব্য রাখেন রাখেন- জেলা প্রশাসক জাহাঙ্গীর হোসেন, সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ শিক্ষাবিদ পরিমল কান্তি দে, পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান, পৌর মেয়র নাদের বখত, জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি রেজাউল করিম শামীম, তাহিরপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান করুণাসিন্ধু চৌধুরী বাবুল প্রমুখ।

কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠান শেষে পরিকল্পনা মন্ত্রী এমএ মান্নান জেলা শিল্পকলা একাডেমির অনতিদূরে সুনামগঞ্জ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। পরে জেলা শিল্পকলা একাডেমি আয়োজিত গুণীজন সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি প্রধান অতিথি হিসেবে যোগদান করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- ছাতক পৌরসভার মেয়র আবুল কালাম চৌধুরী, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শংকর চন্দ্র দাস, জুনেদ আহমদ, জেলা শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক শামসুল আবেদিন, দিরাই পৌরসভার সাবেক মেয়র মোশারফ মিয়া, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল কালাম, রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি লতিফুর রহমান রাজু, জেলা শ্রমিকলীগের সাবেক সভাপতি ফজলুল হক, তাহিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অমল কর, জেলা আওয়ামী লীগের মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক সিতেশ তালুকদার মঞ্জু, সদস্য আজাদুল ইসলাম রতন, সদর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি এহসান আহমেদ উজ্জ্বল, পৌর কাউন্সিলর আহসান জামিল আনাছ প্রমুখ।

‘শেখ হাসিনার সব কাজের মূল বার্তাই বাঙ্গালিত্ব প্রতিষ্ঠা করা’

 সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি 
১১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:২১ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান বলেছেন, শহীদ মিনার নির্মাণ করে শুধু ফুল দিলে হবে না, এর যে অন্তর্নিহিত বাণী যেটা মুক্তিযুদ্ধের সেটা আমাদের ধারণ করতে হবে। বাঙ্গালি শব্দটা যদি মনেপ্রাণে বিশ্বাস করে ধারণ করি তাহলে দায়িত্ব পালন করা হয়। এই সংগ্রামটা ছিল বাঙ্গালিত্ব প্রমাণ করার জন্য। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার সব কাজের মূল বার্তাই বাঙ্গালিত্ব প্রতিষ্ঠা করার। এই বাঙ্গালির সম্মান, ইতিহাস, ঐতিহ্য রক্ষা করার দায়িত্ব এই প্রজন্মের হাতে।

শুক্রবার সন্ধ্যায় সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদ আয়োজিত কৃতি শিক্ষার্থীদের সম্বর্ধনা এবং সুনামগঞ্জ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। 

পরিকল্পনামন্ত্রী আরও বলেন, শিক্ষার ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রীর আগ্রহ বরাবরই বেশি। তিনি শিক্ষাখাতে বেশি বরাদ্দ প্রদান করেন। বাঙ্গালি জাতিকে শিক্ষিত করে গড়ে তোলার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, বাঙ্গালির বিকল্প বাঙ্গালিই। শিক্ষার্থীদের পড়াশোনার পাশাপাশি সুস্থ থাকার জন্য মাস্ক পরিধানসহ স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করতে হবে। শিক্ষার্থীদের জীবনকে নির্মল ও সুন্দরভাবে উপভোগ করার জন্য ও উৎসাহিত করতে তিনি শিক্ষকদের প্রতি আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদের উদ্যোগে এইচএসসি ও আলীম পরীক্ষায় জিপিএ-৫ প্রাপ্ত ১৫২ জন কৃতি শিক্ষার্থীকে প্রাইজবন্ড ও ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।

জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নুরুল হুদা মুকুটের সভাপতিত্বে সংবর্ধনা সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মোহাম্মদ জাকির হোসেন। অন্যান্যের মাঝে বক্তব্য রাখেন রাখেন- জেলা প্রশাসক জাহাঙ্গীর হোসেন, সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ শিক্ষাবিদ পরিমল কান্তি দে, পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান, পৌর মেয়র নাদের বখত, জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি রেজাউল করিম শামীম, তাহিরপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান করুণাসিন্ধু চৌধুরী বাবুল প্রমুখ। 

কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠান শেষে পরিকল্পনা মন্ত্রী এমএ মান্নান জেলা শিল্পকলা একাডেমির অনতিদূরে সুনামগঞ্জ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। পরে জেলা শিল্পকলা একাডেমি আয়োজিত গুণীজন সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি প্রধান অতিথি হিসেবে যোগদান করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- ছাতক পৌরসভার মেয়র আবুল কালাম চৌধুরী, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শংকর চন্দ্র দাস, জুনেদ আহমদ, জেলা শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক শামসুল আবেদিন, দিরাই পৌরসভার সাবেক মেয়র মোশারফ মিয়া, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল কালাম, রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি লতিফুর রহমান রাজু, জেলা শ্রমিকলীগের সাবেক সভাপতি ফজলুল হক, তাহিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অমল কর, জেলা আওয়ামী লীগের মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক সিতেশ তালুকদার মঞ্জু, সদস্য আজাদুল ইসলাম রতন, সদর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি এহসান আহমেদ উজ্জ্বল, পৌর কাউন্সিলর আহসান জামিল আনাছ প্রমুখ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও খবর
 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন