ঝোপ থেকে কিশোরের লাশ উদ্ধার
jugantor
ঝোপ থেকে কিশোরের লাশ উদ্ধার

  ফরিদপুর ব্যুরো  

১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:২২:৪০  |  অনলাইন সংস্করণ

ফরিদপুরের সদরপুরে এক কিশোরের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শুক্রবার দুপুরে উপজেলার ভাসানচর ইউনিয়নের গফুর মাতুব্বরেরডাঙ্গী গ্রাম থেকে অনিক সরকার (১৮) নামে এক কিশোরের লাশ ওই গ্রামের একটি ঝোপ থেকে উদ্ধার করা হয়।

অনিক সরকার ভাসানচর ইউনিয়নের মধু মণ্ডলেরডাঙ্গী গ্রামের পবন সরকারের ছেলে। তিনি সদরপুরের একটি গ্যারেজে মেকানিকের কাজ করতেন।

পুলিশ ও নিহতের স্বজনরা জানান, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় অনিককে মুঠোফোনে কে বা কারা ডেকে নিয়ে যান। এরপর থেকে তার কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি। রাতে বাড়ি না ফেরায় পরিবার বিষয়টি সদরপুর থানাকে জানায়।

শুক্রবার সকালে গফুর মাতুব্বরেরডাঙ্গী গ্রামের এক মহিলা তাল কুড়াতে ঝোপের কাছে গেলে অনিকের মরদেহ দেখতে পান। এ সময় তিনি বিষয়টি স্থানীয়দের জানান। পরে গ্রামের লোকজন ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেন।

পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়। লাশের শরীরে বেশ কিছু আঘাতের চিহ্ন রয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে। এ বিষয়ে সদরপুর থানায় মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

সদরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুব্রত গোলদার বলেন, ধারণা করা হচ্ছে- অনিককে মুঠোফোনে নির্জন স্থানে ডেকে নিয়ে শারীরিক নির্যাতন শেষে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়। এরপর মরদেহ ঝোপের মধ্যে ফেলে রাখা হয়।

ঝোপ থেকে কিশোরের লাশ উদ্ধার

 ফরিদপুর ব্যুরো 
১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:২২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ফরিদপুরের সদরপুরে এক কিশোরের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শুক্রবার দুপুরে উপজেলার ভাসানচর ইউনিয়নের গফুর মাতুব্বরেরডাঙ্গী গ্রাম থেকে অনিক সরকার (১৮) নামে এক কিশোরের লাশ ওই গ্রামের একটি ঝোপ থেকে উদ্ধার করা হয়।

অনিক সরকার ভাসানচর ইউনিয়নের মধু মণ্ডলেরডাঙ্গী গ্রামের পবন সরকারের ছেলে। তিনি সদরপুরের একটি গ্যারেজে মেকানিকের কাজ করতেন।

পুলিশ ও নিহতের স্বজনরা জানান, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় অনিককে মুঠোফোনে কে বা কারা ডেকে নিয়ে যান। এরপর থেকে তার কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি। রাতে বাড়ি না ফেরায় পরিবার বিষয়টি সদরপুর থানাকে জানায়। 

শুক্রবার সকালে গফুর মাতুব্বরেরডাঙ্গী গ্রামের এক মহিলা তাল কুড়াতে ঝোপের কাছে গেলে অনিকের মরদেহ দেখতে পান। এ সময় তিনি বিষয়টি স্থানীয়দের জানান। পরে গ্রামের লোকজন ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেন।

পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়। লাশের শরীরে বেশ কিছু আঘাতের চিহ্ন রয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে। এ বিষয়ে সদরপুর থানায় মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

সদরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুব্রত গোলদার বলেন, ধারণা করা হচ্ছে- অনিককে মুঠোফোনে নির্জন স্থানে ডেকে নিয়ে শারীরিক নির্যাতন শেষে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়। এরপর মরদেহ ঝোপের মধ্যে ফেলে রাখা হয়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
জেলার খবর
অনুসন্ধান করুন