গৃহবধূকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে আওয়ামী লীগ নেতা গ্রেফতার
jugantor
গৃহবধূকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে আওয়ামী লীগ নেতা গ্রেফতার

  ঝালকাঠি প্রতিনিধি  

১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৯:১৩:২৬  |  অনলাইন সংস্করণ

ঝালকাঠির রাজাপুরে গৃহবধূকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে সিদ্দিকুর রহমান সিকদার (৫০) নামে এক আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে। উপজেলার শুক্তাগড় ইউনিয়নের কেওতা গ্রামে মঙ্গলবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে।

গৃহবধূ বাদী হয়ে মঙ্গলবার রাতে রাজাপুর থানায় মামলা দায়ের করলে গ্রামের বাড়ি থেকে অভিযুক্ত আওয়ামী লীগ নেতাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

সিদ্দিকুর রহমান কেওতা গ্রামের মৃত মোহাম্মদ আলী সিকদারের ছেলে। তিনি শুক্তাগড় ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি।

গৃহবধূর দায়ের করা মামলার বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, মঙ্গলবার দুপুরে কেওতা মাদ্রাসার সামনের একটি দোকানে বিকাশ থেকে টাকা তুলতে যান ওই নারী। এ সময় সিদ্দিকুর রহমান তাকে কাজ শেষে বাড়িতে গিয়ে কথা শুনতে বলেন। ওই গৃহবধূ সিদ্দিকের বাড়িতে যায়। এ সময় ঘরে কেউ ছিল না। পরে ঘরের দরজা বন্ধ করে ওই নারীর শ্লীলতাহানি ঘটায় এবং ধর্ষণচেষ্টা করেন সিদ্দিক।

কৌশলে সিদ্দিকের ঘর থেকে ওই নারী বেরিয়ে আসেন। পরে ইউনিয়ন পরিষদের নারী ইউপি সদস্যসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের বিষয়টি জানালেও তারা এ ঘটনার বিচার করতে অপারগতা প্রকাশ করেন। পরে নিরুপায় হয়ে ওই নারী মঙ্গলবার রাতে থানায় মামলা করেন।

গৃহবধূ অভিযোগ করেন, সিদ্দিক আমাকে তাদের বাড়িতে যেতে বলে, সে বিবাহিত বাসায় স্ত্রীও থাকার কথা। আমি তাদের বাসায় ঢুকলে কাউকে দেখতে না পেয়ে বের হয়ে যাওয়ার সময় সে আমাকে একা পেয়ে ধর্ষণচেষ্টা করে। আমি পানি খাবো বলে কৌশলে ঘর থেকে বের হয়ে যাই। আমি সিদ্দিকের বিচার দাবি করছি।

রাজাপুর থানার ওসি মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, গৃহবধূকে যৌন নিপীড়নের ঘটনায় অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ঘটনায় রাতেই ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন। বুধবার দুপুরে আসামিকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

গৃহবধূকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে আওয়ামী লীগ নেতা গ্রেফতার

 ঝালকাঠি প্রতিনিধি 
১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৭:১৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ঝালকাঠির রাজাপুরে গৃহবধূকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে সিদ্দিকুর রহমান সিকদার (৫০) নামে এক আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে। উপজেলার শুক্তাগড় ইউনিয়নের কেওতা গ্রামে মঙ্গলবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে।

গৃহবধূ বাদী হয়ে মঙ্গলবার রাতে রাজাপুর থানায় মামলা দায়ের করলে গ্রামের বাড়ি থেকে অভিযুক্ত আওয়ামী লীগ নেতাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

সিদ্দিকুর রহমান কেওতা গ্রামের মৃত মোহাম্মদ আলী সিকদারের ছেলে। তিনি শুক্তাগড় ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি।

গৃহবধূর দায়ের করা মামলার বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, মঙ্গলবার দুপুরে কেওতা মাদ্রাসার সামনের একটি দোকানে বিকাশ থেকে টাকা তুলতে যান ওই নারী। এ সময় সিদ্দিকুর রহমান তাকে কাজ শেষে বাড়িতে গিয়ে কথা শুনতে বলেন। ওই গৃহবধূ সিদ্দিকের বাড়িতে যায়। এ সময় ঘরে কেউ ছিল না। পরে ঘরের দরজা বন্ধ করে ওই নারীর শ্লীলতাহানি ঘটায় এবং ধর্ষণচেষ্টা করেন সিদ্দিক।

কৌশলে সিদ্দিকের ঘর থেকে ওই নারী বেরিয়ে আসেন। পরে ইউনিয়ন পরিষদের নারী ইউপি সদস্যসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের বিষয়টি জানালেও তারা এ ঘটনার বিচার করতে অপারগতা প্রকাশ করেন। পরে নিরুপায় হয়ে ওই নারী মঙ্গলবার রাতে থানায় মামলা করেন।

গৃহবধূ অভিযোগ করেন, সিদ্দিক আমাকে তাদের বাড়িতে যেতে বলে, সে বিবাহিত বাসায় স্ত্রীও থাকার কথা। আমি তাদের বাসায় ঢুকলে কাউকে দেখতে না পেয়ে বের হয়ে যাওয়ার সময় সে আমাকে একা পেয়ে ধর্ষণচেষ্টা করে। আমি পানি খাবো বলে কৌশলে ঘর থেকে বের হয়ে যাই। আমি সিদ্দিকের বিচার দাবি করছি।

রাজাপুর থানার ওসি মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, গৃহবধূকে যৌন নিপীড়নের ঘটনায় অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ঘটনায় রাতেই ওই গৃহবধূ বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন। বুধবার দুপুরে আসামিকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন