মায়ের সামনে মোটরসাইকেল কেড়ে নিল শিশুর প্রাণ
jugantor
মায়ের সামনে মোটরসাইকেল কেড়ে নিল শিশুর প্রাণ

  মহম্মদপুর (মাগুরা) প্রতিনিধি  

১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:১৩:০৯  |  অনলাইন সংস্করণ

মাগুরা মহম্মদপুরে মায়ের সামনে দ্রুতগতির মোটরসাইকেল চাপায় এক শিশু নিহত হয়েছে। শিশুর নাম সুরাইয়া (৪)। শিশুটির বাবা ফরিদপুরের বোয়ালমারির ময়না ইউনিয়নের হাটখোলা গ্রামের গোলজার শেখ।

মঙ্গলবার বিকেল পাঁচটার দিকে উপজেলা সদরে মধুমতি নদীর সেতুর উপর এ ঘটনা ঘটে ঘটে। এই ঘটনায় মোটরসাইকেল আরোহী সাজিদ ও সোহান শেখ গুরুতর আহত হয়েছেন।

নিহত শিশুর স্বজন সূত্রে জানা যায়, শিশু সুরাইয়া অনেক দিন ধরে মায়ের কাছে বায়না ধরেছিল মধুমতি নদীর উপর ‘শেখ হাসিনা সেতু’ দেখবে। মা তিন মেয়েকে সঙ্গে নিয়ে সেতু দেখতে যান। সেতুর মাঝখানে একপাশে দাঁড়িয়ে ছিল শিশু সুরাইয়া। হঠাৎ দ্রুতগতির মোটরসাইকেল তাকে চাপা দেয়। ঘটনাস্থলেই মারা যায় সে।

শিশু সুরাইয়ার বাবা ভ্যানচালক গোলজার শেখ আহাজারি করে বলেন, মেয়েটা বায়না ধরেছিল শেখ হাসিনা সেতু দেখবে। তার ইচ্ছা পূরণকরতে সেতু দেখাতে এনেছিলাম। কিন্তু দ্রুতগতির মোটরসাইকেল এসে আমার মেয়েকে ধাক্কা দিয়ে মেরে ফেলেছে। এখন তার লাশ নিয়ে আমাদের বাড়ি ফিরতে হলো।

মহম্মদপুর থানার ওসি নাসির উদ্দীন জানান, এ ঘটনায় মোটরসাইকেলটি জব্দ করা হয়েছে।

এদিকে দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত মোটরসাইকেল আরোহী ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা উপজেলার বাজরা গ্রামের মঞ্জুরুল শেখের ছেলে সাজিদ শেখ (১৪) ও একই গ্রামের ইকবাল শেখের ছেলে সোহান শেখ (২০)। তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

মহম্মদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পানা কর্মকর্তা মকছেদুল মোমিন বলেন, মোটরসাইকেল আরোহীদের উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

মহম্মদপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) রামানন্দ পাল বলেন, খবর পেয়ে হাসপাতালে যাই। শিশু সুরাইয়াকে বাঁচানো যায়নি।

মায়ের সামনে মোটরসাইকেল কেড়ে নিল শিশুর প্রাণ

 মহম্মদপুর (মাগুরা) প্রতিনিধি 
১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:১৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মাগুরা মহম্মদপুরে মায়ের সামনে দ্রুতগতির মোটরসাইকেল চাপায় এক শিশু নিহত হয়েছে। শিশুর নাম সুরাইয়া (৪)। শিশুটির বাবা ফরিদপুরের বোয়ালমারির ময়না ইউনিয়নের হাটখোলা গ্রামের গোলজার শেখ। 

মঙ্গলবার বিকেল পাঁচটার দিকে উপজেলা সদরে মধুমতি নদীর সেতুর উপর এ ঘটনা ঘটে ঘটে। এই ঘটনায় মোটরসাইকেল আরোহী সাজিদ ও সোহান শেখ গুরুতর আহত হয়েছেন। 

নিহত শিশুর স্বজন সূত্রে জানা যায়, শিশু সুরাইয়া অনেক দিন ধরে মায়ের কাছে বায়না ধরেছিল মধুমতি নদীর উপর ‘শেখ হাসিনা সেতু’ দেখবে। মা তিন মেয়েকে সঙ্গে নিয়ে সেতু দেখতে যান। সেতুর মাঝখানে একপাশে দাঁড়িয়ে ছিল শিশু সুরাইয়া। হঠাৎ দ্রুতগতির মোটরসাইকেল তাকে চাপা দেয়। ঘটনাস্থলেই মারা যায় সে। 

শিশু সুরাইয়ার বাবা ভ্যানচালক গোলজার শেখ আহাজারি করে বলেন, মেয়েটা বায়না ধরেছিল শেখ হাসিনা সেতু দেখবে। তার ইচ্ছা পূরণ করতে সেতু দেখাতে এনেছিলাম। কিন্তু দ্রুতগতির মোটরসাইকেল এসে আমার মেয়েকে ধাক্কা দিয়ে মেরে ফেলেছে। এখন তার লাশ নিয়ে আমাদের বাড়ি ফিরতে হলো।

মহম্মদপুর থানার ওসি নাসির উদ্দীন জানান, এ ঘটনায় মোটরসাইকেলটি জব্দ করা হয়েছে।   

এদিকে দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত মোটরসাইকেল আরোহী ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা উপজেলার বাজরা গ্রামের মঞ্জুরুল শেখের ছেলে সাজিদ শেখ (১৪) ও একই গ্রামের ইকবাল শেখের ছেলে সোহান শেখ (২০)। তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক। 
   
মহম্মদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পানা কর্মকর্তা মকছেদুল মোমিন বলেন, মোটরসাইকেল আরোহীদের উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

মহম্মদপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) রামানন্দ পাল বলেন, খবর পেয়ে হাসপাতালে যাই। শিশু সুরাইয়াকে বাঁচানো যায়নি।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন