পদ্মায় ফের ভাঙন
jugantor
পদ্মায় ফের ভাঙন

  রাজবাড়ী প্রতিনিধি  

১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২১:২৮:২৪  |  অনলাইন সংস্করণ

রাজবাড়ীতে পদ্মা নদীতে ফের ভাঙন শুরু হয়েছে। জেলার সদর উপজেলার মিজানপুর ইউনিয়নের চর সিলিমপুর এলাকার নদী তীর সংরক্ষণ কাজের সিসি ব্লকের প্রায় ৪০ মিটার অংশ নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যায়। ভাঙনের ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে চর-সিলিমপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ বেশ কিছু স্থাপনা।

সরেজমিন বুধবার দুপুরে চর সিলিমপুর এলাকার সিসি ব্লকের প্রায় ৪০ মিটার অংশ নদীগর্ভে বিলীন হতে দেখা যায়।

স্থানীয় বাসিন্দারা বলেন, পানি কমার সঙ্গে সঙ্গে পদ্মার ভাঙন বৃদ্ধি পায়। সেই কারণে পদ্মার ভাঙন শুরু হয়েছে। কিন্তু ভাঙনে বেড়িবাঁধ রক্ষার জন্য কংক্রিট দিয়ে নির্মিত সিসি ব্লকের অংশ ধসে যাচ্ছে এটা দুঃখজনক। এ বছর বর্ষার শুরুতে নদী তীর সংরক্ষণ কাজের বেশ কয়েকটি পয়েন্টের ৬০০ মিটার এলাকায় ভাঙন দেখা দিয়েছে বলে জানান তারা।

স্থানীয় বাসিন্দা নাজিম বলেন, নদীতে যেন আর নতুন করে কোনো এলাকা না ভাঙে সেই বিষয় বিবেচনা করে সিসি ব্লকের কাজ করছিল পানি উন্নয়ন বোর্ড। কিন্তু কাজ শেষ হতে না হতেই সিসি ব্লকের অনেক জায়গায় ফের ভাঙন শুরু হয়েছে। এটা সত্যিই দুঃখজনক।

এ বিষয়ে রাজবাড়ী পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আবদুল আহাদ যুগান্তরকে বলেন, পদ্মার পানি হ্রাস পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে নদীতে ভাঙন শুরু হয়েছে। ভাঙনে কিছু অংশ ক্ষতিগ্রস্তও হয়েছে। জিওব্যাগ ফেলে পানি উন্নয়ন বোর্ড ভাঙন রক্ষায় চেষ্টা করে যাচ্ছে বলে জানান এই কর্মকর্তা।

পদ্মায় ফের ভাঙন

 রাজবাড়ী প্রতিনিধি 
১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:২৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

রাজবাড়ীতে পদ্মা নদীতে ফের ভাঙন শুরু হয়েছে। জেলার সদর উপজেলার মিজানপুর ইউনিয়নের চর সিলিমপুর এলাকার নদী তীর সংরক্ষণ কাজের সিসি ব্লকের প্রায় ৪০ মিটার অংশ নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যায়। ভাঙনের ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে চর-সিলিমপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ বেশ কিছু স্থাপনা।

সরেজমিন বুধবার দুপুরে চর সিলিমপুর এলাকার সিসি ব্লকের প্রায় ৪০ মিটার অংশ নদীগর্ভে বিলীন হতে দেখা যায়।

স্থানীয় বাসিন্দারা বলেন, পানি কমার সঙ্গে সঙ্গে পদ্মার ভাঙন বৃদ্ধি পায়। সেই কারণে পদ্মার ভাঙন শুরু হয়েছে। কিন্তু ভাঙনে বেড়িবাঁধ রক্ষার জন্য কংক্রিট দিয়ে নির্মিত সিসি ব্লকের অংশ ধসে যাচ্ছে এটা দুঃখজনক। এ বছর বর্ষার শুরুতে নদী তীর সংরক্ষণ কাজের বেশ কয়েকটি পয়েন্টের ৬০০ মিটার এলাকায় ভাঙন দেখা দিয়েছে বলে জানান তারা।

স্থানীয় বাসিন্দা নাজিম বলেন, নদীতে যেন আর নতুন করে কোনো এলাকা না ভাঙে সেই বিষয় বিবেচনা করে সিসি ব্লকের কাজ করছিল পানি উন্নয়ন বোর্ড। কিন্তু কাজ শেষ হতে না হতেই সিসি ব্লকের অনেক জায়গায় ফের ভাঙন শুরু হয়েছে। এটা সত্যিই দুঃখজনক।

এ বিষয়ে রাজবাড়ী পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আবদুল আহাদ যুগান্তরকে বলেন, পদ্মার পানি হ্রাস পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে নদীতে ভাঙন শুরু হয়েছে। ভাঙনে কিছু অংশ ক্ষতিগ্রস্তও হয়েছে। জিওব্যাগ ফেলে পানি উন্নয়ন বোর্ড ভাঙন রক্ষায় চেষ্টা করে যাচ্ছে বলে জানান এই কর্মকর্তা।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও খবর
 
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন