ছেলের মারধরে আহত বাবা, অন্তঃসত্ত্বা মা
jugantor
ছেলের মারধরে আহত বাবা, অন্তঃসত্ত্বা মা

  কালাই (জয়পুরহাট) প্রতিনিধি  

১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:৫১:৩৪  |  অনলাইন সংস্করণ

জয়পুরহাটের কালাইয়ে বড় ছেলের মারধরে আহত হয়েছেন ৬০ বছর বয়সী বাবা, আট মাসের অন্তঃসত্ত্বা সৎ মা এবং সৎ ভাই। সোমবার সন্ধ্যায় পৌরসভার থুপসাড়া মহল্লায় এ ঘটনা ঘটে।

এলাকাবাসী, হাসপাতাল ও ভুক্তভোগী সূত্রে জানা যায়, প্রায় ১৮ বছর আগে আব্দুল মান্নানের (৬০) প্রথম স্ত্রী হালিমা এক ছেলে ও এক মেয়ে রেখে মারা যান। এরপরতিনি ‘সুখী মন’ নামে এক নারীকে (৩৬) দ্বিতীয় বিয়ে করেন।

ওয়ারিশ সূত্রে প্রথম পক্ষের ছেলে বাবু (৩৫) তার মা হালিমার বাড়ির ৩ শতক জমির ভাগ পান। কিন্তুবাবুর বিরুদ্ধে থানায় একাধিকমামলা থাকায়, দীর্ঘ দিন তিনি পলাতক ও জেলে ছিলেন। এ কারণে বাবুর বাবা, সৎ মা ও সৎ ভাই ওই বাড়িতে থাকতেন।

সম্প্রতি জামিনে মুক্তি পান বাবু।দ্বন্দ্বেরআশঙ্কায়বাবুর পিতা আব্দুল মান্নান ওই বাড়ি থেকে দ্বিতীয় পক্ষের স্ত্রী ও সন্তানসহ অন্যত্র চলে যান। কিন্তু ঘটনার আগের দিন বাবু নিজ মহল্লায় মোবাইল ছিনতাইয়ের ঘটনায় জড়িয়ে পড়েন। তার বাবা এ বিষয়ে জানতে চাইলেউভয়ের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। এর জেরে বাবু নিজের পিতা, আট মাসের অন্তঃসত্ত্বা সৎ মা এবং ১৮ বছর বয়সী ছোট সৎ ভাইকে মারধর করে আহত করেন।

এ প্রসঙ্গে কালাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সেলিম মালিক বলেন, এ বিষয়ে কোনো অভিযোগ পায়নি। অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ছেলের মারধরে আহত বাবা, অন্তঃসত্ত্বা মা

 কালাই (জয়পুরহাট) প্রতিনিধি 
১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৫১ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

জয়পুরহাটের কালাইয়ে বড় ছেলের মারধরে আহত হয়েছেন ৬০ বছর বয়সী বাবা, আট মাসের অন্তঃসত্ত্বা সৎ মা এবং সৎ ভাই। সোমবার সন্ধ্যায় পৌরসভার থুপসাড়া মহল্লায় এ ঘটনা ঘটে। 

এলাকাবাসী, হাসপাতাল ও ভুক্তভোগী সূত্রে জানা যায়, প্রায় ১৮ বছর আগে আব্দুল মান্নানের (৬০) প্রথম স্ত্রী হালিমা এক ছেলে ও এক মেয়ে রেখে মারা যান। এরপর তিনি ‘সুখী মন’ নামে এক নারীকে (৩৬) দ্বিতীয় বিয়ে করেন। 

ওয়ারিশ সূত্রে প্রথম পক্ষের ছেলে বাবু (৩৫) তার মা হালিমার বাড়ির ৩ শতক জমির ভাগ পান। কিন্তু বাবুর বিরুদ্ধে থানায় একাধিক মামলা থাকায়, দীর্ঘ দিন তিনি পলাতক ও জেলে ছিলেন। এ কারণে বাবুর বাবা, সৎ মা ও সৎ ভাই ওই বাড়িতে থাকতেন। 

সম্প্রতি জামিনে মুক্তি পান বাবু। দ্বন্দ্বের আশঙ্কায় বাবুর পিতা আব্দুল মান্নান ওই বাড়ি থেকে দ্বিতীয় পক্ষের স্ত্রী ও সন্তানসহ অন্যত্র চলে যান। কিন্তু ঘটনার আগের দিন বাবু নিজ মহল্লায় মোবাইল ছিনতাইয়ের ঘটনায় জড়িয়ে পড়েন। তার বাবা এ বিষয়ে জানতে চাইলে উভয়ের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। এর জেরে বাবু নিজের পিতা, আট মাসের অন্তঃসত্ত্বা সৎ মা এবং ১৮ বছর বয়সী ছোট সৎ ভাইকে মারধর করে আহত করেন। 

এ প্রসঙ্গে কালাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সেলিম মালিক বলেন, এ বিষয়ে কোনো অভিযোগ পায়নি। অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন