বিয়ের কথা বলে ডেকে নিয়ে পোশাক কর্মীকে গণধর্ষণ, গ্রেফতার ১
jugantor
বিয়ের কথা বলে ডেকে নিয়ে পোশাক কর্মীকে গণধর্ষণ, গ্রেফতার ১

  দেওয়ানগঞ্জ (জামালপুর) প্রতিনিধি  

১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:২৭:৩৯  |  অনলাইন সংস্করণ

জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ উপজেলায় বিয়ের কথা বলে ডেকে এনে এক পোশাক কর্মীকে গণধর্ষণ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। পুলিশ একজনকে গ্রেফতার করেছে।

ঘটনাটি ঘটেছে ১৪ সেপ্টেম্বর দেওয়ানগঞ্জ সীমান্ত এলাকা ডাংধরা ইউনিয়নের টেংরামারী বাগানে। বৃহস্পতিবার দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানার পুলিশ জাহিদুল ইসলাম নামে একজনকে গ্রেফতার করে।

জানা যায়, মাগুরার ৩০ বছরের এক নারী পোশাককর্মী হিসেবে ঢাকার গাজীপুরে চাকরি করেন। গার্মেন্টসে পরিচয় হয় দেওয়ানগঞ্জ ডাংধরা বাঘারচর গ্রামের রবিজলের ছেলে সোহেব আলীর সঙ্গে। সোহেব আলী গ্রামের বাড়িতে এসে ওই নারীকে বিয়ের প্রস্তাবে দেওয়ানগঞ্জ নিয়ে আসে।

রাতে গার্মেন্টস কর্মীকে বাড়ি নিয়ে যাওয়ার কথা বলে নির্জন বাগানে নিয়ে যায় এবং সেখানে সোহেব আলীসহ ৪ জন তাকে গণধর্ষণ করে। নারীর চিৎকারে আশপাশের লোকজন তাকে উদ্ধার করেন।

দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানায় ধর্ষণকারী সোহেব আলী, লালচাঁন, আশরাফুল, সুরুজ আলী, জাহিদুলের নাম উল্লেখ করে দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন ওই নারী।

দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানার ওসি মুহাম্মদ মহব্বত কবীর জানান, পোশাকর্মী ওই নারী বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার মামলা দায়ের করেছেন। নারীকে মেডিকেল পরীক্ষার জন্য জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। পলাতক আসামিদের গ্রেফতারের জন্য পুলিশ তৎপর আছে।

বিয়ের কথা বলে ডেকে নিয়ে পোশাক কর্মীকে গণধর্ষণ, গ্রেফতার ১

 দেওয়ানগঞ্জ (জামালপুর) প্রতিনিধি 
১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:২৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ উপজেলায় বিয়ের কথা বলে ডেকে এনে এক পোশাক কর্মীকে গণধর্ষণ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। পুলিশ একজনকে গ্রেফতার করেছে।

ঘটনাটি ঘটেছে ১৪ সেপ্টেম্বর দেওয়ানগঞ্জ সীমান্ত এলাকা ডাংধরা ইউনিয়নের টেংরামারী বাগানে। বৃহস্পতিবার দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানার পুলিশ জাহিদুল ইসলাম নামে একজনকে গ্রেফতার করে।

জানা যায়, মাগুরার ৩০ বছরের এক নারী পোশাককর্মী হিসেবে ঢাকার গাজীপুরে চাকরি করেন। গার্মেন্টসে পরিচয় হয় দেওয়ানগঞ্জ ডাংধরা বাঘারচর গ্রামের রবিজলের ছেলে সোহেব আলীর সঙ্গে। সোহেব আলী গ্রামের বাড়িতে এসে ওই নারীকে বিয়ের প্রস্তাবে দেওয়ানগঞ্জ নিয়ে আসে।

রাতে গার্মেন্টস কর্মীকে বাড়ি নিয়ে যাওয়ার কথা বলে নির্জন বাগানে নিয়ে যায় এবং সেখানে সোহেব আলীসহ ৪ জন তাকে গণধর্ষণ করে। নারীর চিৎকারে আশপাশের লোকজন তাকে উদ্ধার করেন।

দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানায় ধর্ষণকারী সোহেব আলী, লালচাঁন, আশরাফুল, সুরুজ আলী, জাহিদুলের নাম উল্লেখ করে দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন ওই নারী।

দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানার ওসি মুহাম্মদ মহব্বত কবীর জানান, পোশাকর্মী ওই নারী বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার মামলা দায়ের করেছেন। নারীকে মেডিকেল পরীক্ষার জন্য জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। পলাতক আসামিদের গ্রেফতারের জন্য পুলিশ তৎপর আছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন